কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এবার নিশা দেশাইকে জড়িয়ে ভুয়া বিবৃতি বিএনপি নেতার

প্রকাশিত : ২৫ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাইয়ের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে বলে এমন ভুয়া বিবৃতি প্রচার করেছেন সেখানকার এক বিএনপি নেতা। নিশার সঙ্গে বৈঠক করে ওই ভুয়া বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশের ‘উদ্ভূত পরিস্থিতি’ নিরসনে কাজ করছেন নিশা দেশাই। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়ার বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে ওই নেতার সঙ্গে নিশার কোন বৈঠক হয়নি। সূত্র জানায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ছয় কংগ্রেস সদস্যের নামে ভুয়া বিবৃতি পাঠানোর জন্য বিএনপির বৈদেশিক দূত ও বিশেষ উপদেষ্টার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল জাহিদ এফ সর্দার সাদীকে। তবে তিনি অব্যাহতি পাওয়ার পরেও নিজেকে বিএনপির নেতা হিসেবে পরিচয় দিয়ে চলেছেন। এছাড়া তিনি সেখানকার বিএনপি-জামায়াতের নেতাদের সঙ্গেও উঠাবসা করে থাকেন। তিনি প্রতিনিয়ত যুক্তরাষ্ট্র সরকারের গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের নামে ভুয়া বিবৃতি গণমাধ্যমে প্রচার করে চলেছেন। এ ধরনের আরেকটি ঘটনা সম্প্রতি ধরা পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাইয়ের সঙ্গে ২০ মে তার এক ‘জরুরী বৈঠক’ হয়েছে বলে জাহিদ এফ সর্দারের নামে গণমাধ্যমে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়, যার সঙ্গে দুজনের একটি ছবি সংযুক্ত করা হয়েছে। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওই বৈঠকে নিশা দেশাই বলেছেন, বাংলাদেশের ‘উদ্ভূত অচলাবস্থা’ নিরসনে তিনি এবং মার্কিন সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। অচিরেই বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থার উত্তরণ ঘটবে। জরুরী বৈঠক নিয়ে এই বিজ্ঞপ্তিটি ঢাকার গণমাধ্যমে প্রকাশের পর যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাইয়ের কার্যালয়ে যোগাযোগের প্রেক্ষিতে গণমাধ্যমকে জানানো হয় এ ধরনের কোন বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়নি। দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া ব্যুরোর প্রেস চীফ মার্ক থ্রনবার্গ জানিয়েছেন, নিশার সঙ্গে জাহিদ এফ সর্দারের কোন বৈঠক হয়নি। ওই বৈঠকের সংবাদকে বিশ্বাসযোগ্য করতে প্রচারিত ছবিটিও নিশা দেশাইয়ের সঙ্গে বৈঠকের ছবি বলে মনে হয় না, যা তোলা হয়েছে কোন বাইরের করিডরে দাঁড়ানো অবস্থায়। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী বিএনপি নেতা ডাঃ মজিবর রহমান মজুমদারের সঙ্গে মিলে ছয় কংগ্রেস সদস্যের নামে ভুয়া বিবৃতি পাঠিয়েছিলেন তিনি, যাতে গত জানুয়ারিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করা এবং তার ছেলে তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারে নিষেধাজ্ঞা আরোপের নিন্দা জানানোর কথা বলা হয়েছিল।

বাংলাদেশের কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম এবং যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যভিত্তিক দুটি অনলাইন সংবাদ পোর্টালে মার্কিন কংগ্রেস সদস্যদের নামে ওই বিবৃতির খবর প্রকাশ হলে বিবৃতি পাঠিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন যুক্তরাষ্ট্রের দুই কংগ্রেস সদস্য। এরপর জাহিদ এফ সর্দার সাদী ও মজিবর রহমান মজুমদারকে বিএনপির বৈদেশিক দূত ও বিশেষ উপদেষ্টার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা ১৩ জানুয়ারি নিউইয়র্কে সংবাদ সম্মেলন করে তাদের দল থেকে বাদ দেয়ার কথা জানান। অব্যাহতির ওই ঘোষণাকে পাত্তা না দিয়ে নিজের ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে জাহিদ এফ সর্দার সাদী দাবি করেছে, ‘লন্ডনে বসবাসরত তারেক রহমানের নির্দেশেই তিনি সবকিছু করেছেন এবং ভবিষ্যতেও করবেন।’ নিজেকে খ্রীস্টান দাবিদার বরিশালের সন্তান সাদী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় চাইলেও আবেদন মঞ্জুর হয়নি। এর মধ্যে তিনি ফ্লোরিডার বিভিন্ন অপরাধে অন্তত ২৯ বার গ্রেফতার হয়েছেন। ব্যাংকের চেক নিয়ে প্রতারণা ও মানুষের কাছে অর্থ ধার করে আত্মসাতসহ বিভিন্ন মামলায় তাকে গ্রেফতারের মুচলেকা দিয়ে তিনি মুক্তি পান।

প্রকাশিত : ২৫ মে ২০১৫

২৫/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: