মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

রিয়ালে ক্যাসিয়াস যুগের অবসান!

প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৫
রিয়ালে ক্যাসিয়াস যুগের অবসান!
  • এই তারকা গোলরক্ষকের জায়গায় বার্নাব্যুতে ডেভিড ডি গিয়া

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঘরের ছেলে যাকে বলে। ইকার ক্যাসিয়ার রিয়াল মাদ্রিদের তেমনই একজন। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতেই আছেন স্পেন জাতীয় দলের তারকা এই গোলরক্ষক। দুর্দান্ত ধারাবাহিক পারফর্মেন্স প্রদর্শন করে দীর্ঘদিন ধরে স্পেন ও রিয়ালের অধিনায়কত্বের দায়িত্বও পালন করছেন। একের পর এক স্বর্ণ সাফল্যে ভাসা সেই ক্যাসিয়াসই এখন অনেকটা অপাঙ্ক্তেয় গ্যালাক্টিকো শিবিরে!

ক্যাসিয়াস বুধবার উদযাপন করেছেন জন্মদিন। পদার্পণ করেছেন ৩৪ বছরে। শেষ হতে যাওয়া ২০১৪-১৫ মৌসুমে ক্লাবকে কিছুই দিতে পারেননি। যে কারণে ক্যাসিয়াসের রিয়াল ছাড়া এখন সময়ের বিষয় মনে করছেন অনেকে। তার পরিবর্তে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ডেভিড ডি গিয়াকে বার্নাব্যুতে দেখা যেতে পারে বলে গুঞ্জন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে। এটা সত্যি হলে, দীর্ঘ দুই যুগেরও বেশি সময় রিয়ালের রঙ্গিন অধ্যায় শেষ হবে ক্যাসিয়াসের।

কিছুদিন আগেই গুঞ্জন রটে, রিয়াল ছাড়তে পারেন রোনাল্ডো ও ক্যাসিয়াস। ক্যাসিয়াস রিয়ালে সমস্যার মধ্যে আছেন গত কয়েক মৌসুম ধরেই। লা লিগায় তিনি এখন এক নম্বর গোলরক্ষক না। ক্যাসিয়াসের ওপর এককভাবে আর রিয়াল নির্ভরশীল নয়। এ কারণে তিনিও গ্যালাক্টিকো শিবির ছেড়ে দেবেন এমন রটনা ছিল অনেকবার। এ কারণেই লস ব্ল্যাঙ্কোসের সাবেক গোলরক্ষক অগাস্টিন রড্রিগুয়েজের মনে কোন সন্দেহ নেই এ দু’জন ভবিষ্যতে রিয়াল ছেড়ে চলে যাবেন। পেশাদার ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে আছেন ক্যাসিয়াস। তারকা এই গোলরক্ষকের সঙ্গে সাবেক কোচ জোশে মরিনহোর সমস্যা সৃষ্টি হয় ২০১২-১৩ মৌসুমের মাঝামাঝি সময়। সে সময় ক্যাসিয়াসকে সাইডলাইনে বসিয়ে রাখেন মরিনহো। পরে বড় ধরনের ইনজুরির কারণে (হাত ফেটে যাওয়ায়) দল থেকেই ছিটকে যান ক্যাসিয়াস। সেভিয়া থেকে দিয়াগো লোপেজকে টেনে আনেন স্পেশাল ওয়ান। লোপেজ আস্থা অর্জন করে ফেলেন। মরিনহো দায়িত্ব ছাড়েন, স্থলাভিষিক্ত হন কার্লো আনচেলত্তি। ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরলেও ক্যাসিয়াসকে অপেক্ষায় রাখেন নতুন কোচও। দীর্ঘ ২৩৮ দিন বিরতির পর অবশেষে খেলার সুযোগ পান। এখনও লা লিগায় তরুণ কোস্টারিকান গোলরক্ষক কেইলর নাভাসের কারণে নিয়মিত হতে পারেননি ক্যাসিয়াস। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে নিয়মিতই দায়িত্ব পালন করছেন রিয়াল অধিনায়ক হিসেবে। দীর্ঘদিন একাদশের বাইরে থাকার সময়েই ক্যাসিয়াসকে দলে ভেড়াতে অনেক ক্লাব প্রচেষ্টা চালিয়েছে। বেশ কয়েকবার রিয়াল ছাড়ার গুঞ্জনটাও জোরেশোরে শোনা গেছে। কিন্তু থেকে গেছেন ক্যাসিয়াস। গত ১২ মাসে ফর্মের সঙ্গে লড়াই করছেন। জোর গুঞ্জন ডেভিড ডি গিয়ার জায়গায় ক্যাসিয়াসকে ভেড়াতে চাইছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

রিয়াল মাদ্রিদের যুব দলে খেলার মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ারের আত্মপ্রকাশ ঘটে ক্যাসিয়াসের। যুব দলে টানা নয় বছর খেলার পর ১৯৯৮ সালে যোগ দেন রিয়াল মাদ্রিদের ‘সি’ টিমে। সেখানে এক বছর খেলার পর ১৯৯৯ সালে সুযোগ পান ‘বি’ টিমে। সেখানে দুর্দান্ত ক্যারিশমা দেখিয়ে ওই বছরই জায়গা করে নেন রিয়াল মাদ্রিদের মূল দলে। সেই থেকে এখন পর্যন্ত নিরবিচ্ছিন্ন সেবা দিয়ে চলেছেন সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর দলটিকে। একাধারে ২৫ বছর খেলে চলা স্প্যানিশ অধিনায়ক ক্যাসিয়াস কখনই ক্লাব ছাড়ার চিন্তা করেননি! মাঝে মধ্যে লোভনীয় প্রস্তাব যে আসেনি তা নয়। কিন্তু ক্যাসিয়াস তা সবিনয়ে প্রত্যাখ্যান করেছেন। যে কারণে অনেকের ধারণা সুদর্শন এ তারকা হয়ত ক্যারিয়ার শেষ করবেন সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটির হয়েই। একবার এক সাক্ষাতকারে এমন ইঙ্গিত দিয়ে ক্যাসিয়াস বলেছিলেন, আরও আট বছর রিয়ালেই থাকতে চান তিনি। পাশাপাশি সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ৩৯ বছর বয়সে অবসর নেয়ার ইচ্ছার কথা জানান। সেই ক্যাসিয়াসের এখন রিয়াল ছাড়ার উপক্রম!

প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৫

২১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: