মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আজব হলেও গুজব নয়

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

চলন্ত ট্রেনে ‘আইসিইউ’

আস্ত একটা ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ)। চিকিৎসার যাবতীয় সরঞ্জামও রয়েছে। রোগীর বিছানা থেকে শুরু করে ওষুধপত্র, অক্সিজেন থেকে স্যালাইন, সবই রয়েছে সেখানে। রয়েছে একসঙ্গে সাত-আট জন রোগীকে চিকিৎসার ব্যবস্থাও। না, কোন হাসপাতাল নয়, নতুন এই আইসিইউ তৈরি হয়েছে ট্রেনের কামরায়। ভারতের মুম্বাইয়ে এই রেল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট চালু হয়েছে। রেল এ্যাম্বুলেন্স হিসেবে কাজ করবে এই নতুন পরিষেবা। প্রাথমিকভাবে ট্রেনের দুটি এসি কোচ নিয়ে এই আইসিইউ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ৫০ থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে কোন দুর্ঘটনা ঘটলে এই রেল এ্যাম্বুলেন্স দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাবে। রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়াসহ যাবতীয় চিকিৎসা পরিষেবা পাওয়া যাবে এই আইসিইউতে।

তরমুজের দাম ১০ লাখ

দশলাখি ফল খেয়েছেন কখনও ? ফল কিনতে কেউ লাখ টাকা খরচ করবেনÑ ভারতে বাদ-ই দিন, এমন বিলাসী মানুষ এ দুনিয়ায় বিরল বলেই মনে হয়। কিন্তু যদি পকেট পারমিট করে, একবার আশ মিটিয়ে নিতে পারেন। আর না-ই বা খেলেন, জানতে দোষ কী।

জাপানের যুবারি মেলন, বাইরে থেকে দেখতে অনেকটাই আমাদের তরমুজের মতো। কিন্তু স্বাদে আবার কমলালেবুর কাছাকাছি। ফল গোত্রে এটাই দুনিয়ার সবচাইতে দামী। এতটাই দামী, এ সপ্তাহে জাপানের বাজারে একটা যুবারি মেলনের দাম উঠেছে ভারতীয় মুদ্রায় ৭ লাক ৯২ হাজার টাকা। এর চাইতে কম টাকায় জাপানে নতুন গাড়ি কেনা হয়ে যাবে। তবে এটা কিন্তু রেকর্ড দাম নয়। গত বছর এক একটা যুবারি মেলন বিক্রি হয়েছে ১০ লাখ টাকায়। এই ফলটি জাপানে আভিজাত্যের প্রতীক। ধনীরা বন্ধু-সজন মহলে এই ফল উপহার দিয়ে থাকেন।

১০২ বছর বয়সে ডক্টরেট

বয়স ১০২। এই বয়সেই ডক্টরেট ডিগ্রী লাভ করলেন র‌্যাপপোর্ট! হ্যাঁ, এমন অভাবনীয় ঘটনাই ঘটেছে। বার্লিনের এই মেডিক্যাল প্রফেসর তিন বছর আগেই কর্মজীবন থেকে অবসর নেন। ১৯৩৮ সালে করা ডিপথেরিয়া নিয়ে তাঁর গবেষণার জন্যই এই ডক্টরেট। র‌্যাপপোর্টের মা ইহুদি হওয়ায় তাঁর পরীক্ষার ফর্মে হলুদ কালি দিয়ে চিহ্নিত করে দেয়া হয়। ফলে মৌখিক পরীক্ষায় তাঁকে ডাকা হয়নি। গত বছর তাঁর ছেলে টম হামবুর্গ ইউনিভার্সিটির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এরপরই বিশ্ববিদ্যালয় কৃর্তপক্ষ মৌখিক পরীক্ষা নিতে রাজি হয়। হামবুর্গ ইউনিভার্সিটির মেডিসিন বিভাগের ডিন উই কচ গ্রোমাস তাঁর মৌখিক পরীক্ষা নেন। তারপরই তাকে এই ডিগ্রী দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে সব থেকে বেশি বয়সে ডক্টরেট পাওয়ার রেকর্ড এতদিন ছিল ৯৭। রেকর্ড ভেঙ্গে নতুন রেকর্ড গড়লেন জার্মানির এই বৃদ্ধা। গত ৯ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁকে ডক্টরেট উপাধি দেয়া হয়।

সাত সতেরো প্রতিবেদক

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: