আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভাজা চিনিতে দই হয় লালচে আর সাদা করতে কাঁচা চিনি

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫

আবহমানকাল থেকে দই অধিকাংশ মানুষের পছন্দের খাবার। এখনও বিয়ে থেকে শুরু করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অনেকেই অতিথিদের আপ্যায়নের এই আইটেম রাখেন। উত্তরাঞ্চলে পাবনা ও বগুড়া দইয়ের জন্য বিখ্যাত হলেও এখন সব জায়গায় দই তৈরি হচ্ছে। পার্বতীপুরের মনম্মথপুর ইউনিয়নের দাগলাগঞ্জ, ভবের রাজার এলাকায় অনেক কারিগর দই তৈরিতে নিয়োজিত। এছাড়াও হোটেল, রেস্তোরাঁ ও মিষ্টির মালিকরা নিজস্ব কারিগর দিয়ে নিজেরাই দই তৈরি করছে। এ ব্যাপারে পার্বতীপুর শহরের মা-মণি হোটেলের খোলাহাটি রোডে অবস্থিত কারখানায় গেলে কিভাবে দই তৈরি করা হয় তা প্রত্যক্ষ করা যায়। এখানকার দইয়ের কারিগর আতিয়ার রহমানের বাড়ি পার্শ্ববর্তী রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার ট্যাক্সের হাটে। দুগ্ধজাত এই উপাদেয় খাবার কিভাবে তৈরি করা হয় তা তিনি বিস্তারিত জানান।

প্রথম পর্যায়ে এক মণ দুধ জাল দিয়ে অর্ধেক করে পরিমাণমতো চিনি মেশানো হয়। তারপর জোড়ন দিয়ে ছোট-বড় মাটির পাত্রে ঢালা হয়। শেষে এগুলো আগুনের চুল্লির চারপাশে ঝাপি দিয়ে ঢেকে রাখতে হয় কমপক্ষে ৬ ঘণ্টা। এই সময়ের মধ্যে আগুনের তাপে দই জমাট বাঁধে। দুধে ভাজা চিনি মেশালে দই লালচে আবার কাচা চিনি ব্যবহার করলে দেখতে সাদা হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে জোড়ন মিশিয়ে টক দই বানানো হয়। মুরগির রোস্ট ও বোরহানী তৈরিতে টক দই ব্যবহার কর হয়। Ñশ.আ. ম হায়দার

পার্বতীপুর থেকে

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫

৩০/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: