রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হার্টথ্রব দীপিকার সৌরভে মাতোয়ারা ঢাকার দর্শক

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫, ১২:৪৪ এ. এম.
  • সৌভাগ্যবান হাজার ভক্ত ও লাক্স সুন্দরীদের সঙ্গে বর্ণিল ফ্যাশন শো

জনকণ্ঠ রিপোর্ট ॥ বলিউডের হার্টথ্রব নায়িকা দীপিকা পাডুকোন। মোহনীয় রূপের সঙ্গে অভিনয়শৈলীর সংযোগে সেলুলয়েডে পেয়েছেন তুমুল জনপ্রিয়তা। টানা টানা চোখ আর চওড়া ঠোঁটের ভুবন ভোলানো হাসিতে কাঁপন ধরিয়েছেন সিনেমা দর্শকের হৃদয়ে। স্বমহিমায় নামের পাশে যুক্ত করেছেন হালের বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রীর তকমা। উন্মুক্ত আকাশ সংস্কৃতির সুবাদে এদেশেও রয়েছে তার লাখো ভক্ত ও অনুরাগী। তাদের মধ্যে লাক্স সাবান ব্যবহারকারী এক হাজার সৌভাগ্যবান ভক্ত শনিবার সরাসরি দেখা পেলেন দীপিকার। আর সেই সব অনুরাগীর মন রাঙিয়ে ঢাকা মাতিয়ে গেলেন এই বলিউড সুন্দরী। রূপালি তারার আলোয় আলোকিত হলো অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণ বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির রাজদর্শন হল। ইউনিলিভার বাংলাদেশের লাক্স সাবানের প্রচারের সূত্র ধরে এই রূপসীর এটাই প্রথম বাংলাদেশ সফর। লাক্স স্টার কালেকশনের শীর্ষক নতুন সংস্করণের সুরভী ছড়াতে এসে প্রথম সফরেই আলোড়িত করে গেলেন এদেশের অনুরাগীদের অন্তর। সব মিলিয়ে যেন দীপিকা সৌরভে মাতোয়ারা হলো ঢাকার দর্শক। সৌরভে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী স্বল্প কথা আর অনবদ্য পরিবেশনায় ছড়িয়ে দিলেন মুগ্ধতার বীজ।

সন্ধ্যা থেকেই লাক্সের ব্র্যান্ড এ্যাম্বাসেডর দীপিকার অনুরাগীদের আগমনে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে রাজদর্শন হল। চলতে থাকে প্রিয় নায়িকাকে পর্দার বাইরে সামনে থেকে দেখার প্রতীক্ষার প্রহর। অবশেষে সেই তৃষ্ণার অবসান হয় রাত নয়টায়। মঞ্চে এলেন দীর্ঘাঙ্গি ও সুঠাম শরীরী গড়নের এই অনিন্দ্য সুন্দরী। কারুকার্যখচিত সাদা শাড়িতে আরও বেশি স্নিগ্ধ মনে হলো এই বলিউড সুপারস্টারকে। তার আগমনে মুহূর্তেই কলরবে মুখরিত হলো মিলনায়তন। এর পর অনুরাগীদের উদ্দেশে বলেন, এই প্রথমবার এলাম বাংলাদেশে। এদেশের মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসে তা স্বপ্নেও ভাবিনি। ২০১৩ সালের লাক্সের শুভেচ্ছা দূত হওয়ার পর থেকে এই পণ্যটির সঙ্গেই আছি। দীপিকার কথা শেষ হতেই মঞ্চে উঠে আসে কিছুসংখ্যক ভক্ত। হাত মেলান ও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন প্রিয় নায়িকার সঙ্গে। অনুরাগীদের সঙ্গে কিছুক্ষণের হালকা ধাঁচের নাচেও অংশ নেন এই বলিউড স্টার। ভক্তদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে লাক্সের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

আয়োজনের সূচনা হয় বাপ্পা মজুমদার, কণা, ফুয়াদ ও পার্থ বড়ুয়ার সঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে। এর পর অনুষ্ঠিত হয় লাক্সের নব্বই বছরের পথচলা উপলক্ষে ফ্যাশন শো। এতে নতুন লাক্স সুন্দরীদের সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন সাদিয়া ইসলাম মৌ, শমী কায়সার, ঈশিতা ও কুসুম শিকদার। এক পর্যায়ে আয়োজনটি সম্পর্কে তারা নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। তারা বলেন, লাক্স আমাদের পরিবারের অংশ। শুরু থেকেই আমরা এর সঙ্গে আছি।

পরিবেশনা পর্বটি আরও আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে দেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে। দীপিকার জনপ্রিয় গানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পারফর্ম করেন তিন শীর্ষ লাক্স সুন্দরী। তারা হলেন মডেল ও অভিনেত্রী বিদ্যা সীনহা মীম, মেহজাবীন ও শানারেই দেবী শানু। পুরো আয়োজনটি ছিল দুই ভাগে বিভক্ত। প্রথমে অনুষ্ঠিত হয় দীপিকাকে নিয়ে লাক্সের নতুন সংস্করণের প্রচার। এরপর ছিল পরিবেশনা পর্বটি। আর এ আয়োজনে কাজ করেছে একাধিক কোরিওগ্রাফারের সমন্বিত একটি টিম। এতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার ওয়ার্দা রিহাব।

শনিবার বেলা বারোটায় একটি বিমানে চড়ে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামেন দীপিকা পাডুকোন।

প্রসঙ্গত, দীপিকা এবং লাক্সের মাস্টার পারফিউমার আলেসান্ড্রা ভিনকেস্বেইতিস মিলে সৃষ্টি করেছেন নতুন লাক্স এডিশন লাক্স স্টার কালেকশন। এর প্রচারের অংশ হিসেবে লাক্স সাবানের ভোক্তারা বিশেষ একটি নম্বরে মিসকল দেয়াসহ কিছু প্রক্রিয়া পেরিয়ে দীপিকার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পান। ১২ লাখ মিসড কল আসে নম্বরটিতে। সেখান থেকে কয়েকটি ধাপ পেরিয়ে বাছাই এক হাজার গ্রাহক দীপিকার সঙ্গে পেয়েছেন সরাসরি দেখা করার দুর্লভ সুযোগ । এমনটাই জানানো হয় লাক্সের ফেসবুক পেজে।

প্রকাশিত : ৩১ মে ২০১৫, ১২:৪৪ এ. এম.

৩১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: