মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যুদ্ধাপরাধী বশিরকে গ্রেফতার করুন

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫
  • দক্ষিণ আফ্রিকাকে আইসিসি

সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশিরকে গ্রেফতার করার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)। আফ্রিকান ইউনিয়নের (এইউ) এক সম্মেলনে যোগ দিতে বশির এখন দক্ষিণ আফ্রিকায় অবস্থান করছেন। তিনি দারফুরের সংঘাতের জন্য যুদ্ধাপরাধের দায়ে আইসিসির ‘মোস্ট ওয়ান্টেডের’ তালিকায় রয়েছেন। খবর বিবিসির।

আইসিসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার উচিত হবে না বশিরকে আটক করার কোন সুযোগ হাতছাড়া করা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার টিভি এসএবিসি টুইটারে জানিয়েছে, দেশটির কর্মকর্তারা জোহান্সবার্গে বশিরকে স্বাগত জানিয়েছে। সুদানের সুনা সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, প্রেসিডেন্টের সফরসঙ্গী হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও শীর্ষ কর্মকর্তারা রয়েছেন। আইসিসি এবং এইউয়ের মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে উত্তেজনা চলছে। এইউ দাবি করছে, আইসিসি অন্যায়ভাবে আফ্রিকানদের লক্ষ্যবস্তু করছে। এর আগে এইউ তাদের ক্ষমতাসীন নেতাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না নিতে আইসিসির প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল। প্রেসিডেন্ট বশিরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির ফলে তার বিদেশ যাত্রার ওপর বেশ কয়েকবার কড়াকড়ি আরোপ করা হলেও আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের বন্ধু রাষ্ট্রগুলোতে তিনি সফর করেন। যদিও তিনি তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। আইসিসি ওই বিবৃতিতে জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকাকে তাদের প্রতিশ্রুতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আইসিসিকে সহযোগিতা করা উচিত। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার নিউজ২৪ জানিয়েছে, বশিরকে গ্রেফতার করার সম্ভাবনা ক্ষীণ। মানবাধিকার সংস্থাগুলো ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান বিরোধী দল তাকে গ্রেফতারের আহ্বান জানিয়েছেন। আইসিসির এ্যাসেমব্লি প্রেসিডেন্ট সিদিকি কাবা এক বিবৃতিতে বলেছেন, তিনি গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত একজন আসামির দ- নিশ্চিতের প্রচেষ্টায় যেন কোন ত্রুটি না হয় তার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা সব সময় আইসিসিকে শক্তিশালী করতে অবদান রাখছে। এ ধরনের একজন ব্যক্তির গ্রেফতারি পরোয়ানা প্রতিপালিত না হলে আদালত সম্পর্কে মানুষের নেতিবাচক ধারণার বিষয় নিয়েও তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন। আফ্রিকান ইউনিয়নের সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। তিনি আইসিসি চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসতে আফ্রিকার নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। জোহানেসবার্গ ভিত্তিক মানবাধিকার আইনজীবী গ্যাব্রিয়েল শুমবা বলেন, আইসিসিতে স্বাক্ষরকারী দেশ হিসেবে তাকে গ্রেফতারে দক্ষিণ আফ্রিকার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ২০০৯ সালে অভিযুক্ত হওয়ার পর থেকে বশির আইসিসির সদস্য নয় এমন কয়েকটি দেশে সফর করেছেন।

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫

১৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: