কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সুনামগঞ্জে রাস্তার ব্লক তুলে মার্কেট নির্মাণ

প্রকাশিত : ২৬ মে ২০১৫
  • প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির আপত্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা, সুনামগঞ্জ, ২৫ মে ॥ সুনামগঞ্জের সুলেমানপুর বাজারে সিবিআরএমপির রাস্তার ব্লক তুলে নিয়ে তৈরি হচ্ছে সুরম্য অট্টালিকা। চলতি বছরের শুরুর দিকে স্থানীয় বাজারে মার্কেট নির্মাণের উদ্যোগ নেন ইউপি সদস্য হাবুল মিয়া। প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির আপত্তি সত্ত্বেও মার্কেট তৈরিতে ব্যবহার করছেন রাস্তার সরকারী ব্লক। তার এ ধরনের অপরাধ জায়েজ করতে সভাপতিসহ অন্যান্য লোকদের উদ্বুদ্ধ করতে থাকেন ব্লক তুলে নিতে। এ ব্যাপারে পুলিশ ও হিলিপের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশ আছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

সরেজমিন দেখা যায়, তাহিরপুর উপজেলার টাংগুয়ার হাওরের পূর্ব-দক্ষিণ কোণে বৌলাই নদীর পাড়ে সুলেমানপুর খেয়াঘাট থেকে সুলেমানপুর বাজারের পশ্চিম প্রান্ত পর্যন্ত ৪০০ মিটার ব্লক নির্মিত রাস্তা ২০১২-১৩ অর্থবছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের অধীনে কমিউনিটি বেইজ রিসোর্স মেনেজমেন্ট প্রজেক্ট (সিবিআরএমপি) প্রকল্প বাস্তবায়ন করে। পরবর্তীতে এটি হাওর ফ্লাড মেনেজমেন্ট এ্যান্ড লাইভলি হুড প্রজেক্টের (হিলিপ) অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। চলতি বছরের মে-জুন মাসে ৪০ দিনের কর্মসৃজন প্রকল্প আওতায় রাস্তাটিতে মাটি ভরাটসহ পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ নেয় ইউনিয়ন পরিষদ। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি নিযুক্ত করা হয় ইউপি সদস্য হাবলু মিয়াকে। নিয়ম অনুযায়ী কাজ চলাকালীন ব্লকগুলো তুলে রাস্তার পাশে রাখার কথা। যার তদারকি হিলিপ প্রকল্প কমিটির সভাপতি কছিম উদ্দিন ও ইউপি সদস্য হাবলু মিয়ার করার কথা থাকলেও ক্ষমতার অপব্যবহার করেন হাবলু মিয়া।

এ ব্যাপারে হিলিপের সভাপতি কাছিম উদ্দিন জানান, ব্লক তুলে মেম্বার মার্কেটের কাজে লাগালে তিনি একাধিকবার আপত্তি করেছেন। তার আপত্তি উপেক্ষা করে মেম্বার তাকেও ব্লক নিয়ে ব্যবহারের প্রস্তাব দেন। পরে তিনি, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে জানালে হিলিপ প্রজেক্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাকে লিখিতভাবে অভিযোগ করতে পরামর্শ প্রদান করেন।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য হাবলু মিয়া ব্লক তুলে নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, সিবিআরএমপির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার মৌখিক অনুমতি সাপেক্ষে তার দালানে ব্যবহার করেছেন।

নীলফামারীতে চাঁদা নেয়ার সময় চার শিবির কর্মী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ চাঁদা উত্তোলনের সময় নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় চার শিবিরকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুুলিশ। রবিবার রাতে টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের পূর্বখড়িবাড়ি দীঘিরপাড় থেকে ওই শিবিরকর্মীরা সংগঠনের নামে মাসিক চাঁদা উত্তোলন করছিল। এ সময় তাদের গ্রেফতার করা হয়। সোমবার দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলোÑ ডিমলা উপজেলার শিবিরকর্মী জালাল উদ্দিন (২৪), তারাজুল ইসলাম (১৯), ওসমান গনি (১৮) ও শরীফ আহমেদ (২০)। এলাকাবাসীর অভিযোগ, জামায়াত-শিবির এলাকায় ভেতরে ভেতরে সক্রিয় হয়ে উঠছে। তারা বিভিন্ন স্থানে গোপন বৈঠক অব্যাহত রেখেছে।

প্রকাশিত : ২৬ মে ২০১৫

২৬/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: