কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিক্ষায় মোট বাজেটের ১১.২ শতাংশ বরাদ্ধের দাবী

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫, ০৭:১৪ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শিক্ষা ক্ষেত্রে জাতীয় বাজেটে শতাংশিক হিসাবে বরাদ্ধ বৃদ্ধির দাবী তুলেছে জাতীয় শিক্ষক কর্মচারী ফ্রন্ট। এক মত বিনিময় সভায় বক্তরা এ দবী তুলে বলেন, গত বছর শিক্ষাক্ষেত্রে বরাদ্ধ ছিলো মোট বাজেটের ১১.২ শতাংশ। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে এ বরাদ্ধের পরিমণ কমিয়ে ধরা হয়েছে মাত্র ১০.৭ শতাংশ। শিক্ষা ক্ষেত্রে নূণ্যতম ১১.২ শতাংশ বরাদ্ধ চাই, কোনভাবেই গত বছরের কম নয়। পিএসসি পরীক্ষা বাচ্চাদের সর্বনাশ করছে উল্লেখ করে তা বন্ধের দাবীও জানিয়েছেন তারা।

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘২০১৫-১৬ বাজেটে শিক্ষা খতে বরাদ্ধ: প্রত্যাশা ও শিক্ষার কাক্সিক্ষত উন্নয়ন’ শীর্ষক মত বিনিময় সভায় বক্তারা এসব দাবী তুলেন। যৌথভবে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে ইনিশিয়েটিভ ফর হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট ও জাতীয় শিক্ষক কর্মচারী ফ্রন্ট।

প্রধান আলোচকের বক্তৃতায় অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জামান বলেন, সংসদে বাজেট পেশের পূর্বে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পয়:নিষ্কাষণ এ তিন খাতকে প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলে আসছিলেন অর্থমন্ত্রী। কিন্তু দেখা গেল এ তিন খাতেই বরাদ্ধ কম। শিক্ষায় মোট বাজেটের বড় একটি অংশ বরাদ্ধের কারণেই জাপানের উন্নয়ন সম্ভব হয়েছিল। দেশেও শিক্ষা ক্ষেত্রে বাজেট বরাদ্ধ বৃদ্ধি করতে হবে। বাজেট বরাদ্ধের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, গত বছর শিক্ষাক্ষেত্রে বরাদ্ধ ছিলো মোট বাজেটের ১১.২ শতাংশ। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে এ বরাদ্ধের পরিমণ কমিয়ে ধরা হয়েছে মাত্র ১০.৭ শতাংশ। শিক্ষা ক্ষেত্রে নূণ্যতম ১১.২ শতাংশ বরাদ্ধ চাই, কোনভাবেই গত বছরের কম নয়। পিএসসি পরীক্ষা বাচ্চাদের সর্বনাশ করছে উল্লেখ করে তিনি এ পরীক্ষা বন্ধের দাবীও জানান।

গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বহী পরিচালক রাশেদা কে. চৌধুরি বলেন, অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতা অত্যন্ত মুগ্ধ হয়ে শুনছিলাম। হিজড়া-দলিত সহ সমাজের প্রতিটি বৈষম্যের বিষয়ে তিনি কথা বলেছেন। শিক্ষার ক্ষেত্রেও সুন্দর দর্শন তুলে ধরলেন, কিন্তু সংসদে শিক্ষা ক্ষেত্রে বাজেট বরদ্ধ ঘোষণার পর হোচট খেলাম। পাই চার্টে দেখা গেল মাত্র ১০.৭ শতাংশ বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। কৃষি, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্ধ কমে গেল। এটা আমরা আশা করি নি। সামরিক খাতে বরাদ্ধ বাড়নো হচ্ছে অথচ শিক্ষায় তা নেমে এসেছে ১১ শতাংশের নিচে। পদ্মা সেতুতে মোট বাজেটের বড় একটি বরাদ্ধ দেওয়া হচ্ছে, যা আমরা চাই। আমাদের বহুল কঙ্খিত প্রত্যাশা পূরণের পথে। তবে মানব সেতু বিনির্মাণের যে সেতু শিক্ষা, তা যদি নড়বড়ে হয়ে যায় তা মানবক্ষমতা বৃদ্ধির অন্তরায় হয়ে দাড়াবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনা করেন জাতীয় শিক্ষক কর্মচারী ফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যক্ষ কাজী ফারুক আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইএইচডির সচিব অধ্যক্ষ আলী আকবর খান ডলার, আইএইডি কোষাধ্যক্ষ নূরুন নবী সিদ্দিকী, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আসাদুল হক, বাংলাদেশ কারিগরি কলেজ শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ এম এ সাত্তার ও একই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী চৌধুরি প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫, ০৭:১৪ পি. এম.

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: