কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফোরকান মল্লিকের পক্ষে যুক্তিতর্ক শুরু

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫
  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত পটুয়াখালীর রাজাকার কমান্ডার ফোরকান মল্লিকের পক্ষে যুক্তিতর্ক শুরু হয়েছে। এর আগে প্রসিকিউশনপক্ষ তাদের যুক্তিতর্ক শেষ করেছে। আসামিপক্ষ যুক্তিতর্ক শুরু করে সময়ের জন্য আবেদন করে। আবেদনের কারণে ট্রাইব্যুনাল আসামিপক্ষের যুক্তিতর্কের জন্য ৮ জুন দিন নির্ধারণ করেছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ মঙ্গলবার এ আদেশ প্রদান করেছে। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম। ফোরকান মল্লিকের পক্ষের আইনজীবী আব্দুস সালাম মঙ্গলবার যুক্তিতর্ক শুরু করে সময় চান। আদালত ৭ জুন দেয়ার কথা বললে তিনি জানান, ঐ দিন তার কাজ রয়েছে। তখন আদালত ৮ জুন যুক্তিতর্কের জন্য দিন নির্ধারণ করে। এ সময় প্রসিকিউশনপক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল ও প্রসিকিউটর সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি।

এদিকে প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল জনকণ্ঠকে বলেছেন, আমরা ট্রাইব্যুনালে রাজাকার ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে পাঁচটি অভিযোগ প্রমাণ করতে পেরেছি। আমরা আসামি ফোরকান মল্লিকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- কামনা করেছি। এদিকে রাজাকার ফোরকান মল্লিকের মামলাটি প্রায় শেষের দিকে। প্রসিকিউশনপক্ষ তার বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক শেষ করেছে। আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হলেই নিয়ম অনুসারে রায় ঘোষণার জন্য ট্রাইব্যুনাল সিএভি রাখবে। ২৮ মে শুরু করে ফোরকানের বিরুদ্ধে আনা পাঁচটি অভিযোগের সবগুলোর বিষয়ে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল। ১৯ জানুয়ারি থেকে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা সত্যরঞ্জন রায়সহ প্রসিকিউশনপক্ষের ১৪ জন সাক্ষী। অন্যরা হলেনÑ মোঃ হাবিবুর রহমান বাদশা, মোঃ চাঁন মিয়া, কবিরাজ শান্তিরঞ্জন দে, নির্যাতনের শিকার একজন নারী সাক্ষী (ক্যামেরা ট্রায়াল), সেলিম হাওলাদার, মোঃ হাবিবুর রহমান মৃধা, মতিলাল রায়, মোঃ সুন্দর গাজী, রাখাল চন্দ্র ভক্ত, পুষ্প রানী কর্মকার, রাজিয়া বেগম, সালেহা বেগম ও আব্দুল হামিদ মল্লিক। অন্যদিকে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ১৭ মে পর্যন্ত ফোরকান মল্লিকের পক্ষে সাক্ষ্য দিয়েছেন চারজন সাফাই সাক্ষী। তারা হলেন- ইসহাক আলী খান, মৃদুল চন্দ্র সেন মধু, গোবিন্দ কুণ্ডু।

গত ১৯ জানুয়ারি ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে সূচনা বক্তব্য (ওপেনিং স্টেটমেন্ট) উপস্থাপন করেন প্রসিকিউটর মোখলেছুর রহমান বাদল। গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে হত্যা-গণহত্যা, ধর্ষণ, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ, ধর্মান্তকরণ ও দেশান্তরকরণের ৫টি মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে- ৮ জনকে হত্যা ও গণহত্যা, ৪ জনকে ধর্ষণ, ৩ জনকে ধর্মান্তকরণ, ১৩টি পরিবারকে দেশান্তরকরণ, ৬৪টি বসতঘর ও দোকানপাটে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: