আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণ ॥ রাজশাহীতে টিসিবির পণ্য বিক্রি

প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রমজান মাসকে সামনে রেখে রাজশাহীতে পণ্য বিক্রি শুরু করেছে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। গত কয়েক দিন থেকেই ভোক্তাপর্যায়ে চিনি, ছোলা, সয়াবিন তেল ও মুসুর ডাল বিক্রির এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

টিসিবির রাজশাহী আঞ্চলিক অফিস প্রধান (ভারপ্রাপ্ত) আনিসুর রহমান বলেন, এরই মধ্যে রাজশাহী নগরীতে এবং বিভাগের বাকি জেলা সদরে ট্রাকে করে পণ্য বিক্রি শুরু হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহী নগরীতে পাঁচটি এবং প্রতিটি জেলা সদরে দুটি করে ট্রাক নামানো হয়েছে। এসব ট্রাকে চিনি, সয়াবিন, মুসুর ডাল ও ছোলা বিক্রি করা হচ্ছে। ভোক্তাপর্যায়ে প্রতি কেজিতে দাম পড়বে চিনি ৩৭ টাকা, মুসুর ডাল (আমদানিকৃত) ১০৩ টাকা এবং ছোলা (আমদানিকৃত) ৫৩ টাকা এবং প্রতিলিটার সয়াবিন তেল ৮৮ টাকা। একজন ভোক্তা সর্বোচ্চ চার কেজি করে চিনি, মুসুর ডাল ও ছোলা এবং ৫ লিটার সয়াবিন তেল কিনতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, টিসিবির পণ্য বাজারে থাকলে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে।

৫ দফা দাবিতে খুলনা অঞ্চলে পাটকল শ্রমিকদের অনশন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ পাট খাতে প্রয়োজনী অর্থ বরাদ্দ, বকেয়া মজুরি ও বেতন পরিশোধ এবং ২০ ভাগ মহার্ঘভাতা প্রদানসহ ৫ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে অনশন কর্মসূচী পালন করেছেন খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিক নেতারা। রাষ্ট্রায়ত্ত জুট মিল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ আহূত চলমান আন্দোলন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খুলনার শহীদ হাদিস পার্কে এ অনশন কর্মসূচী পালিত হয়।

অনশনে শ্রমিকদের প্রতিনিধি হিসেবে খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলসমূহের সিবিএ-নন সিবিএ নেতৃবৃন্দ ও কিছু শ্রমিক অংশগ্রহণ করেন। অনশন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ সোহরাব হোসেন। বক্তব্য রাখেনÑ শ্রমিক নেতা মোঃ শাহ আলম, মোঃ দ্বীন ইসলাম, মোঃ মুরাদ হোসেন, মোঃ কাওসার আলী মৃধা, মোঃ খলিলুর রহমান, নুরুল হক, মোঃ বেল্লাল মল্লিক, আঃ মান্নান প্রমুখ। শ্রমিক নেতারা বলেন, পাটশিল্পকে বাঁচিয়ে রাখার স্বার্থে অবিলম্বে মিলগুলোকে পূর্ণাঙ্গ উৎপাদনমুখী করার জন্য পাট খাতে প্রয়োজনীয় অর্থ ছাড় দিতে হবে। বক্তারা পাটপণ্যের দেশীয় বাজার সুরক্ষা ও সম্প্রসারণ করার জন্য প্রণীত আইন ২০০২ ও ম্যান্ডেটরি প্যাকেজিং এ্যাক্ট-২০১০ অবিলম্বে বাস্তবায়ন, পে-কমিশনের ন্যায় রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পে শ্রমিকদের জন্য মজুরি কমিশন বোর্ড গঠন, শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি ও বেতন পরিশোধ করার দাবি জানান।

দিনাজপুরে ৩শ’১১ ডাক্তার-কর্মকর্তার পদ শূন্য

ভেঙ্গে পড়েছে চিকিৎসাসেবা

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালসহ ১৩ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ৩শ’ ১১টি পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য থাকায় চিকিৎসা সুবিধা থেকে বঞ্চিত লাখো মানুষ। ভেঙ্গে পড়েছে জেলার স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা। দীর্ঘদিন ধরে দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালসহ ১৩টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ৩১১টি পদ শূন্য থাকায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন রোগী। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে চিকিৎসা নিতে এসে ফিরে যেতে হচ্ছে রোগীদের। ডাক্তার না থাকায় বাধ্য হয়ে রোগীদের ক্লিনিকে বেশি টাকা দিয়ে চিকিৎসা করাতে হচ্ছে। জানা গেছে, জেনারেল হাসপাতালসহ ১৩টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারের পদ ২শ’ ৮১টি। কর্মরত ১শ’ ৮১ জন। আর শূন্য পদের সংখ্যা ১০০টি। দ্বিতীয় শ্রেণীর কর্মচারীর ২শ’ ৬৬টি পদের বিপরীতে কাজ করছেন ১শ’ ৮৯ জন। শূন্য রয়েছে ৭৭টি পদ। তৃতীয় শ্রেণীর ১ হাজার ৪৮ কর্মচারীর পদের বিপরীতে কর্মরত ৯শ’ ৫৭ জন। পদ শূন্য রয়েছে ৯১টি। চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর ৩শ’ ৬৮টি পদের বিপরীতে ৩শ’ ২৫ জন কাজ করছেন। শূন্য ৪৩টি। সিভিল সার্জন ডাঃ সুলতান মোহাম্মদ শামসুজ্জামান জানান, শূন্য পদ পূরণের জন্য প্রতিনিয়ত উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হচ্ছে। বার বার তাগিদপত্রও দেয়া হচ্ছে।

প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৫

১১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: