মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বগুড়ায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫, ০৪:৪৬ পি. এম.

অনলাইন রিপোর্টার॥ বগুড়ার শেরপুরে জয়নব বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূকে মারপিট ও শ্বাসরোধ করে তার স্বামী আব্দুর রউফ (৩৫) হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

নিহত জয়নব উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের খামারকান্দি গ্রামের তমিজ উদ্দিনের মেয়ে। রবিবার দুপুরে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই আনছার আলী বাদী হয়ে স্বামী আব্দুর রউফকে অভিযুক্ত করে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

নিহতের ভাই আনছার আলী জানান, প্রায় বছর চারেক আগে একই গ্রামের দুদু প্রামাণিকের ছেলে আব্দুর রউফের সঙ্গে তার বোনের বিয়ে হয়। এরপর আব্দুর রউফ তার বোন ঘরে থাকা অবস্থায় আরেক মেয়েকে বিয়ে করেন।

সেই থেকে তাদের মধ্যে বিভিন্ন সময় ঝগড়াঝাটি হয়ে আসছিল। শনিবার রাত ৯টার দিকে বিদ্যুৎ না থাকায় জয়নব স্বামীকে বাজার থেকে মোমবাতি কিনে আনতে বলেন।

কিন্তু স্বামী মোমবাতি কিনে না আনায় তাদের মধ্যে ঝগড়াঝাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে স্বামী স্ত্রী জয়নবকে মারপিট ও শ্বাসরোধ করে গুরুতর আহত করেন।

পরে অবস্থা বেগতিক দিকে স্বামী আব্দুর রউফ রাতেই জয়নবকে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তায়েব আলী রাত ১১টায় জয়নবকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

নিহতের ভাই আনছার আলী আরও জানান, এরপর আব্দুর রউফ ও তার লোকজন কৌশলে তার বোনের মরদেহ হাসপাতাল থেকে গ্রামে নিয়ে এসে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দ্রুত দাফনের চেষ্টা করেন।

এরই মধ্যে তারা সংবাদ পেয়ে মরদেহ দাফনে বাধা দেন এবং রোববার তার বোনকে স্বামী আব্দুর রউফ হত্যা করেছেন সন্দেহ করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

শেরপুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ কবির জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে তাকে হত্যা করা হয়েছে নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা জানতে পারেননি। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পরই কেবল তার মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে বলা যাবে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫, ০৪:৪৬ পি. এম.

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: