হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইএনটি হাসপাতালের অব্যবস্থাপনায় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর তীব্র অসন্তোষ

প্রকাশিত : ১ জুন ২০১৫, ০১:২০ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর জাতীয় নাক কান গলা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের অব্যবস্থাপনায় তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। রবিবার হাসপাতালে আকস্মিক পরিদর্শনে গিয়ে অধিকাংশ চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা, কর্মচারী না পেয়ে তিনি এ অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি হাসপাতালের পরিচালক ডা. জাহেদুল আলমকে অনুপস্থিতদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শাও নোটিস দিয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। অন্যথায় তাঁকেও অপসারণ করা হবে বলে জানিয়ে দেন মন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবিবার বেলা দু’টায় হাসপাতালে গিয়ে দেখেন অভ্যর্থনা কক্ষে কেউ নেই। নার্স পাওয়া গেছে একজন। হাসপাতালের পরিচালকসহ মাত্র কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ সময় হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখেন। কাগজে কলমে ২৮ জন রোগী ভর্তি দেখালেও বাস্তবে ২০ জন ভর্তি আছে। এ সময় মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জনগণের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য বর্তমান সরকারের সময়ে এ রকম সুন্দর ও অত্যাধুনিক বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে। বিশ্বমানের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে কতিপয় কর্মকর্তা কর্মচারীদের গাফিলতিতে তা ভেস্তে যেতে দেয়া হবে না। তিনি এই হাসপাতাল সম্পর্কে জনগণের মাঝে আরও প্রচারণা বাড়িয়ে একটি উন্নত ব্যবস্থাপনা গড়ে রোগীবান্ধব ও চিকিৎসা উপযোগী পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য পরিচালককে নির্দেশ প্রদান করেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দীন মোঃ নূরুল হক, পরিচালক (হাসপাতাল) অধ্যাপক ডা. শামিউল ইসলাম, বিএমএ মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

ধূমপানের বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টিতে এগিয়ে আসতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আহ্বান ॥ ধূমপানের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। বিশেষ করে তরুণ সমাজকে ধূমপান থেকে বিরত রাখতে অভিভাবকদের সজাগ থাকার পরামর্শ দেন তিনি।

রবিবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবসের আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ছিল ‘তামাকজাত পণ্যের অবৈধ ব্যবসা বন্ধ কর’। স্বাস্থ্যসচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দীন মোঃ নূরুল হক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক নূর হোসেন তালুকদার, বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান ও মহাসচিব অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। রোগীদের ধূমপান না করার পারমর্শ দিতে চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আমি সকল চিকিৎসকের প্রতি আহ্বান জানাব। আপনারা রোগী দেখার সময়ে বলবেন, তারা যদি ধূমপান করে তাহলে তাদের সেবা দেয়া হবে না। চিকিৎসকদের এই ধরনের সতর্ক বার্তা সাধারণ মানুষের মধ্যে ধূমপান ভীতি গড়ে উঠতে সাহায্য করবে।

তিনি বলেন, আসুন তামাকমুক্ত বিশ্ব গড়ে তুলতে আমরা সবাই এক সঙ্গে কাজ করি। ধূমপানের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলি। যাতে তরুণ সমাজ ধ্বংসের পথে না যায়। একটি সুন্দর প্রজন্ম গড়ে তুলতে তামাকের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মাদকবিরোধী প্রচারণায় বিশেষ অবদানের জন্য ১টি সরকারী প্রতিষ্ঠান, ১টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, ১টি এনজিও ও একজন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

জাতীয় পুষ্টি নীতি প্রণয়নে কাজ চলছে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সবার জন্য সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতীয় পুষ্টিনীতি প্রণয়নের কাজ চলছে। মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পর শীঘ্রই তা জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা হবে। এছাড়া পুষ্টি কার্যক্রম গতিশীল করতে জাতীয় পুষ্টি কাউন্সিল পুনর্গঠনের উদ্যোগও নেয়া হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘সকলের সহায়তায় পুষ্টিগত অবস্থার উন্নয়ন’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বেসরকারী সংগঠন সিভিল সোসাইটি এ্যালায়েন্স (সিএসএ) এবং পরিপ্রেক্ষিত যৌথভাবে এ বৈঠকের আয়োজন করে। পরিপ্রেক্ষিতের নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ বোরহান কবীরের সঞ্চালনায় বৈঠকে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ডাঃ দীন মোঃ নূরুল হক, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম রোকসানা কাদের প্রমুখ।

প্রকাশিত : ১ জুন ২০১৫, ০১:২০ এ. এম.

০১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: