কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অপরাধ দমনে আগামী সপ্তাহে সারাদেশে বিশেষ অভিযান শুরু

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫
  • পুলিশ সদর দফতরে সভার সিদ্ধান্ত

শংকর কুমার দে ॥ আগামী সপ্তাহ থেকে সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করতে যাচ্ছে। আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে রমজান মাস সামনে রেখে নিরাপত্তা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। বিশেষ অভিযানের সময়ে মানবপাচারকারী, মাদক ব্যবসায়ী, জাল টাকা, যানজট, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, ছিনতাই, ডাকাতি, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মলম পার্টি, অজ্ঞান পার্টি, প্রতারণা, জঙ্গীবিরোধী অভিযানসহ নানা ধরনের অপরাধ দমন করে নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই এর লক্ষ্য। বৃহস্পতিবার পুলিশ সদর দফতরে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পুলিশ সদর দফতর সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

পুলিশ সদর দফতরে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন এমন একজন কর্মকর্তা জানান, আর মাত্র এক সপ্তাহ পরই শুরু হচ্ছে পবিত্র রমজান মাস এবং রমজান মাস শেষে ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে রোজাদার মুসল্লিসহ সাধারণ নাগরিকদের নির্বিঘেœ কেনাকাটা, চলাফেরা সার্বিক নিরাপত্তার প্রশ্নটি নিয়ে আলোচনা হয় বৈঠকে। প্রতিবছরই রমজান মাস ও পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের সময়ে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ ও সমস্যার সৃষ্টি হয়, যা নিরসনে সভা অনুষ্ঠান করে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নির্দেশনা দেয়া হয়। বৃহস্পতিবারের সভায় আসন্ন রমজান মাসের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা, ট্রেন, বাস ও লঞ্চের নিরাপদ চলাচল ও যাত্রীদের নিরাপত্তা, যানজট নিরসন, ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনা, ঈদ জামাতের নিরাপত্তা, জাল টাকার অপব্যবহার রোধ সম্পর্কে বিশদ আলোচনা হয়। জনসাধারণের কেনাকাটার সুবিধার্থে এবং তারাবির নামাজের সময় অপরাধমূলক তৎপরতা প্রতিরোধে গভীর রাত পর্যন্ত পুলিশ টহলের নির্দেশনা দেয়া হয়। ব্যাংক ও অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠানে আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে জনসাধারণ যাতে খুব সহজে সহায়তা পেতে পারে এ ব্যাপারে আরও কী পদক্ষেপ নেয়া যায় এবং ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে মোটা অঙ্কের টাকা লেনদেনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তা গ্রহণের পরামর্শসহ বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পুলিশ সদর দফতরে অনুষ্ঠিত সভা শুরু হয় বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায়। প্রায় সোয়া তিন ঘণ্টাব্যাপী সভা চলে। সভা শেষ হয় সন্ধ্যা পৌনে সাতটায়। পুলিশের আইজি একেএম শহীদুল হকের সভাপতিত্বে আসন্ন রমজান ও ঈদ-উল-ফিতরের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে সভায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ প্রশাসনের সকল অতিরিক্ত আইজিপি, সিআইডি ও এসবি প্রধান, র‌্যাব মহাপরিচালক, সকল বিভাগের ডিআইজি ও সকল মেট্রোপলিটন কমিশনার, হাইওয়ে, নৌ পুলিশ ও টুরিস্ট পুলিশের ডিআইজিসহ অন্য কর্মকর্তারা। সভায় উপস্থিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তারা আলোচনায় অংশ নিয়ে পবিত্র রমজান মাস ও ঈদের নিরাপত্তা বিষয় ছাড়াও দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক বিষয়ের ওপর আলোকপাত করেন। যে কোন মূল্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, অপরাধ দমন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বে অবহেলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার বিষয়ে আলোচনা করা হয়। সভা সূত্রে জানা গেছে, মহাসড়কে পুলিশ কর্তৃক যানবাহন তল্লাশি নিয়ে প্রতি বছরই পরিবহন সংগঠনগুলো থেকে অভিযোগ পাওয়া যায়। জনদুর্ভোগের বিষয়টি অগ্রাধিকার দিয়ে এই বিষয়ে কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আর মহাসড়কে ডাকাতি প্রতিরোধেও বিশেষ টিম গঠন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সভায় নেয়া সিদ্ধান্তগুলোর বাস্তবায়নের বিষয়টি মনিটরিং করার জন্য পুলিশ সদর দফতর, ডিআইজি অফিস ও মেট্রোপলিটন পুলিশ সদর দফতরে ২৪ ঘণ্টা সেল চালু করা হচ্ছে। আর গোটা বিষয়টি তদারকির জন্য পুলিশ সদর দফতরের একজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ উদযাপনের জন্য ঘরমুখো মানুষের নিরাপদ যাতায়াতের জন্য রেলওয়ে স্টেশন, বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে টিকেট কালোবাজারি প্রতিরোধে পুলিশ, মালিক ও শ্রমিক নেতা এবং কমিউনিটি পুলিশের সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: