আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রেকর্ড-চাপ নিতে নারাজ মুমিনুল

প্রকাশিত : ৯ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টেস্ট ক্রিকেটে একটি অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়ার সামনে দাঁড়িয়ে মুমিনুল হক সৌরভ। ভারতের বিরুদ্ধে একমাত্র টেস্টে আর একটি অর্ধশতক হাঁকাতে পারলেই গড়বেন বিশ্বরেকর্ড। তবে এককভাবে সেই রেকর্ডের মালিক হতে পারবেন না। টানা ১১ টেস্টে পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলেছেন মুমিনুল। ঠাঁই নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসের পাশে। সঙ্গে আছেন আরও দুই ভারতীয় ক্রিকেটার বীরেন্দর শেবাগ ও গৌতম গাম্ভীর। তবে টানা ১২ টেস্টে অর্ধশতকের বেশি রান করে সবার ওপরে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স। সোমবার ফতুল্লায় দলের সঙ্গে অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এ সময় কোন রেকর্ড নয় বরং নিজের সামর্থ্যটুকু উজাড় করে দিয়ে সেরা নৈপুণ্যটা দেখাতে চান মুমিনুল। কোনভাবেই রেকর্ড নিয়ে মাথা ঘামিয়ে নিজেকে বাড়তি চাপে রাখতে চাননা বলে দাবি করেছেন তিনি।

গত মাসের শুরুতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে একটি অর্ধশতক হাঁকিয়ে লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকরকে ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন। এবার স্যার ভিভ রিচার্ডসকে পেছনে ফেলে বিশ্বরেকর্ডের মালিক ভিলিয়ার্সের কৃতিত্বে ভাগ বসানোর সুযোগ। এ বিষয়ে মুমিনুল বলেন, ‘আমি তো উনার (ভিলিয়ার্স) আশপাশে নেই। আপনারাই জানেন উনি সব ফরমেটেরই রাজা। আমি মনে করি না যে আমি তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী।’ দুই ইনিংসের যে কোন একটিতে অর্ধশতক হাঁকাতে পারলেই বিশ্বরেকর্ডের যৌথ অংশীদার হয়ে যাবেন। এমন এক অর্জনের খুব কাছাকাছি দাঁড়িয়েও তা নিয়ে চিন্তা করছেন না মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘আসলে সেটা নিয়ে চিন্তা করছি না, কার পাশে বসব কি বসব না। আমি আগের ম্যাচগুলোতে যেভাবে খেলে আসছিলাম এখনও চিন্তা করব সেভাবে খেলার। যেভাবে প্রস্তুতি নিয়েছি এবং আপনারা যেমন প্রত্যাশা করেন, দেশের মানুষ যেভাবে প্রত্যাশা করে এবং আমার যেটা টার্গেট সেটা অর্জন করার চেষ্টা করব। কারও পাশে বসার জন্য নয়।’ রেকর্ডের বিষয়টি পুরোপুরিই মাথা থেকে সরিয়ে রেখেছেন মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘আপনারা যখন বলেন তখন একটু মনে পড়ে। এরপর আবার ভুলে যাই। কোন চাপ অনুভব হয় না। আপনারা চলে গেলে আর মনে থাকবে না। চেষ্টা করব পরবর্তীতে যেন মনে না থাকে।’

টেস্ট ক্রিকেটে দুর্দান্ত ফর্মে থাকার পরেও ওয়ানডে ক্রিকেটে কোনভাবেই নিয়মিত হতে পারছেন না মুমিনুল। হয়ে গেছেন টেস্ট স্পেশালিস্ট। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মেনে নেয়া বা না নেয়ার কিছু নেই। এখন টেস্টে ভাল করছি তাই অনেকে বলছে আমি টেস্ট খেলোয়াড় হয়ে গেছি। আবার হয়ত অন্য ফরমেটে ভাল করলে ওটাতেও ভাল বলবে। যেখানে আমার ঘাটতি আছে সেখানে যদি আমি ভাল পারফর্মেন্স করতে পারি সেক্ষেত্রে ওখানেই আমি ভাল সুযোগ পাব। এখন এটা নিয়ে যদি আমি বেশি চিন্তা করি তাহলে সবকিছুই হারাব।’ ভারতের বিরুদ্ধে প্রথমবার টেস্ট খেলতে নামবেন মুমিনুল। তবে সে জন্য বিশেষ কোন চিন্তা নেই। ভাল খেলাটাই মূল লক্ষ্য তাঁর। বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে হেরে বিদায় নেয় বাংলাদেশ।

সে ম্যাচের আম্পায়ারিং নিয়ে দারুণ বিতর্ক হয়েছে। তবে সেসব বাড়তি কোন প্রভাব ফেলবে না এ সিরিজে এমনটাই মনে করেন মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় না কোন প্রভাব ফেলবে। আমার মনে হয় ভারতের বোলিং লাইনআপ আগের যে কোন সময়ের চেয়ে অনেক ভাল। দু’জন স্পিনারই কোয়ালিটি স্পিনার। এত চিন্তা করছি না। ভয়ভীতি নিয়ে খেললে খেলাতে প্রভাব পড়তে পারে।’

ফতুল্লায়ও থাকছে ধীরগতির উইকেট। তবে সেটা নিয়ে না ভেবে উইকেটের আচরণ অনুসারেই ব্যাটিং করার ভাবনা মুমিনুলের। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দারুণ সিরিজ শেষ করার পর এখন দলের সবাই বেশ উজ্জীবিত অবস্থায় আছে বলে দাবি করলেন তিনি।

মুমিনুল বলেন, ‘শেষ সিরিজটা আমরা ভাল ক্রিকেট খেলেছি। হয় তো শেষ টেস্ট ম্যাচটা আমরা খারাপ খেলেছি। ওয়ানডে সিরিজে আমরা হোয়াইটওয়াশ করেছি। টি২০ জিতেছিলাম। একটা সিরিজ ভাল হলে সবার আত্মবিশ্বাস ভালই থাকে। আমরা এই আত্মবিশ্বাস নিয়েই আছি। সবাই চেষ্টা করছে যার যার জায়গায় উন্নতি করার।’

প্রকাশিত : ৯ জুন ২০১৫

০৯/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: