আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তিন প্রকল্প উদ্বোধন, চারটির ভিত্তি স্থাপন করলেন মোদি, হাসিনা

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে তিন প্রকল্প উদ্বোধন এবং আরও চার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন। দুই প্রধানমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শেষে শনিবার বিকেলে যৌথ বিবৃতি দেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ সাত প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

যৌথভাবে উদ্বোধন করা তিনটি প্রকল্প হচ্ছে- শিলাইদহ রবীন্দ্র কুঠিবাড়ি সম্প্রসারণ উন্নয়ন কর্মসূচী, বিএসটিআই গবেষণাগার উন্নতকরণ এবং তারাপুর-কমলাসাগর সীমান্ত হাট। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা প্রকল্পগুলো হচ্ছে- খুলনা-মংলা রেললাইন, ফেনী নদীর ওপর বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু-১ নির্মাণ, কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলওয়ে সেকশনের পুনর্বাসন এবং বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবন নির্মাণ। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাঁচটি স্মারক বিনিময় করেন।

শনিবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সাত প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন শেষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের মধ্যে রেল যোগাযোগ আরও বৃদ্ধি করা হবে বলে ঘোষণা দেন। রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক জানান, ভারত ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে এ লাইন দুটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে খুলনা থেকে মংলা পোর্ট পর্যন্ত রেললাইনটি নতুন করে নির্মাণ করা হবে। লাইনটি নির্মাণ করা গেলে মংলা স্থলবন্দর থেকে রেলপথে কন্টেনার পরিবহন সহজ হবে। এতে রেলের আয় বাড়বে। অপরদিকে ভারতের অর্থায়নে কুলাউড়া শাহবাজপুর পর্যন্ত লাইনটি নির্মাণ করা হবে। এ লাইনটি নির্মাণের পর ভারতের সঙ্গে ট্রেন যোগাযোগ বৃদ্ধি পাবে। এর মধ্যে কুলাউড়া থেকে শাহবাজপুর পর্যন্ত রেললাইনটি নির্মাণ করবে বাংলাদেশ। পরবর্তী স্টেশন ভারতের মহিশাসন পর্যন্ত লাইন নির্মাণ করবে ভারত। এর মাধ্যমে দুই দেশের রেল যোগাযোগ চালু করা হবে। ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ সম্পর্ক বৃদ্ধিতে খুলনা থেকে বেনাপোল হয়ে কলকাতা পর্যন্ত নতুন একটি মৈত্রী ট্রেন চালু করার বিষয়ে আলোচনা চলছে।

রেল সূত্র জানায়, ভারতীয় ঋণের টাকায় খুলনা-মংলা পোর্ট পর্যন্ত প্রায় ৬৯ কিলোমিটার নতুন রেলপথ নির্মাণ করা হবে। তিন হাজার ৮০১ কোটি ৬১ লাখ টাকা ব্যয়ে নতুন এ রেললাইন স্থাপনের মধ্য দিয়ে এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হবে। অপরদিকে কুলাউড়া-শাহবাজপুর ব্রডগেজ লাইন শাহবাজপুর সীমান্ত জিরো পয়েন্ট হয়ে ভারতের মহিশাসন রেললাইনে সংযোগ হবে। ৫১ দশমিক ৫৩ কিলোমিটার ব্রডগেজ এ লাইনটি স্থাপনে ব্যয় হবে ৬৭৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এছাড়া দুই দেশের মধ্যে রেললাইন স্থাপনে ভারত সরকার আরও অর্থঋণ দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে, যা পরে দুই দেশ বিস্তারিত আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারণ করবে।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: