আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সিরিজ জিততে চায় ইংল্যান্ড, কিউইরা চায় বাঁচাতে

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লক্ষ্য একটাই জয়। আর এই লক্ষ্যটা অবশ্যই অর্জন করতে হবে সফরকারী নিউজিল্যান্ডকে। কারণ এছাড়া দুই টেস্টের সিরিজ হাতছাড়া হয়ে যাবে। কারণ প্রথম টেস্টে নাটকীয়ভাবে জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। আজ থেকে হেডিংলীতে শুরু হওয়া সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে ড্র করলেই চলে। তাহলেই এ্যালিস্টার কুকের দল সিরিজ জিতবে। কিন্তু ছন্দ ধরে রেখে সিরিজ জিততে চায় ইংল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় ম্যাচটা শুরু হবে।

হেডিংলী পেসারদের জন্য সহায়ক উইকেট। তাই এখানে বোলিং বিভাগে কোন পরিবর্তন আনতে চাইবে না উভয় দল। তবে নিউজিল্যান্ডের পেস অলরাউন্ডার কোরি এ্যান্ডারসনকে নিয়ে কিছুটা সংশয় থাকছে। তিনি পিঠের ব্যথায় ভুগছেন এবং বল হাতে প্রথম টেস্টে তেমন সুবিধা করতে পারেননি। লর্ডসে শেষ দু’দিনে পরিস্থিতি পুরোপুরি পাল্টে গিয়েছিল। টানা তিনদিন লর্ডস টেস্টের নিয়ন্ত্রণ ছিল সফরকারী নিউজিল্যান্ডের। কিন্তু শেষ দু’দিনে নিজেদের দারুণভাবে ফিরে পেয়েছে ইংল্যান্ড। আর এ ফেরার পেছনে অন্যতম ভূমিকা পালন করেছেন তরুণ ক্রিকেটার বেন স্টোকস। তিনি দুই ইনিংসে ৯২ ও ১০১ রান করেছেন। এছাড়া আরেক তরুণ জো রুট ছিলেন দারুণ বিধ্বংসী। এ দুই ব্যাটসম্যান মিলে পুরোপুরি বিপাকে ফেলেছেন নিউজিল্যান্ডকে। হেডিংলীতেও এ দুই ক্রিকেটারের দিকে বিশেষ নজর থাকবে সবার এতে কোন সন্দেহ নেই। এরচেয়ে বড় কথা অধিনায়ক এ্যালিস্টার কুকও দীর্ঘদিন পর ব্যাট হাতে জ্বলে উঠেছেন। প্রথম ইনিংসে সুবিধা করতে না পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ঠিকই ১৬২ রানের বড় ইনিংস খেলে দলকে ঘুরে দাঁড়ানোর রাস্তা বাতলেছেন। লর্ডস টেস্টে কোণঠাসা পরিস্থিতিতে থেকেও ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় পাওয়ার পর এখন ইংলিশ শিবির দারুণ উজ্জীবিত। প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ড ছিল কোচবিহীন। পিটার মুরসকে বরখাস্ত করার পর অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্বে সহকারী কোচ পল ফারব্রেস দারুণ কাজ দেখিয়েছেন। দলকে জিতিয়েছেন প্রথম টেস্টে। এবার নতুন কোচ ট্রেভর বেলিসের জন্য শুরুতেই বড় চ্যালেঞ্জ। কোনভাবেই পরাজিত হওয়া যাবে না। তাহলে তার শুরুটাই হবে পরাজয় দিয়ে। তবে কিউইরা লর্ডস টেস্টের শুরু থেকে দারুণ অবস্থানে থাকার পরও জিততে ব্যর্থ হওয়ায় দারুণ হতাশ। এবার সেটা কাটাতে চায়। কিন্তু হেডিংলী আবার ইংলিশ কাউন্টি ইয়র্কশায়ারের মাঠ। বর্তমান স্কোয়াডে ইয়র্কশায়ারের ৬ ক্রিকেটার আছেন। এটি ইংল্যান্ড দলের জন্য আরেকটি শক্তির কারণ। কিংবদন্তি জিওফ বয়কট সবসময়ই বলে থাকেন, ‘ইয়র্কশায়ারের অনেক ক্রিকেটার থাকা মানেই ইংল্যান্ড অনেক শক্তিধর।’ তবে সেটা এবার প্রমাণ করে ছন্দ ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ ইংল্যান্ডের জন্য। এ ম্যাচে ইংল্যান্ড টেস্ট ইতিহাস পাল্টে দিতে পারেন কুক ও পেসার জেমস এ্যান্ডারসন। এক উইকেট নিতে পারলেই এ্যান্ডারসন ইংল্যান্ডের টেস্ট ইতিহাসে প্রথম বোলার হিসেবে ৪০০ উইকেটের মালিক হয়ে যাবেন। আর কুক ৩২ রান করতে পারলেই ইংল্যান্ডের পক্ষে সর্বাধিক টেস্ট রানের রেকর্ড গড়বেন।

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫

২৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: