রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইউরোপিয়ান ফুটবলে উৎসবের রাত

প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৫
  • অতশী আলম

ইউরোপিয়ান ফুটবলে উৎসবের রাত গেছে শনি, রবি ও সোমবার। এই দিনগুলোতে শেষ হয়েছে ২০১৪-১৫ মৌসুমের স্প্যানিশ লা লিগা, ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ, জার্মান বুন্দেসলিগা ও ইতালিয়ান সিরি এ। এই লীগগুলোতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে যথাক্রমে বার্সিলোনা, চেলসি, বেয়ার্ন মিউনিখ ও জুভেন্টাস। মজার বিষয় হচ্ছে, সব দলই কয়েকটি করে ম্যাচ হাতে রেখে শিরোপা নিশ্চিত করে। তবে লীগগুলোর শেষ রাতে উৎসব করেছে চ্যাম্পিয়নরা।

আগেই শিরোপা নিশ্চিত করা বার্সাকে শনিবার রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে লা লিগার ট্রফি দেয়া হয়। অবশ্য শেষটা ভাল হয়নি কাতালানদের। ডিপোর্টিভো লা করুনার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে শেষটা হতাশার হয়েছে মেসি, নেইমার, সুয়ারেজদের। অন্যরা ব্যর্থ হলেও মেসি দলের হয়ে দুটি গোলই করেন। ম্যাচ শেষের কিছুক্ষণ পর ট্রফি তুলে দেয়া হয়। আর তা গ্রহণ করেন বিদায়ী অধিনায়ক জাভি। এ সময় বার্সার সব খেলোয়াড় তাদের সন্তান, স্ত্রী কিংবা বান্ধবীকে নিয়ে মাঠে উপস্থিত ছিলেন। তবে সবার মধ্যমণি ছিলেন জাভি। ন্যুক্যাম্পে ১৭ বছরের ক্যারিয়ার শেষে বিদায় নিতে যাওয়া জাভিকে জয় উপহার দেয়ার পথেই ছিল বার্সিলোনা। কিন্তু ডিপোর্টিভোর বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে শেষ ২৫ মিনিটে দুই গোল করে সমতা ফিরিয়ে অবনমন হওয়া থেকে বেঁচে যায় অতিথিরা। এতে অবশ্য বার্সার শিরোপা জয়ের আনন্দে ছেদ পড়েনি। ম্যাচ শেষে ট্রফি হাতে পেয়ে গ্যালারি ভরা দর্শকদের সামনে বিজয় উদযাপনের পাশাপাশি ক্লাবের মায়া কাটাতে যাওয়া জাভিকেও সংবর্ধনা দেয় লুইস এনরিকের দল। ম্যাচের শুরু থেকেই গ্যালারিজুড়ে ছিল জাভির নামে সেøাগান। এই ম্যাচে বার্সিলোনা অধিনায়ক পায়ে বল পেলেই করতালি আর চিৎকার দিয়ে সমর্থন জানিয়েছেন সমর্থকরা।

এবার ঘোষণা দিয়েই স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে বার্সিলোনা। গত ১৭ মে এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ১-০ গোলে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে ২৩তম লা লিগার শিরোপা নিশ্চিত করেছে কাতালানরা। গত সাত বছরে এটি বার্সার পঞ্চম লা লিগা জয়। স্পেনের ঘরোয়া আসরের সর্বোচ্চ শিরোপা জয়ের পর কাতালানদের লক্ষ্য এখন ট্রেবল জয়। ৩০ মে ঘরের মাঠে কোপা ডেল রে’র ফাইনালে লুইস এনরিকের দল লড়বে এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিরুদ্ধে। আর ৬ জুন বার্লিনে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের বিরুদ্ধে লড়বে বার্সিলোনা। এই দুটি ফাইনাল জিততে পারলেই ট্রেবল জিতবেন মেসি, নেইমার, সুয়ারেজরা। বিজয়ী বার্সা কোচ লুইস এনরিকে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, ‘দশ মাস আগে আমি এখানে অনেক পরিবর্তন নিয়ে শুরু করেছিলাম। ক্লাব কিছু না জেতে এসেছিল। আমরা জানতাম, এটা একটা ক্রান্তিকাল। কোন কিছু ছাড়াই মৌসুম শুরু করাটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং ছিল। আমরা জানতাম এটা আমাদের পুনর্জাগরণের মৌসুম। আমরা আমদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টাই করেছি। এখনও আমাদের সামনে দুটি শিরোপা অপেক্ষা করছে। তবে বর্তমানের শিরোপাটা নিয়ে এই মুহূর্তে আমরা উৎসব করতে চাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘শিরোপা জিততে সাহায্য করা সবাইকে স্মরণ করার মুহূর্ত এটা, প্রত্যেককে। বিশেষ করে আমাদের সমর্থকদের। তাদের আন্তরিক অভিনন্দন।’ ট্রেবল জয় প্রসঙ্গে এনরিকে বলেন, ‘কাপ (কোপা ডেল’রে) খুব বিশেষ। কারণ ফাইনালটি আমরা ন্যুক্যাম্পে খেলছি। বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর স্টেডিয়াম। ডাবল জেতা অসাধারণ এক বিষয় হবে।’

শিরোপা পুনরুদ্ধার আগেই করেছে চেলসি। যে কারণে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের বাদ বাকি ম্যাচগুলো নিয়ে তেমন আকর্ষণ ছিল না। তবে রবিবার রাতে সবার দৃষ্টি ছিল বিশ্বের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লীগের দিকে। এ রাতে শেষ হয়েছে ২০১৪-১৫ মৌসুম। শেষ ম্যাচে দারুণ জয় দিয়ে সোমবার চ্যাম্পিয়ন চেলসি শিরোপা উৎসব করেছে। পশ্চিম লন্ডনে প্রায় ৭০ হাজার সমর্থক জমায়েত হয়েছিল ব্লুজদের আনন্দ উৎসবে। খোলা বাসে করে চেলসির বিজয়ী বীরেরা ভক্তদের ভালবাসার জবাব দেন। এ সময় কোচ মরিনহো ছিলেন সবার মধ্যমণি। মৌসুমের শেষ ম্যাচে স্টামফোর্ড ব্রিজে চেলসি ৩-১ গোলে পরাজিত করে সান্ডারল্যান্ডকে। ম্যাচ শেষে দ্য ব্লুজ কোচ জোশে মরিনহো জানিয়েছেন, আগামী মৌসুমে শিরোপা ধরে রাখতে আরও ভাল খেলোয়াড় দলে চান তিনি।

জার্মান বুন্দেসলিগায় টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বেয়ার্ন মিউনিখ। অবশ্য লীগ শেষ হওয়ার অনেক আগেই এবার শিরোপা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। তবে শেষদিন পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে ট্রফি নিয়ে উৎসব করার জন্য। শনিবার বার্লিনে মেইঞ্জকে ২-০ গোলে হারিয়ে এ্যালিয়াঞ্জ এ্যারানায় শিরোপা উৎসব করেছে পেপ গার্ডিওলার শিষ্যরা। গত এপ্রিলে বুন্দেসলিগার শিরোপা নিশ্চিত করার পর টানা তিন ম্যাচ হেরেছিল বাভারিয়ানরা। সেখান থেকে জয়ের ধারায় ফিরেই মৌসুম শেষ করেছে মিউনিখের ক্লাবটি। এবারও বুন্দেসলিগা নিজেদের ঘরেই থাকছে তা নিশ্চিত হয়ে যায় এপ্রিলের শেষদিকে। এরপর যেন খেই হারিয়ে ফেলে জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। চ্যাম্পিয়ন্স লীগ থেকে বিদায় নেয় তারা সেমিফাইনালে বার্সিলোনার কাছে হেরে। আর বুন্দেসলিগায় বেয়ার লেভারকুসেন, অগসবার্গ ও ফ্রেইবুর্গের কাছে হেরে যায় গার্ডিওলার দল। চার ম্যাচ আগেই শিরোপা নিশ্চিত করে জুভেন্টাস। এ কারণে নেপোলির বিরুদ্ধে ম্যাচটি ছিল শুধুই আনুষ্ঠানিকতার। আর সেই ম্যাচেও দারুণ জয় পায় ম্যাসিমিলিয়ানো এ্যালেগ্রির দল। শনিবার টানা চারবারের চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস ৩-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারায় নেপোলিকে। সেই সঙ্গে ওইদিনই সিরি এ লীগের শিরোপা হাতে পেয়ে উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসে তারা।

প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৫

২৭/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: