কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কেপির জন্য ক্লার্কের সহানুভূতি

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অপাংক্তেয় হয়ে যাওয়া ইংল্যান্ড তারকা কেভিন পিটারসেনের জন্য সহানূভূতি ব্যক্ত করেছেন অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। ঘরের মাটিতে আসন্ন এ্যাশেজ সিরিজে কেপিকে ছাড়া ইংলিশরা দুর্বল দলে পরিণত হবে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। ‘সম্ভবত আমার ভেতরে দুটি বিষয় কাজ করছে। একটি ব্যক্তিগত দিক। যেখানে ওর সঙ্গে ভাল সম্পর্ক আমার। ফিরে এসে ইংল্যান্ড দলে সে খেলতে দেখলে ভাল লাগত। এখনও গ্রেট খেলোয়াড় সে। আমি জানি সে খেলতে চায়। এদিক দিয়ে তার অভাব অনুভব করি’Ñ বলেন অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। আর দ্বিতীয় অনুভূতির দিকটা তুলে ধরে ক্লার্ক আরও যোগ করেনÑ ‘অন্য দিকটা হলো আমরা শিগগিরই ইংল্যান্ডে খেলতে যাচ্ছি। কেভিন পিটারসেনকে ছাড়া সেই দলটি আগের মতো শক্তিশালী থাকবে না। তার পরিসংখ্যানই এই কথা বলে। দীর্ঘকাল ধরেই সে অসাধারণ একজন খেলোয়াড়। ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মেই আছে সে।’ কেভিন পিটারসেন নেইÑ অস্ট্রেলিয়ানদের বরং খুশি হওয়ার কথা। জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে শুরু এবারের এ্যাশেজ। সেখানে পিটারসেন ছাড়া ইংল্যান্ড তো খর্বশক্তির দলই। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কই মনে করে কেপিকে ছাড়া ইংল্যান্ড অপেক্ষাকৃত দুর্বল। তিনিও এই বিতর্কিত খেলোয়াড়কে ইংল্যান্ড দলে দেখলে খুশি হতেন। ইংল্যান্ডের শক্তি কমল বলেই বুঝি হা-হুতাশ করলেন ক্লার্ক! ক্লার্ক আর পিটারসেনের ব্যক্তিগত সম্পর্কটা সুমধুর। একে অন্যকে ভাল জানেন। মাঠের বাইরেও বন্ধু তারা। মাঠের মধ্যে শত্রু হলেও খেলাটা ক্রিকেট। এমন একজনের অনুপস্থিতিতে ইংল্যান্ড দলটি কিছুতেই আগের মতো থাকে না বলে মনে করেন ক্লার্ক। কেপি না থাকায় মিশ্র একটা অনুভূতি হয়েছে তার। ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক পিটারসেনকে গত বছর বরখাস্ত করে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। আত্মজীবনীতে ইংলিশ ক্রিকেটারদের আক্রমণ করায় এ সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ড। এরপর থেকে আর ইংলিশ দলে ডাক পাননি পিটারসেন। সম্প্রতি ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে ক্যারিয়ার সেরা অপরাজিত ৩৫৫ রান করেছেন পিটারসেন। কিন্তু তার এ ইনিংসের পরও ইংলিশ বোর্ডের (ইসিবি) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এ্যাশেজ তো বটেই, তাদের ভবিষ্যত পরিকল্পনাতেও নেই পিটারসেন! তাকে যে আর ডাকা হবে না, গত কয়েক দিনের ঘটনাপ্রবাহে সবাই তা বুঝে গেছেন। সেটিরই পুনরাবৃত্তি করেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) নতুন প্রধান কলিন গ্রেভস।

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৫

১৮/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: