রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উবাচ

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫

অতঃপর ‘মদন ভস্ম’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপির আবার জেগে উঠতে হলে ‘মদন ভস্ম’ হওয়া নয়ত ফিনিক্স পাখি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। দলটির দুই স্থায়ী কমিটির সদস্য গেল সপ্তাহে এই পূর্বাভাস দিয়েছে। যাকে অনেকে বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর পূর্বাভাস বলে মনে করছেন। দলটির প্রভাবশালী স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন ‘মদন ভস্ম’ এর পর বিএনপি জেগে উঠবে। ইতোমধ্যে নজরুল ইসলাম খানের ‘মদন ভস্ম’ তত্ত্ব নিয়ে পাঠক মনে জানার আগ্রহ তীব্র হয়েছে। কিন্তু নজরুল ইসলাম খানের কাছ থেকে এর কোন ব্যাখ্যা বের করা সম্ভব হয়নি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নজরুল ইসলাম খানকে ফোন করা হলে ওপাশ থেকে জনৈক আতাউর রহমান নামের কেউ জানান, লিডার অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি। পাঠকের জিজ্ঞাসু মনের খোরাক জোগাতে মদন ভস্ম আসলে কি তা জানার চেষ্টা করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, ব্রহ্মা যে সময়ে দক্ষ প্রজাপতিদের সৃষ্টি করে মরীচি প্রভৃতি মানসপুত্র সৃষ্টি করেন, সেই সময় তাঁর মন হতে এক পরমাসুন্দরী নারীর আবির্ভাব হয়। এই নারীর নাম সন্ধ্যা। এই সন্ধ্যাই সন্ধ্যাকালে পূজিতা হয়ে থাকেন। কিন্তু একে দেখে ব্র্রহ্মা, দক্ষ, মরীচি প্রভৃতি ভাবতে লাগলেন, এই সৃষ্টির মধ্যে নারীকে নিয়ে তাঁরা কি করবেন এবং কেই বা একে গ্রহণ করবেন। তখন ব্রহ্মা মন হতে এক সুন্দর পুরুষের সৃষ্টি করলেন। এই পুরুষের সৌন্দর্য দেখে সকলেই মোহিত হয়ে গেলেন।

এই পুরুষ ব্রহ্মার কাছে জানতে চাইলেন, কোন কার্যে তিনি নিযুক্ত হবেন। তাঁর অনুরূপ নাম ও স্ত্রী নির্দেশ দেয়া হোক। তুমি পুষ্পবান দিয়ে সকলের মনে মত্ততা ও আনন্দ সৃষ্টি করবে। তুমি দেবতাদের চিত্ত মথিত করেছ, এই জন্য তোমার নাম ‘মন্মথ’, তুমি অসাধারণ কামরূপী, সেই জন্য তোমার নাম কাম, সমস্ত লোককে তুমি মত্ত করবে, সেই জন্য তোমার নাম মদন। তুমি মহাদেবের দর্প চূর্ণ করবে, সেই জন্য তোমার নাম কর্ন্দপ। স্বর্গ, মর্ত্য ও পাতালে তোমার অবস্থিতি হবে। তারপর মদন তাঁর কুসুম শরাসন ও পুষ্পময় পঞ্চশর প্রথমে ব্রহ্মার ওপর নিক্ষেপ করতে চাইলেন। সন্ধ্যার সম্মুখে ব্রহ্মার ওপর এই শর নিক্ষেপ করাতে ব্রহ্মা কামমোহিত হয়ে পড়লেন।

ব্রহ্মার কামাতুর ভাব দেখে মহাদেব অসন্তুষ্ট হয়ে বললেন, পুত্রবধূ ও কন্যা, মাতৃতুল্যের প্রতি কামাসক্ত হওয়া ব্রহ্মার পক্ষে পাপকার্য-কারণ তিনি বেদের নিয়ামক। মহাদেবের এই তিরস্কারে ব্রহ্মা দুঃখিত হয়ে মদনকে অভিশাপ দিলেন : তোমার জন্য আমি অপমানিত হয়েছি, এই অপরাধে তুমি মহাদেবের অগ্নিবাণে দগ্ধ হবে। অভিশাপ শুনে মদন ব্রহ্মার কাছে অনুনয়-বিনয় করতে লাগলেন। তখন ব্রহ্মা বললেন, মহাদেবের ক্রধানলে ভস্মীভূত হলেও তাঁর অনুগ্রহেই তোমার পুনর্জন্ম হবে।

নজরুল ইসলাম খান তখন বলেন, আওয়ামী লীগসহ সব দলের অংশগ্রহণের নির্বাচনেই জিয়াউর রহমান জনগণের ভোট নিয়ে রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন। বিচারপতি আবদুস সাত্তারও আওয়ামী লীগের প্রর্থী ড. কামাল হোসেনকে এক কোটি ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন।

অন্যদিকে দলের আরেক স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য লেজে মাহবুব বলছেন না এতে হবে না ফিনিক্স পাখি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। না হলে শুয়ে পড়া বিএনপি আর কি উঠে দাঁড়াতে পারবে না?

দেখা মিলবে তো মোদির!

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এত দিনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর কানে পানি প্রবেশ করেছে। নাইন ইলেভেনের পর সারা দুনিয়াই বুঝেছে রাজনীতিতে ধর্মনিরপেক্ষতা প্রয়োজন। কিন্তু বিএনপি তা বুঝেও না বোঝার ভান করেছে। ক্ষমতার লোভে ধর্মের অপব্যবহারকারী জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করতে পারেনি। দেশে জঙ্গীবাদের প্রশ্রয়ে কাজ করে গেছে সর্বদা। ক্ষমতায় থাকতে প্রতিবেশী দেশের শান্তি নষ্ট করতে ১০ ট্রাক অস্ত্র আনার সুযোগ করে দিয়েছে উগ্র সংগঠনকে। দেশটির সীমান্তবর্তী এলাকা ব্যবহার করার সুযোগও দিয়েছে তাদের। ভারতের সাম্প্রতিক নির্বাচনের সময় বিএনপি মনে করেছিল ভারতে নতুন সরকার এলে পিএনপি নির্বাচন ছাড়াই বাংলাদেশের ক্ষমতায় চলে যাবে। কিন্তু সে আশার তরী আর তীরে ভিড়ল কই। হতাশই হলো বিএনপি। উল্টো বহু বছরের ঝুলে থাকা সীমান্ত চুক্তি বিল পাস করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের প্রতি বিরল ভালবাসা উপহার দিয়েছেন। কথা দিয়েছেন তিস্তার পানি বণ্টনের সমাধান করে দেবেন বাংলাদেশের পরম বন্ধু মোদি সরকার। এর মধ্যে ঘটল আরেক বিপত্তি। চীনের উপপ্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি বাংলাদেশ সফর করেন। অনেক চেষ্টা চালিয়েও বিএনপি নেত্রী তার দেখা পাননি। আর তাতেই যেন দলটি আরও ভেঙ্গে পড়েছে। এই বুঝি হাতছাড়া হলো এই বুঝি ফসকে গেল মোদির সঙ্গে দেখা হওয়ার সুযোগ। দলের নেতারা ভাবছেন মোদি আসছেন শেষ পর্যন্ত তার দেখা পাবে তো ভঙ্গুর বিএনপি। হতাশা থেকে দৌড়ঝাঁপ করছেন বিএনপি নেতারা। বিরোধীদলীয় নেত্রী হলেও দেখা পাওয়াটা খুব সহজ। এখন বিদেশী বন্ধুদের দেখা পেতে হলে নালিশ করে বালিশ তৈরি করতে হলে স্রেফ দয়া দাক্ষিণ্যের ওপর নির্ভর করতে হয়। বেকল মাত্র তারা দয়া করলেই দেখা পায় বিএনপি। না দয়া করলে বৃদ্ধ আঙ্গুল চোষা ছাড়া আর কিছু করার থাকে না। এখন অনেকটা আকস্মিকভাবে বিএনপির ভারত প্রীতি জেগে উঠেছে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপনকে সংবাদ সম্মেলন করে বলতে হয়েছে বিএনপি ভারতবিরোধী কোন রাজনীতি করে না। অতীতেও করেনি এবং এখনও করছে না। বিএনপি জনগণের স্বার্থে রাজনীতি করে। রিপন বলেন, ‘বিএনপি মনে করে নরেন্দ্র মোদির এই সফরের মধ্য দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার করে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে অমীমাংসিত বিষয়গুলো রয়েছে সেগুলো সমাধান হবে। বিএনপি আশা করে মোদির এই সফরের মধ্য দিয়ে সীমান্তে মানুষ হত্যা বন্ধ হবে। প্রসঙ্গত বিএনপির প্ররোচনায় ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীর বাংলাদেশ সফরের সময় তার হোটেল কক্ষ থেকে কয়েক গজ দূরে বোমা ফাটিয়ে বাংলাদেশের অবস্থা ভাল নয় প্রমাণ করতে চাওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। অহংকারে তারা বাংলাদেশের এই অকৃত্রিম বন্ধুর সঙ্গে দেখা পর্যন্ত করেনি।

সুপারহিট মানুষটিই কাছিম!

স্টাফ রিপোর্টার ॥ তিনি মওদুদ। মৌ আর দুধের সংমিশ্রণে তৈরি। মুখের ভাষা সুমিষ্ট। কথা বলেন চিবিয়ে চিবিয়ে। কথায় কথায় দোহায় দেন সংবিধানের। এ ধারায় এই ও ধারায় সেই কত কত ব্যাখ্যা। রাজনীতি শেষেবার পরিবর্তন করে বিএনপিতে স্থির হলেও করেননি এমন দল কোথায়? তাই সহজেই তার গায়ে যে কোন দলের লেবেল আঁটা যায়। নাম থেকে কর্ম সবখানেই সুপার হিট এই মানুষটিই নাকি কাছিম। এটা কোন কথা হলো নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান রংপুরে গিয়ে এই রাজনীতিবিদকে কাছিম বলে এসেছেন। মওদুদ আহমেদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তিনি তো আসলেই একটা কাছিম। কাছিম যেমন সময় সুযোগ বুঝে মাথা বের করে আবার আড়াল করে তিনিও ঠিক তেমনি। তিনি বলেন, বিএনপির রাজনীতিই হলো অপরাজনীতি। তারা জ্বালাও পোড়াওয়ের রাজনীনিতে বিশ্বাসী। তাদের কাজই মিথ্যাচার আর নাটক সাজানো। সবশেষ নাটক হলো সালাহউদ্দিন নাটক। মন্ত্রী বলেন, গণহত্যা করে গণতন্ত্র রক্ষার রাজনীতি করা যায় না। তিনি বলেন, যারা অসংখ্য মানুষকে পেট্রোলে পুড়িয়েছে, যারা হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ বিনষ্ট করেছে তাদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রত্যেককেই আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৫

২৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: