আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সমালোচনায় জেরবার সেপ ব্লাটার

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার পঞ্চম সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার আগে থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন সেপ ব্লাটার। নির্বাচনের দুইদিন পরই পদত্যাগ করে চমকে দেন ফুটবল বিশ্বকে। কিন্তু তারপরও থামছে না ব্লাটারের সমালোচনা। একের পর এক কৃতকর্মের জন্য আলোচনার তুঙ্গে ফুটবলের তুখোর সংগঠক সেপ ব্লাটার। এই সপ্তাহেই লুসানে অনুষ্ঠিত হবে ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) সভা। কিন্তু এই সভায় যোগ দিচ্ছেন না তিনি। ফুটবলের বিশ্ব নির্বাহী সংস্থার (ফিফা) পক্ষ থেকে শুক্রবার এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে। ফিফার এক মুখপাত্র জানান, ‘লুসানে অনুষ্ঠিতব্য সভায় যোগ দেবেন না বলে আইওসিকে জানিয়ে দিয়েছেন ফিফা সভাপতি। তার পরিকল্পনার পরিবর্তন হয়নি।’

পঞ্চমবারের মত সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার দুইদিন পরই সভাপতি পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। নির্বাচনের আগেই সুইজারল্যান্ডে দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার সাত কর্মকর্তা গ্রেফতার হয়। ২০১৮ এবং ২০২২ বিশ্বকাপ আয়োজক হিসেবে রাশিয়া ও কাতারকে আয়োজক করার বিষয়েও দুর্নীতি করা হয়েছিল কি না সে বিষয়েও তদন্ত শুরু হয়ে গেছে। এরপরই বিশ্বব্যাপী হৈচৈ শুরু হয়। ঘুষ কেলেঙ্কারিতে ফুটবল বিশ্বে সেপ ব্লাটার যখন আলোচনার তুঙ্গে। এরই মধ্যে নতুন করে শিরোনামে এলেন তিনি। তার সঙ্গে এবার জড়িয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সাবেক বান্ধবী ইরিনা শায়েকের নাম। স্পেনের বহুল প্রচারিত সংবাদপত্র ‘এল মুন্ডো’ দাবি করেছে, সেপ ব্লাটারের সঙ্গে শায়েকের সম্পর্ক ছিল। ‘অল দ্য উইমেন ইন ব্লাটার’স লাইফ’ শিরোনামে তারা একটি চাঞ্চল্যকর প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে তারা দাবি করেছে, ’৭৯ বছর বয়সী ব্লাটারের সঙ্গে শায়েকের সম্পর্ক ছিল। প্রতিবেদনে আরও লেখা হয়েছে, সম্প্রতি প্রিন্স চার্লস বাকিংহাম প্যালেসে একটি পার্টি দিয়েছিলেন। সেই পার্টিতে ব্লাটার ও শায়েককে এক সঙ্গে দেখা গেছে। এরপর থেকেই তাদের সম্পর্কের বিষয়টি আরও বেশি করে প্রকাশিত হতে থাকে। তবে এসব দাবিকে অস্বীকার করেছে রাশিয়ান সুপার মডেল ইরিনা শায়েক।

এদিকে ঘুষ কেলেঙ্কারিতে এবার উঠে এলো ইংলিশ ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি ডেভিড বেকহ্যামের নাম। আরও অনেক কিছু ফাঁস করার ঘোষণাটা আগেই দিয়েছিলেন জ্যাক ওয়ার্নার। ফিফার সাবেক এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কোটি কোটি টাকা ঘুষ নেয়ার অভিযোগ। প্যাঁচে পড়ে বলেছিলেন, কাউকেই ছাড়বেন না তিনি। যা জানেন, সব বলবেন। এবার একেবারে ডেভিড বেকহ্যামকে টেনে আনলেন ওয়ার্নার। জানালেন, বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পাওয়ার জন্য ইংল্যান্ডের ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন বেকহ্যামকেই ঘুষ হিসেবে ব্যবহার করেছিল। ২০১০ সালে ত্রিনিদাদে বেকহ্যাম কোচিং ক্লিনিক করিয়েছিলেন। সেটাই ছিল ঘুষ। শুধু তাই নয়, ইংল্যান্ডের বিড কমিটির একটি দল তাঁকে ঘুষ দিতে চেয়েছিল বলে জানিয়েছেন ওয়ার্নার। সেই দলে নাকি বেকহ্যামও ছিলেন।

শুধু বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়েই নয়, টাকার অবৈধ লেনদেন হয়েছিল বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করা নিয়েও। এক্ষেত্রে সরাসরি জড়িয়েছে সদ্যই পদত্যাগ করা ফিফা সভাপতি সেপ ব্লাটারের নাম। ২০০৯ সালে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে প্লে-অফ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ফ্রান্স ও আয়ারল্যান্ড। ওই ম্যাচে ইচ্ছে করে হাতে বল লাগান ফ্রান্সের থিয়েরি অঁরি। সেখান থেকে গোলও হয়। ফ্রান্স সেই গোলে জিতে বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলারও যোগ্যতা অর্জন করে। যে কারণে স্বাভাবিক ভাবেই প্রচ- ক্ষিপ্ত আয়ারল্যান্ড আইনি পদক্ষেপ করার কথা ভাবে। আর এটাই যাতে না হয়, তার জন্য ফিফা ৫০ লাখ ডলার ঘুষ দিয়েছিল আয়ারল্যান্ডের ফুটবল ফেডারেশনকে। সংস্থার প্রধান নির্বাহী জন ডেলানে এই অভিযোগ করে বলেন, এই টাকা আয়ারল্যান্ড পুরোটাই ফুটবলের উন্নতিতে ব্যবহার করেছে। এর সিংহভাগ খরচ হয়েছে এ্যাভাইভা স্টেডিয়াম তৈরি করতে। এদিকে, ২০১০ সালের বিশ্বকাপ আয়োজনের দৌড়ে ছিল মিশরও। তারা দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে যায়। এবার ঘুষের অভিযোগ তুলেছে মিশর। তাদেরও অভিযোগের তীর জ্যাক ওয়ার্নারের দিকে। ফিফার আর এক কর্তা চাক ব্লেজারের ঘুষ খাওয়ার আরও তথ্য হাতে এসেছে সংবাদমাধ্যমের কাছে। যে আড়াই লাখ টাকার চেক ব্লেজার পকেটে পুরেছিলেন, তার প্রতিলিপি ফাঁস হয়ে গেছে। এই টাকা তিনি নিয়েছিলেন ২০১০ সালের বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব দক্ষিণ আফ্রিকাকে পাইয়ে দিতে।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: