মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কমার্স ব্যাংকের ঘটনায় নিহতদের পরিবারের নিকট চেক হস্তান্তর

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫, ০৪:১৫ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ কামর্স ব্যাংকের আশুলিয়ার কাঠগড়া শাখায় ডাকাতদের হাতে নিহতদের পরিবারদের নিকট চেক হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক ও কমার্স ব্যাংক লিমিটেড।

রবিবার দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তাদেরকে চেক তুলে দেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সিএসআর তহবিল থেকে ঐ শাখার নিহত ব্যবস্থাপকের স্ত্রীর হাতে ৫ লাখ টাকার একটি চেক তুলে দেয়া হয়। বাকি ৭ জন নিহতের পরিবারকে দেয়া হয় ১ লাখ করে টাকার চেক। এ সময় কমার্স ব্যাকের পক্ষ থেকেও নিহত ৮ জনের পরিমানকে উল্লিখ পরিমান অর্থের চেক প্রদান করা হয়।

এ সময় ড. আতিউর রহমান বলেন, কমার্স ব্যাংক সহ অন্য ব্যাংকগুলো যদি নিহতের পরিবারদের ছেলেমেয়েগুলোর পরাশোনার খরচ বহন করে তাহলে তাদের পাশে দাড়ানো হবে বলে। তাই আমি অন্যদেরকে তাদের সিএসআর তহবিলের আওতায় পরিবারগুলোর পাশে দাড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর বলেন, এই ঘটনায় আমরা শুরুতে ভীত হয়ে পড়েছিলাম। তবে বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে আমরা ব্যাংকিং খাতের নিরাপত্তার বিষয়ে কাজ করেছি। তবে আমরা এ ধরণের ঘটনা আর দেখতে চাই না।

উল্রেখ্য, নিহতদের পরিবারের যারা চেক গ্রহণ করেন তাদের মধ্যে রয়েছে, নিহত শাখা ব্যবস্থাপক ওয়ারিওল্রাহর স্ত্রী মোছা. মেরী খাতুন, শাহাবুদ্দিন মোল্লার স্ত্রী নাজনীন মতিন, কাজী বদরুল আলমের স্ত্রী সেলিনা খাতুন, ইব্রাহীম মন্ডরের স্ত্রী ইয়াসমীন খাতুন, মনিরুজ্জামান মনিরের স্ত্রী আলেয়া বেগম, নূর মোহাম্মদের স্ত্রী নূর খাতুন, জমির আলীর স্ত্রী শম্পা বেগম এবং নিহত আইয়ুব আলীর স্ত্রী মরিয়ম বেগম।

অনুষ্ঠানে ওয়ালিউল্লাহর স্ত্রী মেরী খাতুনের হাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে ১ লাখ টাকা ও কমার্স ব্যাংকের ৫ লাখ টাকার চেক তুলে দেন গর্ভনর। এছাড়াও ওই শাখার গ্রাহক সাহাবুদ্দিন মোল্লা পলাশের স্ত্রী নাজনীন বিনতে মতিন, নূর মোহাম্মদের স্ত্রী নূর খাতুন, গানম্যান কাজী বদরুল আলমের স্ত্রী সেলিনা খাতুন, সিকিউরিটি গার্ড ইব্রাহিম মন্ডলের স্ত্রী ইয়াসমীন খাতুন, স্থানীয় ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামানের স্ত্রী আলেয়া বেগম, জমির আলীর স্ত্রী শম্পা বেগম ও ইউপি সদস্য আইয়ুব আলীর স্ত্রী মরিয়ম বেগমের হাতে এক লাখ টাকার দু’টি করে চেক তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী হাওলাদার, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সাদেক মো. সোহেল, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গর্ভনর এসকে সুর চৌধুরী, নিহত ওয়ালিউল্লাহর স্ত্রী মেরী খাতুন প্রমুখ। ওয়ালিউল্লাহর তিন মেয়ে অভি, অপি, ঐশি ও ছেলে শ্রাবণ। বড় দুই মেয়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ালেখা করে। প্রসঙ্গত, গত ২১ এপ্রিল সাভারের আশুলিয়ার কাঠগড়া বাজারে অবস্থিত বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের শাখায় ডাকাতির ঘটনায় ব্যবস্থাপক ওয়ালিউল্লাহসহ ৮ জন নিহত হন। এ ঘটনায় আহতদের চিকি‍ৎসার পুরো খরচ বহন করছে কমার্স ব্যাংক।

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫, ০৪:১৫ পি. এম.

৩১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: