মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক মুক্তি বাস্তবায়নের পথে

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫, ০২:০৬ পি. এম.

অনলাইন ডেস্ক ॥ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অর্থনৈতিক মুক্তির আন্দোলন তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাস্তবায়নের পথে রয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০১৮ সালের আগেই দেশের দারিদ্র সীমা শতকরা ১১ ভাগের নিচে নেমে আসবে এবং ২০২১ সালের আগেই দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে।

আমির হোসেন আমু আজ সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ ৩২ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে ঐতিহাসিক ছয়দফা দিবস উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে এ কথা বলেন।

আমির হোসেন আমু এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও বাংলাদেশ সফরকে আওয়ামী লীগ অত্যন্ত ইতিবাচক হিসেবে দেখছে। কেননা তার এ সফরের মধ্য দিয়ে ভারেতের সাথে বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের নানা সমস্যার সমাধান হচ্ছে।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদির সকল বক্তব্য দেশের জন্য ইতিবাচক। কারণ তিনি তিস্তা নদীর পানি সহ সকল সমস্যার সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেছেন।

ঐতিহাসিক ৬ দফা কর্মসূচী সম্পর্কে আমু বলেন, সে সময় বঙ্গবন্ধুর কোন শ্রমিক সংগঠন না থাকলেও সেদিন শ্রমিক সমাজ বঙ্গবন্ধু আহবানে রাজপথে নেমে এসেছিল।

তিনি বলেন, ১৯৬৬ সালের ৭ জুন ছয়দফা দাবী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে হরতাল আহবান করা হয়েছিল। হরতাল চলাকালে পুলিশ মিছিলে গুলি চালায়। পুলিশের গুলিতে সেদিন মনু মিয়াসহ ৬ জন শহীদ হয়েছিল।

আমু বলেন, এ আত্মদানের মধ্য দিয়ে ছয়দফা বাঙ্গালী জাতির মুক্তির সনদ হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল। কেননা এ আন্দোলনের পর বঙ্গবন্ধু আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামী করা হয় এবং ১৯৬৯ সালের গণঅভূত্থানের সৃষ্টি হয়। বঙ্গবন্ধু মুক্তিপান এবং ১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশভাবে জয়লাভ করে।

তিনি বলেন, ছয়দফা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বায়ত্তশাসনের পথ থেকে দেশকে স্বাধীনতার পথে এনেছিলেন। সূত্র- বাসস।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫, ০২:০৬ পি. এম.

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: