মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ছেলের হাতে বাবা, চাচার হাতে ভাতিজা খুন ॥ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নীলফামারীতে ছেলের হাতে বাবা ও গাজীপুরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন হয়েছে। এছাড়া রাজবাড়ীতে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

নীলফামারী ॥ কিশোরীগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়নের উত্তর দুরাকুটি জয়নুন কোটপাড়া গ্রামে তৌহদ্দি মিয়া (৬৫) নামের এক কৃষককে তার একমাত্র ছেলে আমিনুল ইসলাম (৩০) শ্বাসরোধে হত্যা করেছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে সে তার পিতাকে হত্যার পর ঘরের ভেতর গর্ত করে পুঁতে রাখার চেষ্টা চালায়। শনিবার সকালে কিশোরীগঞ্জ থানা পুলিশ তৌহদ্দি মিয়ার লাশ উদ্ধার করে এবং ছেলে আমিনুলকে আটক করে।

বাহাগিলি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান দুলু জানান, হত্যার শিকার কৃষক তৌহদ্দি মিয়ার এক ছেলে চার মেয়ে। চার মেয়ের বিয়ে হয়েছে। স্ত্রী আমেনা বেগম দুই বছর আগে মারা গেছেন। বাবা তৌহদ্দি তার একমাত্র ছেলের সঙ্গেই থাকতেন। এলাকাবাসী জানায়, আমিনুলের স্ত্রী গোলাপী তার শ্বশুর তৌহদ্দিকে পৃথক করে দেয়ার জন্য স্বামীর প্রতি চাপ সৃষ্টি করে। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বচসার সৃষ্টি হলে দুইদিন আগে আমিনুলের স্ত্রী গোলাপী তার একমাত্র ছেলে গোলাপকে নিয়ে পিতার বাড়িতে চলে যায়। স্ত্রী চলে যাওয়ার পর বাবা-ছেলের মধ্যে বিবাদের সৃষ্টি হয়।

গাজীপুর ॥ কালীগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে শনিবার চাচার হাতে ভাতিজা খুন হয়েছে। এ সময় স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে নিহতের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। নিহতের নাম জিল্লুর রহমান (৩২)। সে কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের বেলুন গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে। ঘটনায় পুলিশ নিহতের চাচি সবিনা বেগমকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ জানায়, কালীগঞ্জ উপজেলার বেলুন গ্রামের বকুল মিয়ার সঙ্গে তার ভাই আনিসুর রহমান নাজুকের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। শনিবার সকালে জিল্লুর বাগানে বাঁশ কাটতে যায়। এ সময় তার চাচা আনিসুর রহমান নাজুক ও তার স্ত্রী সবিনা বেগম এবং ছেলে উজ্জলকে (২৮) সঙ্গে নিয়ে জিল্লুরকে বাধা দিলে তাদের মধ্যে বাকবিত-া হয়। একপর্যায়ে আনিসুর রহমান ও তার ছেলে উজ্জল লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে জিল্লুরকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। জিল্লুরের চিৎকারে স্বামীকে বাঁচাতে তার ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী মোর্শেদা ছুটে এলে তাকেও মারধর করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই জিল্লুর নিহত এবং তার স্ত্রী গুরুতর আহত হয়।

রাজবাড়ী ॥ সদর থানা পুলিশ রাতে রিজিয়া বেগম (১৮) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে। তার বাড়ি আলীপুর গ্রামে। তার স্বামীর নাম ফিরোজ শেখ। সে সৌদি প্রবাসী।

জানা গেছে, রাত ১টার দিকে পুলিশ একটি ধান ক্ষেত থেকে রিজিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: