মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সিরিয়ার বৃহত্তম সেনা ঘাঁটি বিদ্রোহী বাহিনীর দখলে

প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৫

সিরিয়ার বিদ্রোহীরা সরকার নিয়ন্ত্রিত একটি সামরিক ঘাঁটিতে আক্রমণ চালিয়ে দখল করে নিয়েছে। যা প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ বাহিনীর ক্রমবর্ধমান ধারাবাহিক পরাজয়ের সর্বশেষ অবস্থান বলে বিদ্রোহী ও বিরোধীরা জানিয়েয়েছে। গত তিন মাস ধরে আসাদ বাহিনী বিদ্রোহী সদস্য আল কায়েদা সংশ্লিষ্ট স্থানীয় জঙ্গী ও ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আক্রমণে পশ্চাদপসরণ করতে বাধ্য হচ্ছে। ফলে জর্দান সীমান্ত এলাকা ও ঐতিহাসিক পালমিরাসহ উত্তরাঞ্চলীয় শহর ইদলিবে সরকারী বাহিনী নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে। খবর গার্ডিয়ান অনলাইনের।

পশ্চিমা নিয়ন্ত্রিত বিদ্রোহী জোট সাউদার্ন ফ্রন্ট হামলা চালিয়ে উত্তরাঞ্চলীয় দারা প্রদেশের সেনা নিয়ন্ত্রিত ব্রিগেড ৫২ দখল করে নেয় বলে দারার সরকারবিরোধী কর্মী আহমেদ আল মাসালমেহ জানান। এটা ওই প্রদেশে সিরিয়ার সবচেয়ে বড় সামরিক ঘাঁটি। প্রদেশটি জর্দান থেকে রাজধানী দামেস্ক সংযোগস্থায়ী মহাসড়কের কাছেই অবস্থিত। মাসালমেহ আরও জানান, বিদ্রোহীরা কাছের একটি গ্রাম এমলিহা আল শারকিয়াহও দখল করে নিয়েছে। সাউদার্ন ফ্রন্টের মুখপাত্র ইসাম আল রায়েস বলেন, ৬ ঘণ্টাব্যাপী যুদ্ধে বিদ্রোহীরা একটি বিমান ঘাঁটি দখল করে নেয়। সেখানে একটি পদাতিক সেনাবাহিনী, কামান ও একটি বাহিনীর ট্যাঙ্ক টি-৭২ অবস্থিত। সরকারী সৈন্যদের ব্রিগেড ৫২ সম্পূর্ণভাবে যুদ্ধে পরাজিত হয়। ঘাঁটিটি সরকার নিয়ন্ত্রিত সিউইদা প্রদেশের সীমান্তে অবস্থিত। শহরটি দখলের পর কাছের গ্রামগুলোতে আনন্দ উৎসব শুরু হয়েছে। সিরিয়ার সরকার ব্রিগেড ’৫২-এর পতন সম্পর্কে সরাসরি কোন মন্তব্য করেনি। তবে রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদ সংস্থা সানা জানিয়েছে, দারা প্রদেশে সেনা ইউনিটে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীরা হামলা চালিয়েছে। এতে আরও বলা হয় সন্ত্রাসীরা প্রতিবেশী দেশ জর্দান শিবির থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে হামলা চালিয়েছে। সন্ত্রাসী সংগঠনগুলো দারা প্রদেশের সীমান্ত অতিক্রম করেছে। তারা ভারি অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালায়। সিরিয়া সরকার প্রেসিডেন্ট আসাদকে উৎখাত করতে যুদ্ধরত বিদ্রোহীদের সন্ত্রাসী হিসেবে আখ্যায়িত করে আসছে।

প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৫

১১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: