রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আন্দোলন ও নির্বাচন থেকে পালানোর অভ্যাস ত্যাগ করুন ॥ খালেদা জিয়াকে নাসিম

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ ॥ বিএনপি-জামায়াত জোটের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন এবং সিটি নির্বাচনে অংশ নিয়েও সরে দাঁড়ানোর কঠোর সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি। তিনি আন্দোলন ও নির্বাচন থেকে পালানোর অভ্যাস ত্যাগ করে ২০১৯ সালের নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জঙ্গী দমন ও উন্নয়নে প্রতিহিংসার বশবতী হয়ে খালেদা জিয়া দীর্ঘ ৯২ দিন জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে শূন্য হাতে ঘরে ফিরেছেন। এটি তার আন্দোলনের চরম পরাজয়, জনগণের কাছে আত্মসমর্পণ ছাড়া আর কিছুই নয়।

শুক্রবার দুপুরে কাজীপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি উপজেলা পরিষদ চত্বরে কমিউনিটি ক্লিনিকে এসে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে জনগণকে উদ্ধুদ্ধ করার লক্ষ্যে জনসচেতনতামূলক প্রচারে রাজশাহী বিভাগের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। পরে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা ও উন্নয়ন কর্মকা-ের পর্যালোচনা সভায় অংশ নিয়ে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন। সন্ধ্যায় তিনি চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নের রশীদপুরে পল্লীবিদ্যুত সমিতির আওতায় ২২৫ পরিবারের মধ্যে বিদ্যুত সংযোগের উদ্বোধন করেন।

দলের বিশেষ বর্ধিত সভার উদ্বোধনী বক্তব্যে ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বর্তমান সরকার বিনাযুদ্ধে সমুদ্র বিজয় ও স্থলসীমান্ত বিজয় করেছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে কয়েক হাজার একর ভূমি বাংলাদেশের মানচিত্রের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির মাধ্যমে ভারত ও বাংলাদেশের সীমানা নির্ধারণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সেটি বাংলাদেশের সংসদে পাস হলেও ভারতের সংসদে পাস না হওয়ায় ঝুলে ছিল। শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে এটা সম্ভব হয়েছে। অথচ বেগম জিয়া এই বিশাল অর্জনের জন্য শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ না দিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ দিয়েছেন। অথচ এরাই (বিএনপি) দীর্ঘ ৩৪ বছর ইন্দিরা-মুজিব চুক্তিকে গোলামি চুক্তি হিসেবে প্রচার চালিয়েছে, যা আজ মিথ্যাচার হিসেবে প্রমাণিত। এ সকল মিথ্যাচারের জবাব দেয়ার জন্য তিনি দলের নেতাকর্মীদের প্রতি নির্দেশ দেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আরও এগিয়ে যাবে। গ্রাম-গঞ্জের মানুষ এখন আর না খেয়ে থাকে না, শিশুমৃত্যু, মাতৃমৃত্যুর হার কমেছে। বিশ্ববাসীর কাছে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব প্রশংসিত হয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের পর বিভিন্ন উন্নয়ন চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

কাজীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত হোসেনের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, কাজীপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বকুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, জিএম তালুকদার মধু, রেফাজ উদ্দিন মাস্টার, অধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান তালুকদার, সাইফুল ইসলাম বেলাল, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান দুদু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাকিরুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফর রহমান মুকুল, ছাত্রলীগের আল-আমিন ও আসলামসহ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চার ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম কমিউনিটি ক্লিনিকে এসে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে জনসচেতনতামূলক প্রচারের রাজশাহী বিভাগের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এ সময় সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ শামসুদ্দিনসহ স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সন্ধ্যায় রশীদপুরে ২২৫ পরিবারের মধ্যে বিদ্যুত সংযোগ উদ্বোধন করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, গ্রামে-গঞ্জে শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। কোথাও আর অন্ধকার থাকবে না। এ সময় সিরাজগঞ্জ পল্লীবিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী তুষার কান্তি দেবনাথ এবং ডিজিএম সুলতান নাসিমুল হকসহ পল্লীবিদ্যুতের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

০৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: