মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সুপ্রীমকোর্ট আজ খুলছে

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্ট ১৩ দিন অবকাশ শেষে আজ রবিবার খুলছে। ১ জুন থেকে ১৩ জুন পর্যন্ত সুপ্রীমকোর্টে গ্রীষ্মকালীন অবকাশ ছিল। অবকাশকালীন জরুরী বিষয় নিষ্পত্তির জন্য অবকাশকালীন বেঞ্চ ছিল। সুপ্রীমকোর্ট খোলার পর বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। এর মধ্যে ১৬ জুন মঙ্গলবার আপীল বিভাগে জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলবদর কমান্ডার আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের মামলার রায়। এ ছাড়া এইচএসসির ফলের ভিত্তিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা নীতিমালা চ্যালেঞ্জ করে একটি রিটের শুনানি আজ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা নাইকো দুর্নীতি মামলার রুল শুনানি শেষ হয়েছে। রায় ঘোষণা অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখা হয়েছে। এই রায়ও যে কোন দিন দেয়া হবে। একই সঙ্গে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা গ্যাটকো ও বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলা বাতিল চেয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার করা আবেদনের ওপর রুলের শুনানি ১৪ জুন রবিবার ২টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে।

জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের রায় হবে আপীল বিভাগের চতুর্থ রায়। ২৭ মে উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৬ জুন দিন নির্ধারণ করা হয়। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চে এই দিন নির্ধারণ করা হয়। বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হলেনÑ বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। শুনানি শেষে রায় ঘোষণার এ দিন ধার্য করে দেয় আদালত।

এর আগে আরও ৩টি মামলা সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে নিষ্পত্তি হয়েছে। আপীলের প্রথম রায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লার আপীল নিষ্পত্তির পর ২০১৩ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর যাবজ্জীবন সাজা বাড়িয়ে মৃত্যুদ-াদেশ দেয়া হয়। এ রায় রিভিউর আবেদনও খারিজ করে দেয় আপীল বিভাগ। এরপর ওই বছর ১২ ডিসেম্বর কাদের মোল্লার মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়। ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় রায়ে জামায়াতের নায়েবে আমীর দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ট্র্রাইব্যুনালে দেয়া সাজা মৃত্যুদ- থেকে কমিয়ে তাকে আমৃত্যু কারাদ- দেয়া হয়। আর তৃতীয় রায়ে জামায়াতের আরেক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ কামারুজ্জামানকে ট্রাইব্যুনালে দেয়া ফাঁসির দ-াদেশ বহাল রাখা হয়। ফাঁসির দ- বহাল রাখার রায়ের বিরুদ্ধে কামারুজ্জামানের রিভিউ (পুনর্বিবেচনা) আবেদনও খারিজ করে রায় দেয় আপীল বিভাগ। ১১ এপ্রিল রাতে এ ফাঁসি কার্যকর করা হয়। ট্রাইব্যুনালে দ-িতদের মধ্যে কামারুজ্জামান হলেন দ্বিতীয় ব্যক্তি, যার ফাঁসির রায় কার্যকর করা হলো। মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০১৩ সালের ১৭ জুলাই মুজাহিদকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ-াদেশের রায় দেয় ট্র্রাইব্যুনাল-২। এ মৃত্যুদ-াদেশের রায়ের বিরুদ্ধে খালাস চেয়ে ২০১৩ সালের ১১ আগস্ট সুপ্রীমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আপীল করেন মুজাহিদ।

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: