কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সন্ত্রাস দমনে ঢাকা কঠোর অবস্থানে থাকায় দিল্লীর সঙ্গে সুসম্পর্ক ॥ এম জে আকবর

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতীয় জনতা পার্টি- বিজেপির মুখপাত্র এম জে আকবর বলেছেন, সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশ কঠোর অবস্থানে থাকার কারণেই বাংলাদেশ-ভারতের সুসম্পর্ক বিরাজ করছে। বাংলাদেশ শক্ত হাতে সন্ত্রাস দমন করতে পারে। এই কারণেই বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের ভাল সম্পর্ক। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সফর ও বাংলাদেশের প্রত্যাশা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এম জে আকবর বলেন, সবাই বলে পাকিস্তানের সঙ্গে আমাদের মেলে না কেন? কেউ কেউ বলেন, পাকিস্তান মুসলিম দেশ বলে মেলে না। আসলে বিষয়টা তা নয়। পাকিস্তান মুসলিম দেশ, অন্যদিকে বাংলাদেশ মেজরিটি মুসলিম দেশ। কিন্তু পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদকে আশ্রয় দেয়। সন্ত্রাস কঠোর হাতে দমন করে না। কিন্তু বাংলাদেশ কঠোরহস্তে দমন করে। তাই বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের মেলে।

স্থল সীমান্ত চুক্তির দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, এ জন্য আমরা ৪০ বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করেছি। সবাই এটাকে ঐতিহাসিক বলে। কিন্তু আমি ঐতিহাসিক বলব না। এটি প্রথম ’৭০-৭১ সালে হয়েছিল।

অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, স্থল সীমান্ত চুক্তির ফলে ৯ হাজার ৭শ’ ৪৩ একর জমি বাড়তি পেয়েছে বাংলাদেশ। এই জমি যদি ভারত পেত, তাহলে অনেকেই বলত, আমরা দেশ বিক্রি করে দিয়েছি। তিনি বলেন, আমাদের অর্থনীতির আকার ছোট হতে পারে কিন্তু অনেক বিষয়ে আমরা ভারতের চেয়ে এগিয়ে আছি। তিনি জা, ভারতে ভিসা প্রসেসিং সহজকরণসহ সাড়ে পাঁচ বিলিয়ন ডলার ব্যবসা ঘাটতি দূর করতে হবে। সেটা কোন চুক্তির মধ্যে সীমাবদ্ধ হবে না।

তিনি বলেন, ভারতে যেমন গণতন্ত্র চর্চা হয়, সেই দিক লক্ষ্য রেখে আমাদের ভারতের কাছ থেকে শিক্ষা নিতে হবে। ভারতের সঙ্গে আমদানি-রফতানি চুক্তি হলে আমাদের আরও এগিয়ে যাওয়া সম্ভব বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

আলোচনা সভায় ভারতের নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী বলেন, যে দেশের সঙ্গে ৪ হাজার কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে, সে দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখা আবশ্যক।

ভোরের কাগজ ও ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। গোলটেবিলে প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ইনাম আহমেদ চৌধুরী, সাবেক রাষ্ট্রদূত মোফাজ্জল করিম, সাবেক রাষ্ট্রদূত রাশেদ আহমেদ চৌধুরী, সাবেক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জমির, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রহমান প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৬ জুন ২০১৫

০৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: