কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেয়র বুলবুলের বরখাস্তের আদেশ আপিল বিভাগে বহাল

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫, ০৪:৫২ পি. এম.

অনলাইন রিপোর্টার॥ রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দেয়া আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে রবিবার শুনানি শেষে চেম্বার বিচারপতির দেওয়া আদেশ বহাল রাখেন।

৪ জনু হাইকোর্টোর আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থাগিত করেন। একই সঙ্গে বিষয়টির ওপর শুনানির জন্য ১৪ জুন আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠান।

এর আগে ৭ মে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বরখাস্ত করে নোটিশ দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। বুলবুলের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২৮ মে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ওই নোটিশের ওপর স্থগিতাদেশ দেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিটি করপোরেশন শাখা থেকে মেয়রের বরখাস্ত সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়। আদেশে বলা হয়, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন ২০০৯-এর ধারা ১২ অনুযায়ী বুলবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

২০১৩ সালের ১৫ জানুয়ারি রাজশাহী মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন। এর পর নভেম্বর মাসেই সরকারবিরোধী আন্দোলন শুরু হলে একজন পুলিশ সদস্য নিহত হন। বিএনপিসহ বিরোধী জোটের টানা অবরোধের মধ্যে ২৩ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর মতিহার থানার কাপাশিয়া এলাকায় ঢাকাগামী গাড়িবহরে পেট্রোলবোমা হামলা হয়। এর আগে ২২ জানুয়ারি দুপুরে নগরীর কাদিরগঞ্জ ট্রাকের বহরে হামলা এবং ১৯ জানুয়ারি নগরের ভদ্রা এলাকায় যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমা হামলার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় মেয়রকে আসামি করা করা হয়। এর পর থেকে মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন আত্মগোপনে চলে যান। সিটি করপোরেশনে নিজ কার্যালয়েও আসেননি। তবে তিনি আত্মগোপনে থেকে কিছু কিছু নথিতে সই করেন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর মেয়রের নামে পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ চন্দ্র সরকারকে হত্যা, পুলিশের ওপর হামলাসহ ১১টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ হত্যা মামলা এবং গত ৪ ফেব্রুয়ারি বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। পরে আরও তিনটি মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। আদালতে মামলার অভিযোগপত্র গৃহীত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে মেয়রকে বরখাস্ত করার জন্য সুপারিশ করা হয়।

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫, ০৪:৫২ পি. এম.

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: