কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা ও ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি বাস সার্ভিস উদ্বোধন

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা ও ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি বাস সার্ভিস উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার নরেন্দ্র মোদি ঢাকায় আসার পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে দুদেশের মধ্যে দুটি রুটে এই বাস সেবার উদ্বোধন হয়। এ সময় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বাসে উঠেন। পরে বাস থেকে নেমে মঞ্চে দাঁড়িয়ে মমতা ব্যানার্জী ও শেখ হাসিনা পতাকা নেড়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় পশ্চিমবঙ্গ ভূতল পরিবহন নিগম, ত্রিপুরা সড়ক পরিবহন নিগম ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআরটিসি) নাম প্রদর্শনী করা হয়। উদ্বোধনের পর তিনটি বাসের একটি শিলং, একটি কলকাতা ও একটি আগরতলার পথে ছেড়ে যায়। ১ জুন পরীক্ষামূলক সেবার আওতায় কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা রুটের প্রথম যাত্রীবাহী বাস বাংলাদেশ হয়ে আগরতলা যায়। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পরিবহন দফতরের প্রধান সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল ওই বাসে আসেন।

আর ২২ মে ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি রুটে পরীক্ষামূলক বাস চলাচল উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের একটি ২৬ আসনের বাসে ২২ সরকারী কর্মকর্তা গুয়াহাটির পথে রওনা দেন।

সূত্র জানায়, ঢাকা থেকে কলকাতা রুটে ইতোমধ্যেই বাস সেবা চালু রয়েছে। আর এদিকে ঢাকা থেকে আগরতলাও বাস চলাচল করে থাকে। তবে কলকাতা থেকে আগরতলায় সরাসরি কোন বাস সেবা নেই। কলকাতা থেকে আগরতলায় যেতে হলে মাঝখানে ঢাকায় এসে বাস পরিবর্তন করতে হয়। তবে এবার প্রথমবারের মতো কলকাতা-আগরতলা রুটে সরাসরি বাস সেবা চালু হলো।

ভারতের মধ্যে থেকে কলকাতা-আগরতলা রুটে বিমান ও রেলপথ চালু রয়েছে। বিমান পথ বাদ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ থেকে ত্রিপুরায় যাতায়াত করতে সময় লাগে প্রায় দুই দিন। কলকাতা থেকে গুয়াহাটি হয়ে ত্রিপুরার সড়ক পথের দৈর্ঘ্য এক হাজার ৬৮০ কিলোমিটার। আর ত্রিপুরা থেকে ঢাকা হয়ে কোলকাতার দূরত্ব ৪৭০ কিলোমিটার। সে কারণে ত্রিপুরাবাসী অনেকদিন থেকেই বাংলাদেশের মধ্যে দিয়ে সরাসরি আগরতলা-কলকাতা রুটে বাস সেবা চালুর জন্য অনুরোধ জানিয়ে আসছে। কলকাতা থেকে আগরতলায় সরাসরি যেতে ১৪ থেকে ১৫ ঘণ্টা সময় লাগবে। কলকাতার সল্টলেক বাসস্ট্যান্ড থেকে আগরতলার উদ্দেশে এই বাস ছাড়বে। সপ্তাহে তিনদিন এই বাস চলাচল করবে। প্রাথমিকভাবে এই বাসের ভাড়া হবে প্রায় দুই হাজার টাকা। এই বাস সেবার মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ ও ত্রিপুরার জনগণ বেশি লাভবান হবে।

এদিকে ২০০২ সালে ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি বাস সেবা চালু করার প্রস্তাব থাকলেও বারো বছর ধরে এর বাস্তবায়ন হয়নি। তবে এখন থেকে ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি পর্যন্ত সরাসরি বাস চলবে। এর ফলে দুই দেশের মধ্যে পর্যটন ব্যাপক বৃদ্ধি পাবে। এর আগে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ গত বছর ২৫-২৭ জুন তিন দিনের ঢাকা সফর চলাকালে এই বাস সেবা শুরু করার প্রস্তাব দেন। ওই সময় দু’পক্ষই এ সেবা চালুর ব্যাপারে ঐকমত্যে পৌঁছায়। ঢাকা থেকে গুয়াহাটির দূরত্ব ৩০৯ কিলোমিটার। বাসের গতি ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার হলেও ঢাকা থেকে গুয়াহাটি পৌঁছাতে সময় লাগবে ৬ ঘণ্টা ১৮ মিনিট। ঢাকা থেকে যাত্রা শুরু করে সিলেট হয়ে শিলং-গুয়াহাটি যাবে বাসটি।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: