কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রধানমন্ত্রী শিশুদের সুরক্ষায় সব সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করেছেন

প্রকাশিত : ১ জুন ২০১৫, ০৫:৪৬ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশুদের সুরক্ষায় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করেছেন বলে মন্তব্য জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার।

সোমবার দুপুরে জাতীয় সংসদ ভবনের আইপিডি কনফারেন্স কক্ষে ওয়ালর্ড ভিশন বাংলাদেশ’র সহযোগিতায় সিএস আইডি কর্তৃক আয়োজিত ‘শিশু অধিকার’ বিষয়ক সংসদীয় ককাসের সঙ্গে শ্রমজীবী শিশুদের আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় ডেপুটি স্পিকার অনুরোধ করেন, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে সরকারি কাজে জনগণের নজরদারি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি আরও বাড়াতে অতি দ্রুত সচিবালয়কে মন্ত্রণালয় নামকরণ করতে।

ডেপুটি স্পিকার বলেন, শিশুশ্রম একটি অমানবিক কাজ এবং নিন্দনীয় অপরাধ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশুদের সুরক্ষার জন্য সব ধরনের সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা রেখেছেন এবং শিশুশ্রম বন্ধে কঠোর নীতিমালা প্রণয়ন করেছেন।

‘শিশুদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর এ মমত্ববোধ ও মাতৃত্ববোধের কারণে দেশে আজ শিশু অধিকার নিয়ে বিভিন্ন শ্রেণির শিশুদের সঙ্গে বসে তাদের দাবি ও অধিকার বিষয়ে সভা-সেমিনার-সংলাপের মতো পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে’ – বলেন ফজলে রাব্বী মিয়া।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সারা জীবন শোষিত ও শ্রমজীবী মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করে গেছেন। রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর তিনি শ্রমজীবী মানুষের কল্যণে নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন। জাতির জনকই প্রথম সব শিশুর শিক্ষা নিশ্চিত করতে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে জাতীয়করণ করে সবার জন্য শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। তাই আমাদের সব শিশুকে স্কুলমুখী করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সব শিশুকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠানো প্রতিটি অভিভাবকের নৈতিক দায়িত্ব। সব শিশুকে শিক্ষার সুযোগ দেওয়া যেমন রাষ্ট্রের দায়িত্ব, তেমনি তাদের স্কুলমুখী করার দায়িত্বও আমাদের নাগরিক সমাজ ও প্রতিটি বিবেকবান মানুষের।

বাজেটে শিশুদের জন্য বরাদ্দ করা অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঠিক তদারকির মাধ্যমে যাতে সুষমভাবে শিশুকল্যাণে ব্যয় হয় সেজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে আরও বেশি কার্যকারী ভূমিকা রাখার অনুরোধ জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে লিখিত প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে ৩২ লাখ শিশুশ্রমিক রয়েছে। এর মধ্যে ৩ লাখ শিশু ঝুঁকিপূর্ণ শ্রমের সঙ্গে যুক্ত।

শিশু অধিকার বিষয়ক সংসদীয় ককাসের সভাপতি সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলী বাদশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মো. ইয়াসিন আলী, কামরুন নাহার চৌধুরী, উম্মে রাজিয়া কাজল, কাজী রোজী, জেবুন্নেসা আফরোজ, শ্রমজীবি শিশু প্রতিনিধিরা এবং বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

প্রকাশিত : ১ জুন ২০১৫, ০৫:৪৬ পি. এম.

০১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: