রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বড় অভিযানের নির্দেশ

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

ভারত সরকার সে দেশের সেনাবাহিনীকে ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট কাউন্সিল অব নাগাল্যান্ডের (এনএসসিএন) খাপলাং এলাকা ও এর মিত্রদের বিরুদ্ধে ব্যাপক অভিযান চালানোর নির্দেশ দিয়েছে। বৃহস্পতিবার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় মনিপুর রাজ্যে সেনাবাহিনীর একটি গাড়িবহরে সশস্ত্র বিদ্রোহীদের হামলায় ২০ সেনা নিহতের ঘটনার পর এ নির্দেশ দেয়া হলো। খবর ওয়েবসাইটের।

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দভাল সেনাপ্রধান জেনারেল দালবীর সিংয়ের সঙ্গে বৃহস্পতিবার বিকেলেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এক বৈঠকে মিলিত হন। ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ পর্যায়ের এক কর্মকর্তা জানান, ‘আমরা নতুনভাবে গঠিত বিদ্রোহীদের জোট ইউএনএলএফডব্লিউএসইএকে দমনের জন্য সেনাবাহিনীকে বড় ধরনের অভিযান চালানোর নির্দেশ দিয়েছি। মিয়ানমারে তাদের মূল ঘাঁটি এবং সেখান থেকেই তারা তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে।তবে বড় ধরনের এ অভিযান সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, ত্রিপুরা ছাড়া ওই অঞ্চলের অন্য কোন রাজ্য থেকে সশস্ত্র বাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা আইন তুলে নেয়া হবে না। বাম-শাসিত ত্রিপুরা রাজ্যে বিদ্রোহী দলগুলোকে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার এ ব্যাপারে তাদের অনেক সাহায্য করেছে। এ কারণে ত্রিপুরা থেকে বিশেষ আইন তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। মিয়ানমার সীমান্তবর্তী মনিপুরের চান্দেল এলাকায় বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় বিদ্রোহীদের হামলায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ষষ্ঠ দুর্গা রেজিমেন্টের ওই সেনা সদস্যরা প্রাণ হারায়।

বাম ও তৃণমূল সরকারের তীব্র সমালোচনায় রাহুল

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারের এক বছর পূর্তিতে সরকারের ব্যর্থতার বিভিন্ন দিক সাধারণের সামনে তুলে ধরতে বিভিন্ন রাজ্যে সফর শুরু করেছেন কংগ্রেসের সহসভাপতি রাহুল গান্ধী। উত্তর প্রদেশ, কেরল, মধ্যপ্রদেশ সফরের পরে শনিবার তিনি পশ্চিমবঙ্গ যান। রাজ্যে পৌঁছেই তোপ দাগলেন রাজ্যের বর্তমান এবং সাবেক দুই শাসকের বিরুদ্ধেই। তিনি বলেন, কেবল কংগ্রেসই আবার রাজ্যকে উন্নয়নের পথে নিয়ে যেতে পারে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা ও এনডিটিভির।

সকালে রিষড়ার ওয়েলিংটন জুটমিলে চটকল শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন রাহুল। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বন্ধ এবং ধুঁকতে থাকা চটকলের বেশ কিছু শ্রমিক তাঁর সামনে তাঁদের অভাব-অভিযোগ তুলে ধরেন। রাজ্যে চটকল শিল্পের বেহাল পরিস্থিতির জন্য তৃণমূল এবং পূর্বতন বাম সরকারের নীতির সমালোচনা করেন তিনি। রাহুলের দাবি, ‘বামেরা রাজ্যে উন্নয়নের চাকা থামিয়ে দিয়েছিল। রাজ্যকে উন্নয়নের পথে ফেরাতে মানুষ তৃণমূলকে ভোট দিয়েছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার উন্নয়নে ব্রেক কষে দিয়েছে। প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।’ মোদি সরকারের বিরুদ্ধেও এদিন মুখ খোলেন রাহুল।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: