মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাল্টিক অঞ্চলে সামরিক মহড়ার তোড়জোড়

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫

ন্যাটো পূর্ব-ইউরোপে সম্প্রসারণ ঘটাতে পারে, এমন আশঙ্কা থেকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন এক বছর কৃষ্ণ সাগরীয় উপদ্বীপ দখল করে নিয়েছিলেন। চলতি সপ্তাহে রুশ সীমান্ত থেকে মাত্র ৬৫ কিলোমিটার দূরে এস্তোনিয়ার ভেতর মার্কিন ট্যাঙ্ক বহরের আনাগোনা লক্ষ্য করা গেছে। এস্তোনিয়ার সাধারণ মানুষের ভেতর রুশ সম্প্রসারণের বিষয়ে আশঙ্কা তৈরি হওয়ার যুক্তরাষ্ট্র সেখানে ট্যাঙ্ক পাঠিয়েছে। খবর ওয়াশিংটন পোস্ট অনলাইনের।

বাল্টিক সাগরে তীরবর্তী এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে একাধিক মহড়া। বল্টিকসহ পূর্ব ইউরোপের কয়েকটি দেশে মহড়াগুলো হয়। রুশ সীমান্ত থেকে এত কাছে এবং এত মহড়া শীতল যুদ্ধ যুগ পরবর্তী সময়ে এটাই প্রথম। স্বাভাবিকভাবেই এদেশগুলো ইউক্রেনের অবস্থা দেখে শঙ্কিত। গত সপ্তাহে এস্তোনিয়ার মহড়া ছাড়াও পোল্যান্ড, লিথুয়ানিয়া, জর্জিয়া ও বল্টিক দেশগুলোতে পৃথকভাবে মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এসব মহড়ার উদ্দেশ্য রাশিয়াকে একটি কড়া বার্তা দেয়া। ইউক্রেনের সেনাবাহিনী যেমন একটি গুলি না ছুড়েই বিনা প্রতিরোধে আত্মসমর্পণ করেছে পূর্ব ইউরোপের দেশগুলো তা থেকে শিক্ষা নিয়েছে। বিশেষ করে ন্যাটো এলাকাভুক্ত হওয়ায় এখানে কিছু করতে চাইলে মস্কোকে তীব্র প্রতিরোধের সম্মুখীন হতে হবে। সামরিক প্রস্তুতি গ্রহণ ছাড়াও বাল্টিক এলাকার ক্ষুদ্র দেশগুলো অন্যদিক দিয়েও পুতিনকে ক্ষুব্ধ করে থাকতে পারে। সামরিক মহড়াগুলো এমন এক সময় আয়োজন যখন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানির পতনের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে মস্কোর রেড স্কয়ারে বিশাল প্যারেডের আয়োজন করে মস্কো।

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫

১৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: