মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ওঁরাও নারীরা বেশি পরিশ্রমী

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় নানা প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও টিকে আছে আড়াইশ’ ওঁরাও পরিবার। এর মধ্যে সাদুল্যাপুর উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নে ৩০টি এবং গোবিন্দগঞ্জের কামদিয়া, রাজাহার, সাখাহার, সাপমারা, গুমানীগঞ্জ ইউনিয়নে দুই শ’ ২০টি পরিবার তাদের আদি সংস্কৃতি আঁকড়ে বসবাস করছে। সম্প্রদায়ের হতদরিদ্র পরিবারগুলোর দিনকাল এখন আর ভাল নেই। অশিক্ষা, কুসংস্কার, সীমাহীন দারিদ্র্য এবং কর্মসংস্থানের অভাবে ভূমিহীন আদিবাসীদের অস্তিত্ব বিলুপ্তির পথে।

ওঁরাও এই নামের আদিবাসীরা আদি-অস্ট্রেলীয় (প্রোটো-অস্ট্রেলীয়) জনগোষ্ঠীর উত্তর পুরুষ। এদের গায়ের রং কালো, নাক চ্যাপটা, চুল কালো ও কুঞ্চিত, উচ্চতা মাঝারি। ভাষার দিক থেকেও এরা সবাই একই অস্ট্রিক পরিবারের অন্তর্র্ভুক্ত। কারও কারও মতে কুরুথ ভাষার বিভাজিত একটি অংশের টোটেম রূপে ওঁরাও কথাটা এসেছে।

এ জেলার ওঁরাও পরিবারগুলো মূলত কৃষিজীবী। এরা অন্যের জমি বর্গা নিয়ে চাষাবাদ করে। এছাড়া কৃষি শ্রমিক এবং দিনমজুরি তাদের পেশা। পরিবারের নারী-পুরুষ উভয়ই কর্মঠ এবং উভয়েই শ্রমজীবী পেশাকে আঁকড়ে জীবনজীবিকা নির্বাহ করে থাকে। হিন্দু সম্প্রদায়ের মতো পূজা পার্বণে বিশ্বাসী হলেও এদের ধর্মীয় উৎসবগুলোতে ভিন্নতা রয়েছে। বৈশাখ মাসে এরা বসুন্ধরা ব্রত ও উৎসব, ভাদ্র মাসে ভাদু উৎসব, অঘ্রাণে সেঁজুতি, ফাল্গুনে ইতু এবং চৈত্র মাসে ওঁরাওরা বসন্ত উৎসব পালন করে থাকে। বর্ষাকালে কদম ফুল ফোটার মৌসুমে এরা কদম গাছ এবং পাতা, ডাল ও ফুল নিয়েও পূজা অর্চনা করে থাকে। এই পূজা পার্বণের মূল উদ্দেশ্য হলো জমি ও ফসলের উর্বরতা শক্তি ও উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা।

ওঁরাওদের সামাজিক জীবন ও ধর্মচর্চায় উজ্জ্বল রঙিন ফুলের কদর অনেক বেশি। পূজা পার্বন এবং উৎসব পর্বে ওঁরাও মেয়েরা রঙিন শাড়ি পরে চুলে রঙিন ফুল গুঁজে নাচে-গানে উৎসব পালন করে থাকে। স্ত্রী-পুরুষ উভয়েই সামাজিক রীতি হিসেবে শরীরে উল্কি আঁকে। ওঁরাও স্ত্রী-পুরুষের এক সঙ্গে দুই স্ত্রী বা স্বামী রাখার বিধান নেই।

পুরুষ ওঁরাওদের চেয়ে মেয়েরা বেশি পরিশ্রম করে এবং কৃষিকাজেও তারা অত্যন্ত দক্ষ। ওঁরাও জনগোষ্ঠী স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও সরকারী ত্রাণ সহায়তা থেকে প্রতিনিয়তই বঞ্চিত। অথচ দেখার কেউ নেই। নানা প্রতিকূলতা দারিদ্র্য এবং বঞ্চনার শিকার হয়েও আদিবাসী ওঁরাওরা। এখনও যে এ জেলায় ওঁরাওরা আদি সংস্কৃতি এবং একান্ত নিজস্ব জীবনযাপন পদ্ধতিকে উপজীব্য করে স্বকীয় বৈশিষ্ট্যে অস্তিত্বকে ধারন করে রেখেছে এটা কম কথা নয়।

Ñআবু জাফর সাবু, গাইবান্ধা থেকে

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

০৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: