মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হলি ক্রিসেন্ট স্কুলে শিশু ধর্ষণের দায়ে শিক্ষকের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৫
হলি ক্রিসেন্ট স্কুলে শিশু ধর্ষণের দায়ে শিক্ষকের যাবজ্জীবন
  • ওই শিক্ষক মানবতাকে ভূলুণ্ঠিত করেছে ॥ বিচারক

কোর্ট রিপোর্টার ॥ ৫ বছর বয়সী ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় এক আরবী শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদ- এবং দুই লাখ টাকা জরিমানা দ-ের রায় দিয়েছে ঢাকার ৫ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক তানজিনা ইসমাইল এ রায় ঘোষণা করেন।

দ-িত ওই ব্যক্তির নাম মিনহাজ উদ্দিন (২৫)। তিনি কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর থানার তবকপুর গ্রামের মৃত এনায়েত হোসেনের ছেলে। রাজধানীর মিরপুরের পশ্চিম শেওড়াপাড়ার হলি ক্রিসেন্ট স্কুল এ্যান্ড কলেজের খ-কালীন আরবী শিক্ষক ছিলেন দ-িত মিনহাজ উদ্দিন।

রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক বলেন, স্কুলের আরবী শিক্ষক হলেন ছাত্রছাত্রীদের ন্যায়নীতি, মূল্যবোধ ও চরিত্র গঠনের সর্বোত্তম শিক্ষাগুরু। অথচ এই শিক্ষক একটা অবুঝ শিশুকে ধর্ষণ করে যে পশুত্বের বহির্প্রকাশ ঘটিয়েছেন তাতে আসামি শুধু শিক্ষক সমাজের নয় বরং মানবকুলের মৌলিক বিশ্বাসের জায়গাটি ধ্বংস করে মানবতাকে ভূলুন্ঠিত করেছেন।

রায়ে জরিমানার ২ লাখ টাকা অনাদায়ে ওই শিক্ষককে ৩ বছরের কারাদ- প্রদান করা হয়েছে। আর জরিমানা দিলে ওই টাকার মধ্যে এক লাখ টাকা ভিকটিমের পরিবারকে প্রদান করতে বলা হয়েছে এবং এক লাখ টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

২০১৪ সালের ১১ মার্চ হলি ক্রিসেন্ট স্কুলে প্লে শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে আরবী শিক্ষক মিনহাজ উদ্দিন ওরফে আলিফ স্যার চকোলেট দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে স্কুলের শৌচাগারে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই ঘটনায় ভিকটিমের বাবা মোঃ জসিম উদ্দিন মিরপুর থানায় এই মামলা দায়ের করেন।।

মামলাটির তদন্ত করে মিরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মতিউর রহমান ২০১৪ সালের ২৬ জুন আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ওই বছরের ২৯ অক্টোবর আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনাল মামলাটির বিচারকালে চার্জশীটভুক্ত ১০ সাক্ষীর মধ্যে ৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। ঘটনার দিনই ওই শিক্ষক গ্রেফতার হন। এর পর থেকেই তিনি কারাগারে আছেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর আলী আজগর স্বপন। ভিকটিমের পক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইনজীবী সালমা আলী, এ্যাডভোকেট ফাহমিদা আক্তার ও এ্যাডভোকেট ফারহানা রহমান লুনা।

প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৫

২৭/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: