আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আইএসের বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগ

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫
  • ওবামাকে ক্ষমতা দিতে কংগ্রেসের উদ্যোগ

ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে মার্কিন সামরিক অভিযানের বর্ষপূর্তি এগিয়ে আসার প্রাক্কালে যুক্তরাষ্ট্রের উভয় দলের দু’জন সিনেটর প্রশাসনকে আইএসবিরোধী লড়াইয়ের সুনির্দিষ্ট কর্তৃত্ব প্রদানে কংগ্রেসকে বাধ্য করার উদ্যোগ নিয়েছেন। ভার্নিজিয়ার ডেমোক্র্যাটিকদলীয় সিনেটর টিমোথি এম. কেইন এবং আরিজোনার রিপাবলিকানদলীয় সিনেটর জেফ ফ্লেক বিতর্কে অংশগ্রহণ এবং সামরিক শক্তি প্রয়োগের অনুমোদন (্এইউএমএফ) দিতে ভোটদানের দায়িত্ব এড়ানোর জন্য সহযোগী সিনেটরদের নিন্দা করেন। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

কেইন বুধবার সাংবাদিকদের ব্রিফিংদানকালে বলেন, ‘আসুন আমরা আমাদের মিত্র ও প্রতিপক্ষদের মুখোমুখি হই। সেনা সদস্যরা হাসুক যে, আমরা আবার মিশনে ফিরে এসেছি।’ মঙ্গলবার এইউএমএফ বিল উত্থাপনকারী কেইন এবং ফ্লেক বলেন, সিনেট পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান সিনেটর বব কর্কারের কাছ থেকে এই আভাস পেয়ে আশান্বিত হয়েছেন যে, আগামী মাসে কংগ্রেসের গ্রীষ্মকালীন অবকাশের পূর্বে প্যানেল এই প্রশ্নে আলোচনা করবে। ফ্লেক বলেন, ‘গতকালের আগে পর্যন্ত কোনভাবে এ প্রসঙ্গে আলোচনার জন্য আমাদের কোন অঙ্গীকার ছিল না।’ গত বছর আইএসের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনায় প্রেসিডেন্ট ওবামাকে কতটুকু স্বাধীনতা দেয়া যায় সে ব্যাপারে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানরা বিভক্ত হয়ে পড়ায় কংগ্রেসের অনুমোদন পাস করানোর প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। ডেমোক্র্যাটরা আল কায়েদার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ২০০১-এর ইইউ এমএফের আইনী বলে ওবামাও তার পূর্বসূরি জর্জ ডব্লিউ বুশের ব্যাপক ক্ষমতার উল্লেখ করে বর্তমান লড়াইয়ে স্থলবাহিনী ব্যবহারের ওপর সীমাবদ্ধতা ও কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রেসিডেন্টের বিশেষ অধিকার খর্ব করার চেষ্টা করেছিলেন, যার আওতায় এ পর্যন্ত প্রধানত বিমান হামলার অভিযান চালানো হয়। রিপাবলিকান সদস্যরা জোর দিয়েছেন যে, ওইসব সীমাবদ্ধতা সন্ত্রাসবাদবিরোধী যুদ্ধ চালিয়ে যেতে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করবে। ওবামা জাতীয় নিরাপত্তার জন্য এই যুদ্ধ গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করেছেন। গত আগস্টে ইরাকে ও সেপ্টেম্বরে সিরিয়ায় বিমান হামলা শুরুর সময় ওবামা বলেছিলেন ২০০১ সালের অনুমোদনবলে বিমান হামলা আইনগতভাবে বৈধ ছিল। কারণ আইএসের নেৃতৃত্বের শেকড় এক দশক আগে ইরাকে আল কায়েদাসংশ্লিষ্ট হামলার মধ্যে নিহিত ছিল ।

তবে তিনি বলেন, এই অনুমোদন আইএসের প্রতি সুনির্দিষ্টভাবে প্রযোজ্য হলে তিনি স্বাগত জানাবেন।

কয়েক মাস ধরে কারা নতুন আইনের খসড়া তৈরি করবে সে ব্যাপারে হোয়াইট হাউস ও কংগ্রেসের মধ্যে টানাপোড়েন চলে। এদিকে বুধবার ওবামা ইরাকে আরও ৪০০ সামরিক উপদেষ্টা পাঠানোর যে ঘোষণা দিয়েছেন তাতে একটি দ্বিধাগ্রস্ত কৌশলের উভয় সঙ্কটে পড়ার বিষয়টিই প্রতিফলিত হয়েছে। সেটি হলো তিনি (ওবামা) যে যুদ্ধ কখনও চাননি সে যুদ্ধে আরও গভীরভাবে না জড়িয়ে কি করে একটি দেশের দুর্বল সরকারকে সাহায্য করা যায়। প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলেছেন, সেনা সংখ্যা বৃদ্ধি যা গত বছর ইরাকে প্রত্যাবর্তনের পর দ্বিতীয়বারের মতো বৃদ্ধি-রণাঙ্গনে দ্রুত জয়লাভের লক্ষ্যে তা করা হয়নি।

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: