রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মনমোহন সিং দেখা করলেন নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫
  • অর্থনীতি ও পররাষ্ট্র বিষয় নিয়ে আলোচনা

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং বুধবার সন্ধ্যায় আকস্মিকভাবে তাঁর উত্তরসূরি নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাত করেন। এর আগে নরেন্দ্র মোদি অর্থনীতি ও পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে আলোচনার জন্য ড. সিংকে আমন্ত্রণ জানান। খবর হিন্দু ও হিন্দুস্তান টাইমসের।

ড. সিং তীব্র ভাষায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারকে আক্রমণ করার কয়েক ঘণ্টা পর নয়াদিল্লীর ৭ রেসকোর্স রোডস্থ (আরসিআর) প্রধানমন্ত্রীর দফতরে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকের তাৎপর্য নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়। বৈঠকের পরপরই মোদি দু’জনের হাসি মুখে করমর্দন করার ছবিসহ এক টুইট পোস্ট করে বলেন, ড. মনমোহন সিংজীর সঙ্গে দেখা করে খুবই সুখী হয়েছি এবং তাকে ৭ আরসিআরে আবারও স্বাগত জানাই। আমাদের মধ্যে এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকই হয়েছে। সিংয়ের দফতর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয় যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বাসভবনে দেখা করেন। তাঁরা দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে কথা বলেন।

ওই দিন ন্যাশনাল স্টুডেইস ইউনিয়ন অব ইন্ডিয়ার এক কনভেনশনে ভাষণ দিতে গিয়ে ড. সিং মোদি সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, জনগণের মনোযোগ গুরুত্বহীন বিষয়ের দিকে বাহিত করতে সরকার বারবার দুর্নীতির রেকর্ড বাজাচ্ছে। তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, এ সরকারের শাসনাধীনে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো হুমকির মুখে পড়েছে এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার বাড়ানোর নামে কল্যাণ রাষ্ট্রের সমগ্র কাঠামোই ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে। একই দিন মোদি পিটিআইয়ের সঙ্গে ‘এক সাক্ষাতকারে এনডিএ সরকার এক ব্যক্তির হাতে নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে’ বলে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর অভিযোগ উড়িয়ে দেন। তিনি বলেন, সভানেত্রী আগেরকার সংবিধানবহির্ভূত প্রতিপক্ষগুলোই যে বাস্তবে ক্ষমতা প্রয়োগ করত সে কথাই সম্ভবত ইঙ্গিত করছেন।

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ দুর্নীতি সম্পর্কে ড. সিংয়ের বিবৃতির সমালোচনা করে বলেন, আমি স্বীকার করি প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতিপরায়ণ ছিলেন না, কিন্তু তাঁর মন্ত্রীরাও যাতে দুর্নীতিপরায়ণ না হন, তা নিশ্চিত করা তাঁর দায়িত্ব ছিল।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ওই কনভেনশনে তাঁর সরকারের বিরুদ্ধে আগত দুর্নীতির অভিযোগের বিরুদ্ধে আত্মপক্ষ সমর্থন করেন। তিনি বলেন, আমি নিজেকে আমার বন্ধু-বান্ধবের পরিবারের সদস্যদের ধনী বানাতে আমার পদকে কাজে লাগাইনি।

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫

২৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: