রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আইরিনের পথচলা

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

র‌্যাম্প ও মডেলিংয়ের মাধ্যমে আইরিনের মিডিয়ায় যাত্রা শুরু হয়েছিল প্রায় অর্ধযুগ আগে। র‌্যাম্পের পর অন্য অনেকের মতো চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন তিনি। ঢালিউডের তীব্র নায়িকা সঙ্কটে কিছুটা আশার আলো দেখিয়েছেন তিনি। আলোচিত ও সম্ভাবনাময় এই রুপালি জগতের তারকার আদ্যোপান্ত নিয়ে লিখেছেন -পান্থ আফজাল

শুরুটা হয়েছিল ২০০৮ সালে ‘প্যান্টিন ইউ গট দ্য লুক’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। সুন্দর হাসির জন্য পেয়েছিলেন ‘বেস্ট স্মাইল’ খেতাব। নেহাতই শখের বশে ছবি পাঠিয়েছিলেন ‘ইউ গট দ্য লুক’ প্রতিযোগিতায়। ডাক পাবেন এরকম বিশ্বাস থাকলেও ইভেন্টের ‘বেস্ট স্মাইল খেতাব’ জিতে যাবেন তা ছিল তার ধারণার বাইরে!

আইরিনের বাবা মতিয়ার রহমান একজন ব্যবসায়ী এবং মা শামসুন্নাহার গৃহিণী। পরিবারে দুই ভাইবোনের মধ্যে আইরিন সবার ছোট। কন্যা রাশির এই জাতিকা র‌্যাম্প ও অভিনয়কে অনেক ভালবাসেন। আইরিনের জন্মস্থান যশোরের নওয়াপাড়া। সেখানেই তার শৈশব কেটেছে। এইচএসসি পর্যন্ত নওয়াপাড়ায় ছিলেন। ২০০৬ সালে ঢাকায় স্থায়ী হন। ২০১৩ সালে দেবাশিষ বিশ্বাস পরিচালিত প্রথম অভিনীত ছবি ‘ভালবাসা জিন্দাবাদ’-এর ব্যাপক সাফল্যের মাধ্যমে চলচ্চিত্রের রুপালি জগতে পদার্পণ। আইরিন এই ফিল্মের মাধ্যমে চলচ্চিত্রাঙ্গনে স্বল্প সময়ে জনপ্রিয় মুখে পরিণত হন এবং অশ্লীলধারার ছবির জগতকে সুস্থধারায় ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হন। সেই বছরেই আইরিন এই ফিল্মের জন্য শ্রেষ্ঠ আলোচিত নায়িকা হিসেবে অর্জন করেন বিনোদন ধারা পারফর্মেন্স এ্যাওয়ার্ড। এছাড়াও নবাগত শ্রেষ্ঠ নায়িকা হিসেবে পান বায়স্কোপ বর্ষসেরা পুরস্কার। সম্প্রতিক সময়ে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে প্রায় ৮০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে জনপ্রিয় মডেল-চিত্রনায়িকা আইরিন অভিনীত ও আলভী আহমেদ পরিচালিত ‘ইউটার্ন’ ছবিটি। এর আগে গত ১৪ মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে ছবিটি। এ্যাকশন-রোমান্টিক ঘরানার এই ছবিটি আইরিন অভিনীত দ্বিতীয় মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি। বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে উপস্থিত থাকার পাশাপাশি এই তারকা ‘ইউটার্ন’ নিয়ে কথা বলছেন বিভিন্ন স্যাটেলাইট চ্যানেল ও পত্রিকায়। ছবি সম্পর্কে আইরিন বলেন, ‘ছবিতে আমার চরিত্রের নাম আনুশকা। চরিত্রের মধ্যে একটা ‘টুইস্ট’ আছে। প্রথম দিকে দর্শকরা চরিত্রটিকে বুঝতে পারবেন না। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই ‘আনুশকা’র মধ্যে দর্শক মজা খুঁজে পাবেন।’ আলোচিত এই হার্টথ্রব নায়িকার অজস্র চলচ্চিত্রের মধ্যে মুক্তির অপেক্ষায় আছে সাইফ চন্দনের দুটি ছবি ‘ছেলেটি আবোল তাবোল মেয়েটি পাগল পাগল’ ও ‘টার্গেট’, গাজীউর রহমানের ‘এই তুমি সেই তুমি’। এছাড়া এসএ হক অলিকের ‘এক পৃথিবী প্রেম’ সোহানুর রাহমান সোহানের পরিচালিত ‘লাভার বয়’ ও সুস্ময় সুমনের ‘তোকে হেব্বি লাগছে’ ছবির কাজ প্রায় শেষের পথে। দেশে ও দেশের বাইরে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি। এর মধ্যে ‘রবি’র ‘তোমাকে দিয়ে কিছু হবে না’, ‘প্রাণ ডাল’, ‘জেনোসিস রিয়েল এস্টেট’, ‘আখতার ফার্নিচার’ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। এরপর বিভিন্ন টিভি নাটকে ভাল কিছু চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসা পেয়েছেন তিনি। আশুতোষ সুজনের ‘ম্যানপাওয়ার’-এর মাধ্যমে নাটকের খাতায় নাম লেখান তিনি। আফসানা মিমির ধারাবাহিক নাটক ‘পৌষ ফাগুনের পালা’তে স্বর্ণলতা চরিত্রে অভিনয় করে একজন ভাল অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেন। সময় ও সুযোগ হলে পছন্দের রাস্তা ধরে রিক্সায় চড়তে পছন্দ করেন আইরিন। রঙিন জগতের বাসিন্দা আইরিনের শাড়ি পরতে ভাল লাগে, কিন্তু সবসময়ই পড়া হয়ে ওঠে না। যে কোন বাঙালী খাবার খেতে পছন্দ এই তারকার। যতদিন সিঙ্গেল থাকা যায় ততদিন সিঙ্গেল থাকতে চান এই চিত্রনায়িকা। অবসর সময়ে প্রচুর সিনেমা দেখা তার নেশা ও বিনোদনের অন্যতম খোরাক। শূটিং বা অন্য যে কোন জায়গায় নিজেকে একজন সাধারণ মানুষ মনে করেই সবার সঙ্গে মিশে থাকেন বন্ধুসুলভ আইরিন। মজার ব্যাপার হলো, আইরিনের ফেসবুক ম্যানিয়া এমন প্রবল যে, প্রতিদিন অন্তত একবার হলেও সেখানে একটু ঢুঁ মেরে আসা চাই। সর্বদা কাছে থাকে সবসময়ের জন্য প্রয়োজনীয় গ্যাজেট সেলফোন। ব্যস্ত জীবনে কাজের ফাঁকে বা শূটিংয়ের সুযোগে প্রিয় ভ্রমণ স্থান যদি হয় সমুদ্রসৈকত কক্সবাজার, তাহলে তো কথাই নেই! চিত্রজগতে পছন্দের অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন হলেও নায়ক রাজ রাজ্জাক, কবরী, ববিতা, শাবানা, আলমগীর, সালমান শাহ, শাবনুর, মৌসুমিকে প্রিয় অভিনেতা ও অভিনেত্রীর তালিকায় রেখেছেন এই রুপালি জগতের চিত্রনায়িকা।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: