মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জেরার্ড-ল্যাম্পার্ডের প্রশংসা হডসনের

প্রকাশিত : ২৪ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ছাড়তে যাচ্ছেন দুই ইংলিশ তারকা স্টিভেন জেরার্ড ও ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। এই দু’জনই এবার মৌসুম শেষেই পাড়ি জমাবেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। আজ স্টোকসিটির বিরুদ্ধে লিভারপুলের হয়ে শেষ ম্যাচটা খেলবেন ৩৪ বছর বয়সী জেরার্ড। ইতোমধ্যেই দীর্ঘদিনের বেড়ে ওঠার জায়গা এ্যানফিল্ডে শেষ ম্যাচ খেলা হয়েছে। এরপর তিনি যোগ দেবেন অস এ্যাঞ্জেলস গ্যালাক্সিতে। অপরদিকে ৩৬ বছর বয়সী ল্যাম্পার্ড ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে শেষ ম্যাচ খেলবেন সাউদাম্পটনের বিরুদ্ধে। তিনি যোগ দেবেন ম্যানসিটিরই অংশ নিউইয়র্ক সিটি এফসিতে। উভয় ফুটবলারের ভবিষ্যতটা আরও ভাল দেখছেন ইংল্যান্ড জাতীয় দলের কোচ রয় হডসন। তিনি মনে করেন, যখন খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার শেষ করে কোচিংয়ে আসবেন এ দুই তারকা তখন অনেক ভাল করবেন তারা।

হডসন উভয় খেলোয়াড়কে ১০০তম আন্তর্জাতিক ম্যাচের ক্যাপ পরিয়েছেন। গত বছরই অবশ্য আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ইতি টেনেছেন ল্যাম্পার্ড ও জেরার্ড। হডসন অনুভব করছেন এর মাধ্যমে তারা অনেক বেশি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন। এ বিষয়ে হডসন বলেন, ‘গত ১৮ বছরে ইংলিশ ফুটবলে তাদের যে প্রভাব ছিল সেটা সত্যিই বিস্ময়কর। কিন্তু আমি যদি ব্যক্তিগতভাবে বলি তাদের প্রভাবটা আমার ওপর অনেক বেশি। আমি ইংল্যান্ডের কোচ হিসেবে যোগ দেয়ার পর তারা যা করেছেন সেটা ছিল সত্যি চমৎকার। তারা শুধু মাঠের খেলোয়াড় হিসেবেই নয় বরং অনুশীলনে এবং নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষেত্রে এবং চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যে আমাকে মুগ্ধ করেছেন। তারা দু’জনই ছিলেন দুর্দান্ত। বাকি খেলোয়াড়দের জন্য তারা দু’জন প্রকৃত রোল মডেল। তারা যা করেছেন সেটার জন্য আসলে ধন্যবাদ জানানোর মতো কোন কথা আমার জানা নেই। আমি আশা করছি আমেরিকায় তাদের অভিযানটা অনেক ভাল হবে। এটা তাদের জীবনে বাড়তি একটা অভিজ্ঞতার সঞ্চয় ঘটাবে।’

হডসনের সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক অধিনায়ক গ্যারি নেভিল। হডসন আশা করছেন ল্যাম্পার্ড এবং জেরার্ডও ইংল্যান্ড দলকে একইভাবে নিজেদের নিয়োগ করে উপকৃত করবেন জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের। হডসন বলেন, ‘জেরার্ড ও ল্যাম্পার্ডকে ছাড়া ইংলিশ ফুটবলের ভবিষ্যত কতটা উজ্জ্বল হবে সেটা আমি কল্পনাও করতে পারছি না। কিন্তু আমার মনে হয় তাদের পরে অনেক কিছু দেয়ার থাকবে। একদিন খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করবেন তারা এবং ইংল্যান্ডে ফিরবেন। হয়ত লিভারপুল ও চেলসির দায়িত্বে আসবেন। কিন্তু তখন ইংলিশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দেরও তাদের কাছে কিছু পাওয়ার থাকবে। আমার মনে হয় কোচিং ক্যারিয়ারে ভাল ভবিষ্যত রয়েছে দু’জনের। আর সেটা তারা অবশ্যই জাতীয় দলকে উপহার দেবেন।

প্রকাশিত : ২৪ মে ২০১৫

২৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: