মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের দুই কোম্পানির সঙ্গে বিদ্যুত চুক্তি দেশের স্বার্থের অনুকূল নয় ॥ বিএনপ

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫, ০১:৩৪ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সুন্দরবনের কথা চিন্তা করে রামপালে বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে সুন্দরবন ইস্যুতে জাতীয় এক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। দলের মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, রামপালে বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন করা হলে সুন্দরবনের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে। বিশ্ব ঐতিহ্য থেকে সুন্দরবনের নাম মুছে যাবে। সেটা কারোরই জন্য কাম্য নয়। বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপনের জন্য অনেক জায়গা পাওয়া যাবে। কিন্তু দেশে অনেক সুন্দরবন পাওয়া যাবে না।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, রামপাল বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপনের বিরোধিতা করা কোন রাজনৈতিক বিষয় নয়। দেশে বিদ্যুত কেন্দ্রের দরকার রয়েছে। সেটা রামপালেই করতে হবে এমন কোন কথা নেই। যেখানে বিদ্যুত প্রকল্পটি করা হচ্ছে সেই রামপাল থেকে সুন্দরবনের দূরত্ব মাত্র ৮ কিলোমিটার। দেশী ও বিদেশী পরিবেশবাদীরা বলে আসছেন, রামপালে বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপিত হলে দেশের অহঙ্কার ও গর্বের সুন্দরবন চিরতরে ধ্বংস হয়ে যাবে। সুন্দরবন ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের অংশ। কিন্তু বিদ্যুত প্রকল্পটি চালু হলে তা ওয়ার্ল্ড লস্ট হেরিটেজের অংশ হয়ে যাবে, যা কোনভাবেই কাম্য নয়।

তিনি বলেন, এ মাসেই ইউনেস্কো সুন্দরবন জরিপের কাজ করবে। সে জরিপে বিশ্ব এতিহ্য থেকে সুন্দরবনের নাম বাদ গেলে জাতির জন্য সেটা হবে লজ্জাজনক। বিএনপি বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপনের বিরোধিতা করছে না। আমরা চাই দেশে আরও বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপিত হোক। দেশের অন্য যে কোন স্থানে এ প্রকল্প হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টার নিজ জেলাতেও এটা হতে পারে।

তিনি বলেন, সরকার রামপালে কয়লাভিত্তিক একটি বিদ্যুত প্রকল্প চালু করতে সম্প্রতি দুটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেছে। এ চুক্তিতে মোট উৎপাদিত বিদ্যুতের মাত্র ১৩ শতাংশ পাবে বাংলাদেশ। আর যাদের সঙ্গে চুক্তি করা হয়েছে সেই কোম্পানি পাবে ৮৭ শতাংশ। এটা কোনভাবেই দেশের স্বার্থের অনুকূল নয়। সিপিবি-বাসদ বা বিএনপি শুধু নই, দেশের একটি বৃহৎ অংশ যারা আওয়ামী লীগের নৌকায় ভোট দেন, তাদের মধ্যেও বিবেকবান মানুষ রয়েছেন যারা রামপালে বিদ্যুত প্রকল্প হোক তা চান না। হয়ত দলীয় সিদ্ধান্তের কারণে তারা তা প্রকাশ করতে পারেন না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান খান, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল (অব) মোঃ শাহজাহান, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সাবেক এমপি হেলেন জেরিন খান, মাসুদ অরুণ, শাম্মী আক্তার প্রমুখ ।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে চীনা রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাত কাল ॥ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে আগামীকাল শনিবার সাক্ষাত করবেন চীনা রাষ্ট্রদূত ম মিং কিয়াং। রাত সাড়ে ৮টায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে বলে দলীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫, ০১:৩৪ এ. এম.

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: