মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গোল্ডেন বুট জিতলেন এ্যাগুয়েরো

প্রকাশিত : ২৬ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত মৌসুমে সার্জিও এ্যাগুয়েরোর দুর্দান্ত পারফর্মেন্সের সৌজন্যেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জিতে ম্যানচেস্টার সিটি। চলতি মৌসুমেও ম্যানসিটির আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের পারফর্মেন্স ছিল প্রশংসনীয়। কিন্তু দুর্ভাগ্য ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দলের। এবার আর শিরোপা ধরে রাখতে পারেনি তারা। চেলসির কাছে শিরোপা হারিয়ে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের। তবে ব্যক্তিগত পারফর্মেন্সে ঠিকই ঔজ্জ্বল্য ছড়িয়েছেন এ্যাগুয়েরো। তার ফলাফলটাও পেয়ে গেলেন ২৬ বছর বয়সী এ আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার। চলতি মৌসুমে ২৬ গোল করে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের গোল্ডেন বুট জয়ের স্বাদ পান তিনি। তরুণ প্রতিভাবান ফুটবলার হ্যারি কেন ও দিয়েগো কোস্তাকে হারিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথমবারের মতো ইপিএলের গোল্ডেন বুট নিজের করে নেন তিনি। ফলে দারুণ উচ্ছ্বাসিত সিটির এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার। ম্যানচেস্টার সিটির জার্সিতে পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা পরের মৌসুমেও ধরে রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। ২০১১ সালে স্প্যানিশ ক্লাব এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ছেড়ে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেন তিনি। এরপর আর কখনই পেছনের দিকে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। রবিবার শেষ হওয়া চলতি মৌসুমেও নিজের জাত চেনালেন সার্জিও এ্যাগুয়েরো। গত সপ্তাহে কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সের (কিউপিআর) বিপক্ষে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন তিনি। আর সেই ম্যাচে গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি ৬-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারায় কিউপিআরকে। আর রবিবার সাউদাম্পটনের বিপক্ষেও গোল করেন তিনি। ফলে চলতি মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগে ২৬ গোল করেন তিনি। সাউদাম্পটনের বিপক্ষে গোলের সৌজন্যে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে ২০১৪-১৫ মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় সবার উপরে থেকেই মৌসুম শেষ করেন সার্জিও এ্যাগুয়েরো। চলতি মৌসুমে ইপিএলে তার মোট গোলসংখ্যা ২৬। দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে গোল্ডেন বুট জয়ের স্বাদ পান এ্যাগুয়েরো। তার আগে গত মৌসুমে এই পুরস্কার জিতেছিলেন সাবেক লিভারপুলের উরুগুইয়ান তারকা লুইস সুয়ারেজ। এবার এ পুরস্কার নিজের করে নেন এ্যাগুয়েরো। ম্যানচেস্টার সিটির আর্জেন্টাইন তারকা সার্জিও এ্যাগুয়েরোর পর ২১ গোল করে এ তালিকায় দুইয়ে আছেন টটেনহাম হটস্পারের ইংলিশ ফুটবলার হ্যারি কেন।

চলতি মৌসুমের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলেছেন কেন। গ্যারি লিনেকারের পর প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টটেনহাম হটস্পারের হয়ে ৩০ গোল করার রেকর্ড গড়েন হ্যারি কেন। চেলসির স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড দিয়েগো কোস্তার গোল ২০। অবস্থান তিনে। এছাড়া কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সের চার্লি অস্টিন করেছেন ১৮ গোল। আর্সেনালের এ্যালেক্সিস সানচেসের গোল ১৬। সানচেজের সতীর্থ অলিভিয়ের জিরাউড ও চেলসির ইডেন হ্যাজার্ডের গোল সমান ১৪টি করে। চলতি মৌসুমের তিন ম্যাচ আগেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা নিজেদের করে নেয় চেলসি। চার বছর পর এই প্রথম শিরোপা জয়ের স্বাদ পায় জোশে মরিনহোর দল। আর দ্বিতীয় স্থানে থেকে মৌসুম শেষ করে ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দল। তবে শিরোপা ধরে না রাখতে পারলেও নিজেদের পারফর্মেন্সে সন্তুষ্ট পেলেগ্রিনি। বিশেষ করে শিষ্য এ্যাগুয়েরোর পারফর্মেন্সে মুগ্ধ সাবেক মালাগার এই অভিজ্ঞ কোচ। তার মতে, এ্যাগুয়েরো নিজেকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি তার (এ্যাগুয়েরো) সঙ্গে প্রতিদিনই কাজ করি তাই আমার কাছে খুবই সুস্পষ্ট যে, সে প্রকৃতপক্ষে কেমন মাপের একজন খেলোয়াড়। সে প্রতিনিয়তই নিজেকে উন্নতি করছে।’

প্রকাশিত : ২৬ মে ২০১৫

২৬/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: