মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পেট্রাপোলে ৪৬ স্বর্ণের বারসহ দুই কাশ্মিরী আটক

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল ॥ বেনাপোল চেকপোস্টের বিপরীতে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ শনিবার সন্ধ্যায় দুইজন ভারতীয় পাসপোর্টধারী কাশ্মিরী নাগরিকের কাছ থেকে ৪৬টি (৪ কেজি ৬শ’ গ্রাম) সোনার বার আটক করেছে। আটককৃতদের নাম-ঠিকানা জানা সম্ভব হয়নি।

জানা যায়, ভারতের পাসপোর্টধারী ওই যাত্রীরা ঢাকা থেকে বিমানে করে যশোর আসে। সেখান থেকে সন্ধ্যার দিকে বেনাপোল চেকপোস্ট আন্তর্জাতিক কাস্টমস হাউসে আসে। সেখানে বিশেষ পরিচয় দিয়ে কাস্টমস সুপারের রুমে বসে ভিআইপি মর্যাদায় ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস পার হয়। কিন্তু ভারতীয় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে আগে থেকে স্বর্ণ পাচারের তথ্য থাকায় ইমিগ্রেশনে প্রবেশ করার মুহূর্তেই পুলিশের গোয়েন্দা সদস্যরা তাদের আটক করে। পরে তাদের সঙ্গে থাকা একটি টেলিফোন সেট ও পায়ের জুতোর মধ্য থেকে ৪৬টি স্বর্ণের বার জব্দ করে। যার ওজন ৪ কেজি ৬শ’ গ্রাম। বর্তমানে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশনে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভারতীয় এক কুলি জানায়, আমি নিজে ওই দুইজন যাত্রীর ব্যাগ নিয়ে কাস্টমস পার হয়ে ইমিগ্রেশনে যাই। এ সময় সাদা পোশাকের পুলিশ তাদের আটক করে ব্যাগ ও জুতোর সোলের মধ্যে তল্লাশি করে সোনার বারগুলো পায়। পরে পুলিশ আমাকে চলে যেতে বলে। বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আব্দুর রহিম জানান, শুনেছি ভারতীয় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ সোনাসহ দুই যাত্রীকে আটক করেছে। এ ছাড়া বেশি কিছু শুনিনি। এ ব্যাপারে চেকপোস্ট কাস্টমস সুপার উত্তম কুমারের কাছে জানতে চাওয়া হয় সোনার চালানটি বাংলাদেশে আটক না হয়ে ভারতে আটক হলো, আপনারা ব্যাগ স্ক্যান করেননি? উত্তরে তিনি বলেন, পরীক্ষা যন্ত্রটি দীর্ঘদিন ধরে অচল রয়েছে। বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাদের জানানোর পরেও তা ঠিক হয়নি। এ কারণে সব ব্যাগ পরীক্ষা করা সম্ভব হয় না। কোন ব্যাগ সন্দেহ হলে তা খুলে হাতে তল্লাশি করা হয়।

এর আগে ৭ এপ্রিল বেনাপোল পোর্ট থানার গাতিপাড়া গ্রামের বাবর আলীর ছেলে সিএন্ডএফ কর্মচারী নূর ইসলামকে ২১ টি সোনার বারসহ আটক করে বিজিবি সদস্যরা।

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫

১৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: