মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নওগাঁ ও বগুড়ায় দুই গরু ব্যবসায়ীর জবাই করা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫
  • সীমান্তে উত্তেজনা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নওগাঁয় বৃহস্পতিবার ভোরে ও বগুড়ায় বুধবার রাতে দুজন গরু ব্যবসায়ীর জবাই করা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নওগাঁয় পাওয়া গেছে শহিদুল ইসলামের ও বগুড়ায় হাবিবুর রহমান ধলুর লাশ পাওয়া গেছে। নওগাঁর ঘটনার সঙ্গে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) জড়িত থাকায় বিষয়টি নিয়ে সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতার। বৃহস্পতিবার ভোরে নওগাঁর সাপাহার সীমান্তে শহিদুল ইসলাম (৩০) নামে বাংলাদেশী এক গরু ব্যবসায়ীর জবাই করা লাশ উদ্ধার উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে বিএসএফ হত্যা করেছে বলে বিজিবি ও পুলিশ ধারনা করছে। সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্ত এলাকার ২৩৭নং মেইন পিলারের ৩এস সাব-পিলার এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। নিহত শহিদুল উপজেলার কলমুডাঙ্গা চন্দেরঘাট এলাকার গরু ব্যবসায়ী মোস্তফার পুত্র। ঘটনায় সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিজিবি ও এলাকাবাসী জানিয়েছে, বুধবার রাতে শহিদুল এক দল গরু ব্যবসায়ীর সঙ্গে গরু আনার জন্য ভারতে ঢুকেছিলেন। শেষরাতে গরু নিয়ে ফেরার পথে ভারতের আদাডাঙ্গা বিএসএফ ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ সদস্যরা শহিদুলকে ধরে গলায় হাসুয়া দিয়ে জবাই করে তার লাশ ভারতের সীমান্ত রাস্তার ব্রিজের কাছে নোম্যান্স ল্যান্ডে ফেলে রেখে যায়। ভোরে বাংলাদেশের লোকজন মাঠে গিয়ে শহিদুলের জবাই করা লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্প ও থানায় সংবাদ দেয়। বিজিবি ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শহিদুলের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। বিজিবি পতœীতলা ১৪ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর ইকবাল আখতার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনার প্রতিবাদে ভারতীয় আদাডাঙ্গা বিএসএফ ক্যাম্পে জোরালো প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হবে বলে কলমুডাঙ্গা বিওপি কমান্ডার নায়ক সুবেদার আব্দুল আওয়াল খান জানিয়েছেন। বিজিবি ১৪ বর্ডারগার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল রফিকুল হাসান পিএসসি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এদিকে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার চামরুল ইউনিয়নের আটগ্রাম শাহপাড়ায় নিজের ঘর থেকে গরু ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান ধলুর (৫০) জবাই করা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার শোয়ার ঘর থেকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। এসময় সেখান হাসুয়া ও ছুরি পাওয়া যায়।

জানা গেছে, ঘটনার দিন দুপুরে ছেলের লেখাপড়ার খরচ নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে ধলুর ঝগড়া হয়েছিল। এর পর ক্ষেত থেকে বাড়ি ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ রেখে ভিতরে সে একাই ছিলো।

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: