রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চেন্নাই-মুম্বাই প্রথম কোয়ালিফাই ম্যাচ আজ

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫
  • আইপিএল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সংক্ষিপ্ত হয়ে এলো আইপিএলের শিরোপার লড়াই। উত্থান-পতন ও অনেক নাটকীয়তার জন্ম দিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নিল চেন্নাই সুপার কিংস, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ও রাজস্থান রয়্যালস। আজ ‘প্রথম কোয়ালিফাই’ ম্যাচে মুখোমুখি হবে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই এবং রোহিত শর্মার মুম্বাই। জয়ী দল সরাসরি পেয়ে যাবে ফাইনালের টিকেট। সুযোগ থাকবে হেরে যাওয়াদেরও। বুধবার ব্যাঙ্গালুরু-রাজস্থানের মধ্যকার ‘এলিমিনেটর’ বিজয়ীদের সঙ্গে ‘দ্বিতীয় কোয়ালিফাই’ ম্যাচ খেলবে তারা। শুক্রবার ‘দ্বিতীয় কোয়ালিফাই’ ম্যাচেই নির্ধারিত হবে অপর ফাইনালিস্টের ভাগ্য। অর্থাৎ ‘এলিমিনেটর’ থেকে ফাইনালে ওঠার জন্য দুটি ম্যাচে জিততে হবে ব্যাঙ্গালুরু অথবা রাজস্থানকে। চেন্নাই-মুম্বাই ‘প্রথম কোলিফাই’ ম্যাচটিকে ‘অত্যন্ত হাইভোল্টেজ’ বলে আখ্যায়িত করা যায়। একদিকে দারুণ স্থিতিশীল আর ধারাবাহিক নৈপূণ্যের স্বাক্ষর রেখে শেষ চারে জায়গা করে নেয়া আইপিএল ইতিহাসের অন্যতম সফর দল চেন্নাই। ৯ জয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করে ধোনির দল। মুম্বাইর গল্পটা ‘ইন্টারেস্টিং’। তারকাখচিত দল নিয়েও শুরুতে দিশেহারা ছিল রোহিত শর্মারা। মনে হচ্ছিল গ্রুপ পর্ব থেকেই পাততাড়ি গোটাতে হবে তাদের। অবিশ্বাস্যভাবে শেষ সাত ম্যাচে টানা জয়ে ‘ইউটার্ন’ করে গ্রেট শচীন টেন্ডুলকরের ছায়াধণ্য ইন্ডিয়ান্স শিবির (৮ জয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে)।

রবিবার গ্রুপ পর্বের একেবারে শেষ ম্যাচ ছিল মুম্বাইর জন্য ‘ডু অর ডাই’, জিতলে শেষ চার, হারলে বিদায়Ñ কঠিন সমীকরণের লড়াইয়ে আয়েশী জয় তুলে নেয় তারা। ৯ উইকেটের জয়ের পথে সানরাইজার্স হায়দরাবাদককে নিয়ে অনেকটা ছেলেখেলা করে মুম্বাই। প্রথমে প্রতিপক্ষকে ১১৩ রানে অলআউট করে দেয়ার পর ১৩.৫ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে তুলে নেয় বড় জয়। ম্যাচ শেষে এই বিষয়টিকেই বড় করে তুলে ধরেন অধিনায়ক। রোহিত বলেন, ‘ম্যাচটি ঘিরে আমরা ফাইনালের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। সেটা কাজে লেগেছে। বোলাররা, বিশেষ করে লাসিথ মালিঙ্গা ও মিচেল ম্যাকক্লেনঘান কাজটা সহজ করে দিয়েছে। টুর্নামেন্টের এ পর্যায়ে আমারা যেখাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছি, কোয়ালিফাই ম্যাচে তা আত্মবিশ্বাস যোগাবে।’ ১৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন ম্যাকক্লেনঘান, ২ উইকেট মালিঙ্গার। বল হাতে হরভজন সিং, কাইরেন পোলার্ডও কম যান না। বোলিংই দলটির বড় শক্তি। ১৯ উইকেট নিয়ে এ পর্যন্ত আসরের দ্বিতীয় সর্বাধিক উইকেট শিকারি মালিঙ্গা। ১৪ উইকেট হরভজনের। ব্যাট হাতে বড় ভরসা অধিনায়ক নিজেই। ২ হাফ সেঞ্চুরিতে এ পর্যন্ত ৪১৩ রান করে দারুণ ফর্মে রোহিত। চেন্নাইর হয়ে ব্যাট হাতে উড়ছেন ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম। ১ সেঞ্চুরি ও ২ হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে নিউজিল্যান্ড তারকার মোট রান ৪৩৬। স্ট্রাইক রেট ১৫৬। তার ওপর সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ‘ক্যাপ্টেন কুল’ মহেন্দ্র সিং ধোনি। ১ হাফ সেঞ্চুরিতে করেছেন ৩২৮ রান। আছেন ফ্যাফ ডুপ্লেসিস, মাইক হাসি, ডোয়াইন ব্রাভোর মতো বিদেশী ‘পাওয়ার হিটার।’ বল হাতে আগুন ঝড়াচ্ছেন ব্রাভো-আশিষ নেহরারা। ২০ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ শিকারি ব্রাভো, স্থানীয় নেহরার ঝুলিতে ১৮ শিকার। ব্রাভো-নেহরা ‘বনাম’ রোহিত-পোলার্ড, ম্যাককুলাম-ধোনি ‘বনাম’ মালিঙ্গা-হরভজন; জমবে লড়াই বেশ। ওদিকে আশা জাগিয়েও গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়ায় হতাশ ‘ডিফেন্ডিং’ চ্যাম্পিয়ন কলকাতা নাইটরাইডার্স অধিনায়ক গৌতম গাম্ভীর। শেষ চারের টিকেট পেতে রাজস্থানের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে জিততেই হতো, এমন সমীকরণে ২০০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করা নাইটরা হারে ৯ রানে! মজার বিষয়, আইপিএলে এবার সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ‘ক্লোজ’ ম্যাচের জন্ম দিয়ে বিদায় নেয় বলিউড বস্ শাহরুখ খানের মালিকানাধীন ফ্র্যাঞ্চাইজিটি।

ব্যর্থতায় যারপরনাই হতাশ গাম্ভীর বলেন, ‘অঙ্ক আর শেষ ম্যাচের জটিল হিসাব ভরসা হতে পারে না। ওসব সমর্থকদের ভাবনা। সত্যি বলতে শেষ তিন ম্যাচে আমরা মোটেই প্রত্যাশা মতো খেলতে পারিনি। মাঝে সাকিব আল হাসানের অভাবটাও অনুভূত হয়েছে।’

শেষ চারের সূচী

কোয়ালিফাই-১ চেন্নাই ‘বনাম’ মুম্বাই - ১৯ মে’১৫ (মুম্বাই)

এলিমিনেটর ব্যাঙ্গালুরু ‘বনাম’ রাজস্থান - ২০ মে’১৫ (পুনে)

কোয়ালিফাই-২ কোয়ালিফাই-১ হার ‘বনাম’ এলিমিনেটর জয়ী - ২২ মে’১৫ (রাচি)

ফাইনাল কোয়ালিফাই-১ জয়ী ‘বনাম’ কোয়ালিফাই-২ জয়ী - ২৪ মে (কলকাতা)

প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৫

১৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: