মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তবে কি সুযোগ হাতছাড়া মুমিনুলের!

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫
তবে কি সুযোগ হাতছাড়া মুমিনুলের!
  • টানা ১২ টেস্টে অর্ধ শতক হাঁকানোর বিশ্বরেকর্ড ছুঁতে পারেননি প্রথম ইনিংসে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ফতুল্লায় বাংলাদেশ-ভারত একমাত্র টেস্টে মাঠে ব্যাট-বলের খেলার চেয়েও বেশি খেলেছে প্রকৃতি। বৃষ্টির কারণে পুরো একদিন ভেসে গেছে এবং যে তিনটা দিন খেলা হয়েছে সেখানেও বৃষ্টির বাগড়ায় বিঘিœত হয়েছে। এখন বাকি শুধু আজকের শেষদিন। প্রথম ইনিংসে মুমিনুল হক সৌরভ ৩০ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন। টানা ১২ টেস্টেই পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলা এবি ডি ভিলিয়ার্সের বিশ্বরেকর্ড ছুঁয়ে ফেলার জন্য চলতি টেস্টে আর একটি অর্ধশতক প্রয়োজন ছিল তার। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে হয়ত অতি অস্বাভাবিক কিছু না ঘটলে ব্যাটিংয়েরই সুযোগ পাবেন না তিনি। প্রথম ইনিংসে অর্ধশতক হাতছাড়া হওয়ার কারণে তাই হয়ত বিশ্বরেকর্ড গড়ার সুযোগটাই হারিয়ে ফেললেন মুুমিনুল। টেস্ট শুরুর আগে রেকর্ড নিয়ে কোন মাথাব্যথা নেই এমনটাই বলেছিলেন তিনি। কিন্তু ওপেনার তামিম ইকবাল মুমিনুলের জন্য হতাশা ব্যক্ত করলেন সংবাদ সম্মেলনে। তামিম নিজে বেশ হতাশ জানিয়ে দাবি করলেন এতে করে বাংলাদেশের ক্রিকেট একটি গৌরবময় অর্জন থেকে বঞ্চিত হতে যাচ্ছে।

টানা ১১ টেস্টেই অন্তত একটি করে অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন মুমিনুল। অবিস্মরণীয় এক কীর্তি গড়ার সামনে দাঁড়িয়ে ফতুল্লা টেস্টে নেমেছিলেন তিনি। কারণ একটি অর্ধশতক প্রয়োজন ছিল তার দক্ষিণ আফ্রিকার ভিলিয়ার্সের বিশ্বরেকর্ডে ভাগ বসানোর জন্য। কিন্তু প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ হলেন তিনি। ফতুল্লা টেস্টে একটি ইনিংস শেষ হয়েছে সবেমাত্র। আজ শেষদিন। বাংলাদেশ দলের প্রথম ইনিংস সবেমাত্র শুরু হয়েছে। ৩ উইকেটে ১১১ রান হয়েছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে যে তিনটি উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ দল সেখানে নাম আছে মুমিনুলেরও। ৫৪ বলে ৪টি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে তিনি ৩০ রান করে হরভজন সিংয়ের ঘূর্ণিতে বিভ্রান্ত হয়ে আউট হয়েছেন। ফলে বিশ্বরেকর্ডটা ছোঁয়া হয়নি। দ্বিতীয় ইনিংসে আরেকটি সুযোগ খুব ভালভাবেই পেয়ে কাজে লাগানোর প্রচেষ্টা চালাতে পারতেন। কিন্তু এক ইনিংস শেষ হওয়ার আগেই পঞ্চম ও শেষদিনে গড়িয়েছে ফতুল্লা টেস্ট। চরম অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেট। অনেক কিছুই ঘটতে পারে। ভারত অনেক বড় সংগ্রহ গড়েছে। বাংলাদেশ যদি অস্বাভাবিক ঘটনার কারণে দ্রুত অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়ে এবং দ্বিতীয় ইনিংস ব্যাট করতে নেমে যায়, সেক্ষেত্রে হয়ত সুযোগটা আরেকবার পেতে পারেন তিনি। তবে আবহাওয়া পরিস্থিতি এবং বাংলাদেশ দল যেভাবে ব্যাট চালিয়ে যাচ্ছে এতে করে সম্ভাবনাটা একেবারেই ক্ষীণ। কারণ ফলোঅন এড়াতে আর মাত্র ১৫২ রান প্রয়োজন বাংলাদেশের। সে জন্য হাতে আছে ৭ উইকেট। তাই বিশ্বরকের্ডটার দোরগোড়ায় এসেও হাতছাড়া হতে চলেছে মুমিনুলের।

টানা ১১ টেস্টে পঞ্চাশোর্ধ্ব (হাফসেঞ্চুরি) ইনিংস খেলে এখন মুমিনুল ঠাঁই করে নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসের পাশে। সঙ্গে আছেন আরও দুই ভারতীয় ক্রিকেটার বীরেন্দর শেবাগ ও গৌতম গাম্ভীর। তবে টানা ১২ টেস্টে অর্ধশতকের বেশি রান করে সবার ওপরে দক্ষিণ আফ্রিকার ভিলিয়ার্স। পরের টেস্টে অর্ধশতক পেলেই ভিলিয়ার্সের গড়া বিশ্বরেকর্ডের অংশীদার হয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল ২৩ বছর বয়সী মুমিনুলের। তবে এই রেকর্ড বিষয়ে মুমিনুল ফতুল্লা টেস্টের আগে বলেছিলেন, ‘আমি এসব নিয়ে কখনও চিন্তাই করি না। নিজের খেলার যে ধরন সেভাবেই খেলে দলের জন্য কিছু করতে চাই।’ তবে মুমিনুলের চিন্তা না থাকলেও বিষয়টি তামিমকে বেশ হতাশ করছে। সেই হতাশা তিনি ব্যক্ত করার সময় বলেন, ‘আমি খুবই হতাশ। ও (মুমিনুল) কতটা হতাশ আমি জানি না। যতদূর দেখেছি সে কখনও এসব রেকর্ড নিয়ে একেবারেই ভাবে না। কিন্তু আমি মনে করি এটা দেশের জন্য অনেক বড় গৌরবের বিষয় হতো। রেকর্ডবুকে দেশের কারও নাম থাকলে সেটা অনেক ভাল হতো।’ এদিন তামিম নিজে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে সর্বাধিক রানের মালিক হয়ে গেছেন। কিন্তু সেটাকে ভেঙ্গে ফেলার উপযুক্ত তিনি মুমিনুলকেই মনে করছেন। তামিম বলেন, ‘মুমিনুল যেভাবে রান করছে সে হয়ত আমার চেয়ে ৫-৬ টেস্ট আগেই তিন হাজার রান করে ফেলবে। এভাবে খেলতে পারলে আমি ১০ টেস্ট কম খেলে রেকর্ড ছুঁয়েছি সে হয়ত আরও কম খেলে সবাইকে ছাড়িয়ে যাবে।’

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: