মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ নয়, কোহলির দৃষ্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্থায়ীভাবে টেস্টে নেতৃত্ব পেয়ে গেছেন বিরাট কোহলি। পেয়েই ভারত দলটি নিয়ে ভাবতে শুরু করেছেন। সেই ভাবনায় বাংলাদেশ নেই। আছে ভারতকে শীর্ষে নেয়ার তীব্র আকাক্সক্ষা। যে আকাক্সক্ষা আবার দ্রুতই পূরণ করতে চান এবং টানা ৫-৬ বছর রাজত্ব করতেও চান বিরাট কোহলি। এমনটিই আশা প্রকাশ করেছেন কোহলি।

ভারত এখন র‌্যাঙ্কিংয়ে টেস্টে ৩ নম্বর স্থানে আছে। ওয়ানডেতে ২ নম্বর স্থানে আছে। দলকে ১ নম্বর স্থানে দেখতে চান কোহলি। যেহেতু এখনও ওয়ানডে দলের দায়িত্বে আছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাই ওয়ানডে দলটি নিয়ে ধোনিই ভাবছেন। কিন্তু টেস্ট দলের নেতৃত্ব পেয়েছেন কোহলি। তাই টেস্টে দলকে ১ নম্বরে দেখতে চান কোহলি।

ভারতের টেস্ট অধিনায়ক বিরাট কোহলি চান, ভারতকে এমন পর্যায়ে নিয়ে যেতে, যেখানে ৫-৬ বছর টানা রাজত্ব করতে পারে দলটি। দলের একতা বাড়িয়ে সবার মধ্যে বন্ধুত্বের সেতুবন্ধনও গড়ে দিতে চান কোহলি।

ইএসপিএনক্রিকইনফোর ডিজিটাল ম্যাগাজিনে এ রকম আরও কথা বলেছেন কোহলি। তার ওই ইন্টারভিউসহ ম্যাগাজিনটি প্রকাশ পেয়েছে। কোহলি সেখানে বলেছেন, ‘ভারত অন্তত ৫ থেকে ৬ বছর রাজত্ব করছে এমনটাই দেখতে উদগ্রীব আমি। আমাদের অবশ্যই প্রতিভা আছে। আমাদের সামর্থ্যও আছে। এখন বিষয় হচ্ছে সবাইকে এক জায়গায় আনতে কি করা যায় তা। আমি শক্ত বাঁধন তৈরি করতে চাই। এই দলের মধ্যে শক্ত বন্ধুত্ব তৈরি করতে চাই।’ কোহলি আরও বলেন, ‘বছরের ২৫০ থেকে ২৮০ দিন আমরা একসঙ্গে থাকি। তাই দলের মধ্যে আমি এমন আবহ তৈরি করতে চাই যে আগামী দশ বছর বাইরে থেকে এটাকে একতাবদ্ধই মনে হয়। এই দলটি নিরেট দল। একে অন্যের জন্য খেলতে চায়। নিজের জন্য খেলতে চায় না। এটাই আমার লক্ষ্য।’

আগ্রাসী মনোভাব ধরে রেখে বিশ্বের ওপর ছড়ি ঘোরানোর অবস্থায় নিয়ে যেতে চান দলকে। হারাতে চান সেরাকে। হতে চান সেরা, ‘একই রকমের ক্রিকেট খেলতে চাই। যেটা আমি চাই এবং যেটা আমি করতে পারি তা হলো সবার ভেতর থেকে সংশয়টা দূর করতে। নিরাপত্তাহীনতা থেকে সবাইকে মুক্ত করে দেয়া, মাঠে তাদের (অস্ট্রেলিয়া) খেলতে দেখলে অনুভব করবেন তারা একটা ইউনিট। এই মানুষগুলোকে হারাতে আমাদের সেরাটা দিতে হবে। ভারতীয় ক্রিকেটে এটা ঘটতে দেখতে চাই আমি। চাই এমন একটা টেস্ট দল গড়তে যেটিকে সবাই হারাতে চাইবে।’

দলে ধোনি-যুগের অবসান হয়েছে গত ডিসেম্বরেই। শুরু হয়েছে কোহলি-যুগ। অবশ্য জানুয়ারিতে সিডনি টেস্টে অধিনায়ক হিসেবে হাতেখড়ি হয়ে গেছে। তবে সেটা ছিল ‘ভারপ্রাপ্ত’ হিসেবে। এবার পূর্ণ অধিনায়ক হিসেবে বাংলাদেশ সফরে আসছেন বিরাট কোহলি। দায়িত্ব পেয়ে নিজের লক্ষ্য জানালেন ভারতের নতুন টেস্ট অধিনায়ক, ‘অন্তত পাঁচ-ছয় বছরে ক্রিকেটে শাসন করতে চাই।’ কোহলি বললেন, ‘মনেপ্রাণে দেখতে চাই, আগামী পাঁচ-ছয় বছর শাসন করবে ভারতীয় দল।’

কোহলি মানেই অবধারিতভাবে চলে আসবে প্রেমিকা আনুশকা শর্মা প্রসঙ্গও। বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে ভারতের বিদায়ের পর ব্যাপক সমালোচিত হয়েছিলেন কোহলি-আনুশকা। ভারতীয় ব্যাটিং সেনসেশন এ প্রসঙ্গে বললেন, ‘কাউকে জোর করছি না আমাদের জীবন-যাপনকে সম্মান জানাতে কিংবা বলছি না এভাবে আচরণ করুন। এটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। বলতে চেয়েছি আমাদের কেমন লাগে, মানুষের সেটা বোঝা ভীষণ জরুরী। মানুষ যদি কুশপুতুল দাহ করার মতো আচরণ করে, তবে বোঝা উচিত আমাদেরও পরিবার আছে। আমাদের পরিবারের খুব খারাপ লাগে এসবে। অনেক মানুষ রয়েছে, যাদের সঙ্গে আমাদের আত্মার সম্পর্ক। পৃথিবীতে আমরা নিঃসঙ্গ নই। মানুষ হিসেবে আমাদেরও আবেগ-অনুভূতি রয়েছে। আমার কেমন লাগে সেটিই বলতে চাচ্ছি।’

কোহলির পূর্ণ দায়িত্ব নিয়ে টেস্ট নেতৃত্ব শুরু হবে বাংলাদেশ সফর দিয়েই। তবে এ সফর নিয়ে নয়, কোহলি আগামী ৫-৬ বছর ধরে শাসন করার কথাই ভাবছেন। সেই শাসন করে দলকে ১ নম্বরেও দেখতে চাচ্ছেন।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: