আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ঢাকা-গুয়াহাটি ভায়া শিলং পরীক্ষামূলক বাস চলাচল শুরু

প্রকাশিত : ২৩ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা থেকে সিলেটের তামাবিল হয়ে ভারতের শিলং দিয়ে গুয়াহাটি পর্যন্ত পরীক্ষামূলক বাস চলাচল শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ-ভারত যোগাযোগ বাড়াতে দু’দেশের সরকারের মধ্যে ইতিবাচক সমঝোতার নতুন রুটে বাস চলাচল শুরু হলো। উল্লেখ্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের সময় সরকারীভাবে দু’দেশের মধ্যে আনুষ্ঠানিক বাস সার্ভিস চালুর চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

শুক্রবার বিকেল তিনটায় রাজধানীর কমলাপুরে বিআরটিসির আন্তর্জাতিক বাস ডিপোতে এই সার্ভিস উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ শরন। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব আজাহারুল ইসলামের নেতৃত্বে পরীক্ষামূলক বাস সার্ভিসে বিআরটিসি, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ২২ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল ভ্রমণে গেছে। এর আগে ভারত থেকে একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফর করে। রুটটি চালুর বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন তৈরি করে ভারতের প্রতিনিধি দল। এরপর পরই ভারত সফর করেন সড়ক পরিবহন মন্ত্রী।

উদ্বোধন কালে ওবায়দুল কাদের বলেন, পরীক্ষামূলক কয়েকবার যাতায়াত করার পর থেকে নিয়মিত যাত্রী সার্ভিস শুরু হবে। এ নিয়ে নয়াদিল্লীতে ভারতের সড়ক পরিবহন মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ির সঙ্গে আমার বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে ঢাকা-শিলং-গুয়াহাটি বাস সার্ভিস ছাড়াও কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা সরাসরি বাস চলাচল ও বিআরটিসির এক হাজার বাস-ট্রাক ক্রয়সংক্রান্ত দুটি চুক্তির বিষয়ে আলোচনা হয়। এছাড়া আশুগঞ্জ বন্দর থেকে আখাউড়া হয়ে আগরতলা পর্যন্ত সড়কটি চার লেনে উন্নীতকরণ এবং ফেনী নদীর ওপর সেতু নির্মাণসহ ফেনী বিলুনিয়া-সাবরুম-রামগড় সড়ক নির্মাণ কাজের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী জানান।

মন্ত্রী বলেন, গত ২ মে থেকে ঢাকা থেকে সিলেট হয়ে ভারতের শিলং দিয়ে গুয়াহাটি পর্যন্ত বাস সার্ভিস চালু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভারতের পাহাড়ি রাস্তাগুলো মেরামত করতে দেরি হওয়ায় এই বাস সার্ভিসটি পিছিয়ে যায়। তবে ইতোমধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফর উপলক্ষে এ রুট চালুর প্রস্তুতি সম্পন্ন করে ভারত। এ সময় সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এমএএন ছিদ্দিক, বিআরটিসিসহ অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-গুয়াহাটি বাস সার্ভিস চালুর জন্য ভারতের পরিবহন সংস্থাকে চিঠি দেয় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ। তবে ভারত চিঠির উত্তর দেয় গত ৩০ এপ্রিল। এ সার্ভিস চালুর জন্য মোটরযান চুক্তির একটি খসড়া এরই মধ্যে পাঠিয়েছে ভারত। এরপর মতামত চেয়ে ওই খসড়া বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। মতামতের পর তা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায় উত্থাপন করা হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা সফরকালে এ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি হওয়ার কথা রয়েছে। তাই শুক্রবার ২২ মে থেকে পরীক্ষামূলকভাবে সার্ভিসটি চালুর বিষয় চূড়ান্ত করা হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্র আরও জানিয়েছে, প্রথমে ২৬ থেকে ৩০ সিটের একটি মিনিবাস চলাচল করবে। চাহিদা অনুযায়ী পরবর্তী সময়ে বাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে। এসব বাসে ওয়াইফাই ও ট্র্যাকিং সিস্টেম থাকবে। এছাড়া এ রুটে চলাচলকারী যাত্রীদের ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস সুবিধা পর্যায়ক্রমে বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে সার্ভিসটি পরিচালনা করবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি)। এর আগে ঢাকা-গুয়াহাটি পরীক্ষামূলক বাস সার্ভিস পরিচালনার জন্য শ্যামলী পরিবহনের সঙ্গে চুক্তি করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি)। এক্ষেত্রে শ্যামলী পরিবহনের এসি কোস্টার মিনিবাস এ রুট সপ্তাহে দুই দিন ‘শ্যামলী বিআরটিসি’ নামে চলাচল করবে।

মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, ভারত থেকে তাদের কর্মকর্তাসহ ২৪ জনের একটি প্রতিনিধি দল আবারও ঢাকায় আসবে। এভাবে কয়েকবার পরীক্ষামূলক যাতায়াত করার পর থেকে নিয়মিত যাত্রী সার্ভিস চলাচল শুরু হবে।

প্রকাশিত : ২৩ মে ২০১৫

২৩/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: