আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গিটারের সাতকাহন

প্রকাশিত : ৯ জুন ২০১৫

গোধূলী বিকেলের সোনালী রোদ গায়ে জড়িয়ে বিল্ডিংয়ের ছাদে বসে জমিয়ে আডডা দিচ্ছে একদল যুবক। নীল আকাশে ভেসে থাকা সাদা মেঘের সাথে দূর থেকে ভেসে আসছে তাদের গান, যার সুরে আশপাশের পরিবেশে যোগ হচ্ছে সঙ্গীতের ছটা, দলের মধ্যমণি মাঝখানে বসে নিমগ্নে বাজিয়ে যাচ্ছেন গিটার। আর অন্যরা তার সুরে সুর মিলিয়ে গাইছে তাদের প্রিয় একটি গান, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা তারুণ্যের প্রিয় অনেক স্পটে গেলেই আমরা দেখতে পাই এই ধরনের আড্ডা, যেখানে এই বাদ্যযন্ত্রের কারণেই সকলের প্রিয় হয়ে উঠেছেন গিটারিস্ট। গিটার সম্পর্কে ডি প্রজন্মের পাঠকদের একটি সম্যক ধারণা দিতেই আমরা এবার জানব গিটার নিয়ে কিছু মজার তথ্য।

আমরা তুরুণরা কমবেশি সবাই গিটার নামক বাদ্যযন্ত্রটির সঙ্গে পরিচিত। দেশীয় ব্যান্ড সঙ্গীতের কারণে পাশ্চাত্যের এই আধুনিক যন্ত্রটি আমাদের দেশে যথেষ্ট পরিচিতি লাভ করেছে এবং দিনে দিনে জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে গিটারের জনপ্রিয়তা, ইদানীং তরুণদের অনেককেই গিটার বাজাতে দেখা যায়। আবার অনেকেই উন্মুখ হয়ে আছে বাজানো শিখতে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই নিজের ভাল লাগা বুঝতে এবং একটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য স্থির করতে হবে, নিজের উদ্দেশ্য না বুঝে কাঁধে গিটার ঝুলিয়ে লোক দেখানো গিটারিস্ট না হওয়াই ভাল। প্রতিটি গিটারিস্টকে সঙ্গীত সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। দক্ষতা এবং সৃষ্টিশীলতা বাড়াতে নিজেকে উৎসর্গ করা উচিত সুরের সাগরে, সারাজীবন অন্যের করা সুর না বাজিয়ে অন্যের গাওয়া গান না গেয়ে নিজস্ব মৌলিকত্বের দিকেও আমাদের সচেষ্ট থাকা চাই। আর এই মৌলিকত্ব কিংবা নিজস্বতার জন্য প্রয়োজন সুরের ব্যাকরণ এবং গিটারে কিছু প্রযুক্তিক ব্যবহার।

গিটারের প্রসঙ্গে আসা যাক। অতীতে ধারণা ছিল গিটার শেখার ক্ষেত্রে শিক্ষক কিংবা ওস্তাদের প্রয়োজন অত্যন্ত জরুরী। কিন্তু ইউটিউবে গিটার টিউটোরিয়াল অতীতের ধারণাকে অনেকটা ভুল প্রমাণ করেছে। এখন অনেকেই নিজে নিজে গিটার শিখছে। তবে এ ক্ষেত্রে কিছুটা বিড়ম্বনা পোহাতে হয়। গিটারের প্রথম হাতেখড়ি নেয়ার সময় এমন একজনের সান্নিধ্যে আসা উচিত যার গিটার সম্পর্কে ভাল ধারণা।

দু’ধরনের গিটারের কথা আমরা জানিÑ এ্যাকুইস্টিক গিটার ও ইলেকট্রিক গিটার। এ্যাকুইস্টিক গিটারের মধ্যে আবার নাইলন স্ট্রিং এবং স্টিল স্ট্রিং দু’ধরনের স্ট্রিং রয়েছে। নাইলন স্ট্রিং গিটারকে আবার ক্লাসিক্যাল গিটারও বলা হয়। আমাদের দেশে যেসব এ্যাকুইস্টিক গিটার পাওয়া যায় তা হলো :

গিভসন, গ্রেসন, সিগনেচার, হোবনার, ফ্লোডা, আনিপা, টিজিএম, এসএক্স, ফেন্ডার, আইবানেজ ও টেকামাইন। এ সব গিটার বাইরের রাষ্ট্র হতে আমদানি করা হয়। দেশী ব্রান্ডের কিছু গিটারও বাজারে পাওয়া যায়। গিটার কোন বিলাসিতার বিষয় নয়, কেবল কিনলেই গিটারিস্ট হওয়া সম্ভব না। নিয়মিত বাজনা ও অনুশীলনের মাধ্যমেই একজন ভাল গিটারিস্ট হওয়া সম্ভব।

প্রকাশিত : ৯ জুন ২০১৫

০৯/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: