মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মার্কিন সশস্ত্র বাহিনী ও কর্পোরেট এলিট আরও যুদ্ধ চায়

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫
  • রাজনৈতিক ভাষ্যকারের বিশ্লেষণ

এক জন আমেরিকান রাজনৈতিক ভাষ্যকার ও আন্দোলনকারী বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী ও কর্পোরেট প্রভাবশালী মহল যুদ্ধ, যুদ্ধ এবং আরও যুদ্ধ চায়, কারণ যুদ্ধ তাদের স্বার্থসিদ্ধি করে। বিল ডোরেস শুক্রবার প্রেসটিভির সঙ্গে এক টেলিফোন সাক্ষাতকারে বলেন, পূর্ব এশিয়ার দক্ষিণ চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাস আক্রমণাত্মক। ১৮৯৮ খ্রিস্টাব্দে ফিরে গেলে দেখা যাবে, যুক্তরাষ্ট্র সে বছর ফিলিপিন্স আক্রমণ করে এবং সেখানে ১০ লক্ষ লোককে হত্যা করে। ডোরেস বলেন, ১৯০০ সালে যুক্তরাষ্ট্র চীনের রাজধানী বেজিং আগুন জ্বালিয়ে দেয়। বিদেশ যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধের বিরোধিতা করার জন্য ব্যাপকভিত্তিক তৃণমূল জোট গড়ে তুলছে ইন্টারন্যাশনাল এ্যাকশন সেন্টার। লেখক ও আন্দোলনকর্মী ডোরেস এই কেন্দ্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র কোরিয়া, ভিয়েতনামে একের পর এক আগ্রাসী রক্তাক্ত যুদ্ধ চালিয়ে গেছে, যাতে লাখ লাখ লোক মারা গেছে এবং হাজার হাজার মার্কিন নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। এই আন্দোলনকর্মী দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘এটি বেদনায়ক যে, আমাদের সরকার বিশ্বের এই অংশে, আবার উস্কানিমূলকভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র সামরিক বাহিনীর সপ্তম নৌবহরের বিশ্বের ওই এলাকায় কোন কাজ নেই।’ যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ চীন সাগরে ‘চরম বিশৃঙ্খলা’ সৃষ্টির চেষ্টা করছেÑ চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতির ওপর বক্তব্য দিতে বলা হলে তিনি এ কথা বলেন। বৃহস্পতিবার চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সব ধরনের উস্কানিমূলক কাজও কথা থেকে বিরত থাকার জন্য’ ওয়শিংটনের প্রতি আহ্বান জানায়। পররাষ্ট্র্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইসিং বৃহস্পতিবার বলেন, ‘যদি বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রধান শক্তি কেন্দ্রকে বিশৃঙ্খলার মধ্যে ফেলে দেয়া হয় তবে কি তা আমেরিকানদের স্বার্থ রক্ষা করবে? ডোরেস বলেন, আমাদের স্বার্থ হলো চীন ও বিশ্বের সকল দেশের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক, অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক বজায় রাখা। কিন্তু কর্পোরেট এলিটদের এবং পেন্টাগণ ও কর্পোরেট এলিটদের স্বার্থ যুদ্ধ, যুদ্ধ এবং আরও যুদ্ধ। Ñএএফপি

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫

৩০/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: