মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দেশে এনে সালাহউদ্দিনকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে

প্রকাশিত : ২২ মে ২০১৫
  • সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ পুলিশকে বন্ধু হিসেবে পেতে পুলিশের ক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। একই সঙ্গে বাড়ানো হচ্ছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য সংখ্যাও। এছাড়া দেশের বিশিষ্ট ১০ নাগরিকদের বিশেষ নিরাপত্তা দেয়ার পাশাপাশি সালাহউদ্দিনকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি আরও বলেন, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে তার বিরুদ্ধে রেড এ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মানব পাচারের শিকার হয়ে এখন আন্দামান সাগরে আটকেপড়া মানুষের অধিকাংশই মিয়ানমারের রোহিঙ্গা। থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় ঢুকতে না পেরে আন্দামান সাগরে বিভিন্ন নৌকা বা ট্রলারে ভাসছেন অনেকে, যারা মিয়ানমার ও বাংলাদেশের নাগরিক বলে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ সচিবালয় রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি শ্যামল সরকার।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পুলিশকে আমরা জনগণের বন্ধু হিসেবে পেতে চাই। আর সে কারণে পুলিশের ক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে টানা ৯২ দিন বিএনপি-জামায়াতের সহিংসতায় পুলিশ যেভাবে জনগণের পাশে ছিল, সেভাবেই পুলিশ আমাদের বন্ধু হবে। আর তাই তো বাড়ছে তাদের ক্ষমতা। তিনি বলেন, আমরা পুলিশের সক্ষমতা বৃদ্ধি করছি, প্রশিক্ষণ দিচ্ছি, আধুনিক যুগপোযোগী করছি। আর এসব কিছু মানুষের নিরাপত্তার জন্য। পুলিশ যেন নিরাপত্তার কাজ সুচারুভাবে করতে পারে সেজন্য তাদের সক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। তাদের দেশে-বিদেশে ট্রেনিং দেয়া হচ্ছে। আরও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে।

এবারের বাজেটে পুলিশের জন্য যথেষ্ট বরাদ্দ থাকছে জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, এটি নিরাপত্তা ব্যয় নয়, বিনিয়োগ। আমরা পুলিশকে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে তৈরি করছি। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী নতুন ৫০ হাজার পুলিশ নেয়া হবে। ইতোমধ্যে ১০ হাজার নিয়োগও দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশে ১ হাজার ২৫ জনের জন্য একজন পুলিশ রয়েছে। ভারতে ৬০০ জনের জন্য একজন আর অন্যান্য উন্নত দেশে ৪০০ জনের জন্য একজন করে পুলিশ। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, অতি দ্রুত একটি পুলিশ মেডিক্যাল কলেজ স্থাপন করা হবে। এ মেডিক্যাল কলেজে আধুনিক চিকিৎসাব্যবস্থা থাকবে। পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার জন্য আর বাইরে যেতে হবে না।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সংখ্যা বৃদ্ধি

তিনি বলেন, আমরা বিজিবির সদস্য সংখ্যাও বাড়াচ্ছি। এতে সীমান্ত নিরাপত্তা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে ফায়ার সার্ভিস স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়া ভূমিকম্প মোকাবেলায় ২৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবক তৈরি করা হয়েছে। মাদক মোকাবেলায় আমার যথাসম্ভব ব্যবস্থা নিচ্ছি। এসব মাদকদ্রব্য ভারত এবং মিয়ানমার থেকে আসে। বিশেষ করে ইয়াবা আসে মিয়ানমার থেকে। আর বাকি মাদক আসে ভারত থেকে। মিয়ানমার সীমান্তে যেসব ইয়াবা কারখানা রয়েছে সেগুলো তারা বন্ধ করবে বলে আমাদের জানিয়েছে। এছাড়া ভারত ফেনসিডিলসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্যের কারখানা সরিয়ে নিয়েছে সীমান্ত থেকে।

নয়নাভিরাম কারা ভবন হবে

বর্তমান কেন্দ্রীয় কারাগার বুড়িগঙ্গা নদীর ওপারে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের স্থানটিতে একটি আধুনিক নয়নাভিরাম আবাসিক ভবন তৈরি করা হবে। চারপাশে রাস্তা থাকবে। এলাকাটি একটি বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে শোভা পাবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

সালাহউদ্দিনকে দেশে এনে বিচার

বিএনপি-জামায়াতের টানা ৯২ দিনের সহিংসতায় জ্বালাও-পোড়াওয়ের অভিযোগে সালাহউদ্দিন আহমেদকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও মুখপাত্র সালাহউদ্দিন আহমেদ পর্দার আড়ালে থেকে জ্বালাও-পোড়াওয়ের নির্দেশ দিতেন। তাকে আমরা এমনিতেই খুঁজছিলাম। প্রতি ঘণ্টায় সালাহউদ্দিন তার অবস্থান পরিবর্তন করতেন। তারপর কিভাবে তিনি শিলংয়ে গেছেন। এ বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ।

তিনি বলেন, দীর্ঘ ৬২ দিন নিখোঁজ থাকার পর বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদকে ভারতের শিলংয়ে পাসপোর্টবিহীন অবস্থায় উদ্ধার করে সেখানকার পুলিশ। তারপর থেকে দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয় সরকার। এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, তাকে ভারত যদি এমনিই ফিরয়ে দেয়, তাহলে তাকে এখনই ফিরিয়ে আনা হবে। আর যদি তারা কিভাবে গেল তা যাচাই করে বিচার করে, তাহলে পরে (ভারতের বিচারের পর) ফিরিয়ে আনা হবে। ‘তবে বাংলাদেশে ফিরিয়ে এনে আইনী প্রক্রিয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে’- বলেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

তারেককে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, তার বিরুদ্ধে রেড এ্যালার্ট জারি করা হয়েছে, তাকে ফিরিয়ে আনার জন্য। তবে তারেক ইংল্যান্ডে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন।

দশ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নিরাপত্তা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকসহ দেশের বিশিষ্ট ১০ ব্যক্তিকে সরকার বিশেষ নিরাপত্তা দেবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল। এর আগে বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম ও গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডাঃ ইমরান এইচ সরকারসহ ১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে চিঠির মাধ্যমে হত্যার হুমকি দিয়েছে নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন আল কায়েদা-আনসারুল্লাহ বাংলাটিম-১৩। সংগঠনটি ডাকযোগে পাঠানো ইংরেজীতে লেখা একটি চিঠিতে এ হত্যার হুমকি দেয়।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের সব মানুষেরই নিরাপত্তার দায়িত্ব রয়েছে আমাদের। তবে তাদের যেহেতু হুমকি দিয়েছে, সে কারণেই তাদের নিরাপত্তায় গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ব্লগারদের হত্যা আর দেশের বিশিষ্ট ১০ জনকে হত্যার হুমকির মধ্যে ভিন্নতা থাকতে পারে।

এ সকল ঘটনা আল কায়েদা-আনসারুল্লাহ বাংলাটিম ঘটাচ্ছে না ওই নামে অন্য কেউ ঘটাচ্ছে তা অনুসন্ধানের বিষয়। কারা হুমকি দিচ্ছে, কী কারণে হুমকি দিচ্ছে তা গোয়েন্দা অনুসন্ধানে জানা যাবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বিশিষ্ট ১০ ব্যক্তি দেশ ও স্বাধীনতার কথা বলেন। আর যারা হুমকি দিচ্ছে তারা স্বাধীনতা ও দেশের অগ্রগতির বিপক্ষে। তবে ব্লগার হত্যা আর ১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকির মোটিভ ভিন্ন হতে পারে। এর পেছনে যে সংগঠনই জড়িত থাকুক না কেন অনুসন্ধান করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রকাশিত : ২২ মে ২০১৫

২২/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: