মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইরাকে আরও মার্কিন ঘাঁটি তৈরির পরিকল্পনা

প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০১৫
  • আইএসবিরোধী লড়াইয়ে মার্কিন সামরিক উপস্থিতি বাড়াতে চায় হোয়াইট হাউস

প্রেসিডেন্ট ওবামা ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইরাকী নিরাপত্তা বাহিনীকে সাহায্য করতে পর্যাপ্ত ঘাঁটি এবং সম্ভবত শত শত অতিরিক্ত সৈন্যের ব্যবস্থা করে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উপস্থিতির বিস্তার ঘটানোর চিন্তাভাবনা করছেন। হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার এ কথা বলেন। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

ইরাকী বাহিনী যে মুহূর্তে রণাঙ্গনে লড়াই করছে সেসময় প্রশাসনের সহযোগীরা বলেন, ওবামা পর্যাপ্তসংখ্যক সামরিক চৌকি স্থাপনের বিষয় বিবেচনা করছেন। যেখানে আমেরিকান উপদেষ্টারা ইরাকী বাহিনী ও স্থানীয় উপজাতীয় লোকদের সঙ্গে একত্রে কাজ করবেন। ইরাকীরা ঘাঁটিগুলোর পরিচালনায় থাকবে এবং আমেরিকানরা স্থলযুদ্ধে নিয়োজিত না হলেও যুদ্ধক্ষেত্রে অগ্রবর্তী স্থানের কাছাকাছি থেকে তারা আরও সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে।

হোয়াইট হাউস কর্মকর্তারা জোর দিয়ে বলেন, এ সংক্রান্ত কোন প্রস্তাব ওবামাকে পেশ করা হয়নি। এবং তারা আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এ ধরনের কোন সিদ্ধান্ত আশা করছেন না। তবে প্রশাসন আইএসের শক্ত ঘাঁটি আনবার প্রদেশে অতিরিক্ত ৪৫০ মার্কিন সেনাসহ একটি নতুন ঘাঁটি স্থাপনের ঘোষণা দেয়ার একদিন পর সামরিক উপস্থিতি আরও বৃদ্ধির সম্ভাবনা দেখা দিল। ওই অতিরিক্ত সৈন্য নিয়ে ইরাকে মোট মার্কিন সেনাসংখ্যা ৩৫৫০ তে উন্নীত হবে যা একটি আদর্শ সেনা ব্রিগেডের আকারের সমান। প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলেছেন, আনবারের নতুন ঘাঁটি যুদ্ধ প্রচেষ্টার সমন্বয় সাধনে কোন পার্থক্য সূচিত করে কিনা তারা তা মূল্যায়ন করবেন এবং করলে দেশের অন্যান্য অংশেও অনুরূপ উদ্যোগ গ্রহণের বিষয় বিবেচনা করা হবে। যদিও কর্মকর্তারা নতুন করে আরও মার্কিন সৈন্য প্রেরণ না করেও অন্যান্য ঘাঁটি স্থাপন করা সম্ভব বলে উল্লেখ করলেও তারা স্বীকার করেন যে, আরও ঘাঁটির জন্য অতিরিক্ত সৈন্য মোতায়েনের প্রয়োজন। ২০১১তে সকল সৈন্য প্রত্যাহার করে নেয়ার পর থেকে ওবামা দীর্ঘদিন আরেকটি স্থলযুদ্ধে জড়িত হয়ে পড়া থেকে দূরে থাকলেও সর্বশেষ পরিস্থিতি একটি সাম্প্রদায়িক সংঘাত বৃদ্ধির ক্ষেত্রকেই প্রশস্ত করবেÑ প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব ত্যাগের সময় তিনি যে সংঘাতের অবসান ঘটিয়ে যাবেন বলে আশা করেছিলেন। আইএসকে পরাজিত করার হোয়াইট হাউসের অঙ্গীকার এই অপর্যাপ্ত পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে সফল হলে আইএসের মোকাবেলায় আরও জোরালো প্রচেষ্টার সমর্থনকরা এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে, উদ্যোগকে এর সমালোচকরা আরও ব্যাপক, রক্তাক্ত এবং শেষ পর্যন্ত অকার্যকর অভিযানে পর্যবশিত হওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন।

২০১১ তে যুক্তরাষ্ট্র ইরাক থেকে যোদ্ধা সদস্যদের প্রত্যাহার করার পর কিছু মার্কিন সৈন্যকে সেখানে প্রশিক্ষক ও উপদেষ্টার মতো যুদ্ধবহির্ভূত ভূমিকা পালনের জন্য রেখে দেয়া হয়।

প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০১৫

১৩/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: